মিয়ানমারে সেনা হেলিকপ্টার গুলি করে ভূপাতিত করেছে বিদ্রোহীরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৪৬ এএম, ০৪ মে ২০২১

মিয়ানমারে একটি সামরিক হেলিকপ্টার গুলি করে ভূপাতিত করার দাবি করেছে একটি বিদ্রোহী গোষ্ঠী। সোমবার দেশটির শক্তিশালী বিদ্রোহী গোষ্ঠী কাচিন ইন্ডিপেনডেন্স আর্মি (কেআইএ) সামরিক হেলিকপ্টার ভূপাতিত করেছে বলে দাবি করেছে।

মিয়ানারের কাচিন রাজ্য এবং অন্যান্য স্থানে দেশটির সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে চলমান বিক্ষোভের মধ্যেই এই খবর সামনে এলো। সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ শুরুর পর এটাই প্রথম কোনো সামরিক হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের ঘটনা। তবে দেশটির সামরিক সরকারের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে এখনও কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের বেসামরিক সরকারকে সরিয়ে ক্ষমতা দখল করে নেয় সেনাবাহিনী। তারপর থেকেই দেশটিতে সামরিক সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ চলছে। অপরদিকে সামরিক সরকার কঠোর হস্তে বিক্ষোভ দমনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে এখন পর্যন্ত কমপক্ষে ৭৬৬ জন বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছে। জাতিসংঘ বলছে, সামরিক বাহিনীর অভিযানে মিয়ানমার থেকে হাজার হাজার মানুষ নিজেদের ঘর-বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে।

কাচিন ইন্ডিপেন্ডেন্স আর্মি জানিয়েছে, সোমবার সকালে মোমাউক শহরের কাছাকাছি একটি গ্রামে সামরিক হেলিকপ্টারটি গুলি করে ভূপাতিত করা হয়। ওই এলাকায় গত কয়েকদিন ধরেই অভিযান চালাচ্ছে সেনাবাহিনী।

ওই বিদ্রোহী গোষ্ঠীর মুখপাত্র নাও বু বলেন, ‘সামরিক বাহিনী সোমবার সকাল ৮ বা ৯টার দিকে এখানে বিমান হামলা চালিয়েছে। তারা যুদ্ধ বিমান ব্যবহার করেছে এবং হেলিকপ্টার থেকে গুলি চালিয়েছে। আমরাও তাদের পাল্টা আক্রমণ করেছি।’

মিজিমাডেইলি এবং কাচিনওয়েভস নিউজ পোর্টাল থেকেও হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। মিয়ানমারে বেশ কিছু বিদ্রোহী গোষ্ঠী রয়েছে। কিন্তু সামরিক অভিযানের পর থেকে কাচিন ইন্ডিপেন্ডেন্স আর্মিকেই সবচেয়ে বেশি সক্রিয় দেখা গেছে।

দেশটিতে সামরিক সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানে ৩ হাজার ৫৫৫ জন আটক হয়েছে। প্রায় ৪০ জন সাংবাদিককে এখন পর্যন্ত আটক করা হয়েছে।

টিটিএন/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]