মালয়েশিয়া সরকারের পতন ঘটাতে যাচ্ছেন আনোয়ার ইব্রাহিম?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:০২ এএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

মালয়েশিয়ার রাজনীতিতে পালাবদল শুরু হয়েছে। হয়তো বিরোধী নেতা আনোয়ার ইব্রাহিমের হাত ধরেই দেশটির রাজনীতিতে ব্যাপক পরিবর্তন আসতে চলেছে। কয়েক দফা কারাগারে আর দুই দশকের বেশি সময় ধরে ক্ষমতায় বসার অপেক্ষায় রয়েছেন এই প্রবীণ রাজনীতিবিদ।

মাত্র কয়েকমাস আগেই মালয়েশিয়ার রাজনীতিতে চরম উত্তাপ দেখা দেয়। এর রেশ কাটতে না কাটতেই দেশটির রাজনীতিতে নতুন করে উত্তাপ ছড়িয়েছেন আনোয়ার ইব্রাহিম। ফলে খুব শিগগিরই মালয়েশিয়ার ক্ষমতার পালাবদল ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করছেন অনেকেই।

বিরোধী নেতা আনোয়ার ইব্রাহিমের নিজেও এ বিষয়ে অনেকটাই জোর দিয়েছেন। গত সপ্তাহেই আনোয়ার ইব্রাহিম জানিয়েছিলেন যে, তিনি নতুন সরকার গঠন করতে চান। গত ২৩ সেপ্টেম্বর এক বিবৃতিতে আনোয়ার ইব্রাহিম বলেন, দেশের শক্তিশালী ও বিশ্বাসযোগ্য এমপিদের সংখ্যাগরিষ্ঠই সরকার গঠনে তার প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে তিনি মালয়েশিয়ার রাজার সঙ্গে সাক্ষাত করবেন বলে জানিয়েছেন। রাজার অনুমতি পেলে, তিনি সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রমাণ দিয়ে নতুন সরকার গঠন করবেন। তাতে ক্ষমতাসীন জোটের ভেতর থেকে জন্ম নেয়া মুহিদ্দিন ইয়াসিন সরকারের পতন ঘটবে।

মাত্র ৭ মাস আগেই জোটের ভেতর ষড়যন্ত্র করে মালয়েশিয়ার ক্ষমতা আঁকড়ে ধরেছেন মুহিদ্দিন ইয়াসিন। ফলে ২০১৮ সালের মে মাসে নির্বাচিত ড. মাহাথির মোহাম্মদ সরকারের পতন ঘটে। তবে আনোয়ার ইব্রাহিমকে কতজন এমপি সমর্থন করছেন- তিনি তা প্রকাশ করেননি

আনোয়ার ইব্রাহিম জানান, বিভিন্ন দলের কিছু সংসদ সদস্য তার কাছে এসেছিলেন। ওই সাংসদরা প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিনের নেতৃত্বে মোটেও সন্তুষ্ট নন। এই বিরোধী নেতার মতে, তার প্রতি সংসদ সদস্যদের সমর্থনের অর্থ, মুহিদ্দিন প্রশাসন ভেঙে পড়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের শক্তিশালী সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে। আমি চার, পাঁচ বা ছয়টির (আসন) কথা বলছি না, আমি তার চেয়ে অনেক বেশি আসনের কথা বলছি। এই সংখ্যাগুলোর অর্থ, মুহিদ্দিন প্রধানমন্ত্রিত্ব হারাচ্ছেন।

ঠিক কতজন সংসদ সদস্য সমর্থন দিয়েছেন তা নিশ্চিত না করলেও আনোয়ার ইব্রাহিমের দাবি, দেশটির ২২২ জন সংসদ সদস্যের মধ্যে প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ তাকে সমর্থন দিচ্ছেন।

সংসদ সদস্যদের সমর্থন পেলেও নতুন সরকার গঠনে মালয়েশীয় রাজাকে রাজি করাতে হবে আনোয়ারের। বর্তমানে কুয়ালালামপুরের জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মালয় রাজা সুলতান আব্দুল্লাহ।

এর আগে ডা. মাহাথির মোহাম্মদ বলেছেন, আনোয়ার ইব্রাহিমের জনপ্রিয়তা না থাকায় প্রধানমন্ত্রী হতে পারবেন না। পাকাতান হারাপানের প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনের অচলাবস্থা অব্যাহত থাকায় দাতুক সেরি আনোয়ার ইব্রাহিম উপযুক্ত প্রার্থী নন। কারণ পিকেআর সভাপতি মালয়েশিয়ার কাছে জনপ্রিয় নন বলে উল্লেখ করেছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির।

তিনি বলেন, যে কোনো দলের পক্ষে নির্বাচনে জয়ের জন্য মালয়েশিয়ার জনগণের সমর্থন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। যেহেতু তিনি জনপ্রিয় নন, সেহেতু এই নির্বাচনে জয়ী হওয়ার জন্য এমন কাউকে দরকার যিনি জনগণের সমর্থন পাবেন।

অপরদিকে, আনোয়ার ইব্রাহিমের প্রতি সংখ্যাগরিষ্ঠ সমর্থন থাকার দাবি প্রমাণ করার জন্য প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিন পিকেআরের এই সভাপতিকে চ্যালেঞ্জ করেছেন।

মুহিদ্দিন বলেন, ‘এটি অবশ্যই ফেডারেল সংবিধানের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসারে করা উচিত। আনোয়ারের ঘোষণা কেবল একটি দাবি। যতক্ষণ না আনোয়ার তার দাবি সমর্থন করার জন্য প্রমাণ হাজির করছেন, পেরিকাতান ন্যাশনাল নেতৃত্বাধীন সরকার ক্ষমতায় থাকবে।’ তার মতে, তিনি এখনও বৈধ প্রধানমন্ত্রী হিসেবেই ক্ষমতায় আছেন।

টিটিএন

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]