জনগণের উদ্দেশে কিমের চিঠি: নতুন বছরেও আমি কঠোর পরিশ্রম করব

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:৩৭ পিএম, ০১ জানুয়ারি ২০২১

নববর্ষ উপলক্ষে উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং-উন জনগণের উদ্দেশে এক চিঠি দিয়েছেন এবং তার বাবা ও দাদার সমাধি পরিদর্শন করেছেন। শুক্রবার দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনএ’র বরাত দিয়ে রয়টার্স এ তথ্য জানিয়েছে। তবে প্রতি বছরের মতো এবারও নববর্ষে কিম কোনো ভাষণ দিয়েছেন কিনা তা জানা যায়নি।

চিঠিতে কিম বলেন, ‘নতুন যুগ দ্রুত এনে দিতে আমি নতুন বছরেও কঠোর পরিশ্রম করব। সেই যুগে আমাদের জনগণের আদর্শ ও আকাঙ্ক্ষাগুলি সত্যে পরিণত হবে।’ কঠিন সময়েও শাসক দলের ওপর ভরসা ও সমর্থন অব্যাহত রাখায় চিঠিতে জনগণের প্রতি ধন্যবাদ জানান কিম।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ ও আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞার ফলে উত্তর কোরিয়ার জনগণ কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছে। এ কারণে জনগণকে দেয়া প্রতিশ্রুতি পূরণে ব্যর্থ হওয়ায় এর আগে ক্ষমা চেয়েছিলেন কিম।

উত্তর কোরিয়া জানিয়েছে তাদের দেশে এখন পর্যন্ত কোনো করোনা রোগী শনাক্ত হয়নি। তবে দক্ষিণ করোয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এমনটা হওয়া অসম্ভব। সংক্রমণরোধে বর্ডারে লকডাউনসহ অন্যান্য বিধিনিষেধ আরোপের ফলে উত্তর কোরিয়ার অর্থনীতি সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে।

কেসিএনএ’র ছবিতে দেখা গেছে, নববর্ষ উদযাপনে অনেক মানুষ মাস্ক পরিহিত অবস্থায় রাজধানী পিয়ংইয়ং-এর প্রধান স্কয়ারে জড়ো হয়ে কনসার্ট ও আতশবাজী উপভোগ করছেন।

মধ্যরাতে কিম জং-উন ও অন্যান্য জ্যেষ্ঠ নেতারা কুমসুসান প্যালেস অব দ্য সান পরিদর্শন করেন। সেখানে কাঁচের ভেতরে উত্তর কোরিয়ার সাবেক শাসক কিমের বাবা ও দাদার মৃতদেহ সংরক্ষিত রয়েছে।

কিমের সঙ্গে অষ্টম দলীয় কংগ্রেসের নেতারাও ছিলেন। জানুয়ারিতে এই কংগ্রেস অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। সেখানে কিমের নতুন পঞ্চবার্ষিকী অর্থনৈতিক পরিকল্পনা ঘোষণা, নেতৃত্বে পরিবর্তন ও অন্যান্য রাজনৈতিক বিবৃতি প্রদানের কথা রয়েছে।

এমকে/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]