প্যানডোরা পেপারস: কেনিয়ার প্রেসিডেন্টেরও গোপন তথ্য ফাঁস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:৩২ পিএম, ০৪ অক্টোবর ২০২১

প্যানডোরা পেপারস ঘিরে সারাবিশ্বে তোলপাড় চলছে। পানামা পেপারসের পর গোপন ও অনৈতিক কর্মকাণ্ডের গোপন তথ্য ফাঁস হওয়ার এটিই সম্ভবত বড় ঘটনা। এবার নাম আসল পূর্ব আফ্রিকার দেশ কেনিয়ার প্রেসিডেন্ট উহুরু কেনিয়াত্তা ও তার পরিবারের সদস্যদের। অবৈধভাবে সম্পদের পাহাড় গড়েছেন তারা, উঠে এলো এমন অভিযোগ। খবর বিবিসির।

প্যানডোরা পেপারসের ফাঁস হওয়া অর্থনীতিবিষয়ক নথি বলছে, দেশের রাজনীতিতে স্বাধীনতার পর থেকে প্রেসিডেন্ট কেনিয়াত্তার পরিবারের সদস্যরা আধিপত্য খাটাচ্ছেন। কয়েক দশক ধরে গোপনে অফশোর কোম্পানির মালিক হয়েছেন তারা। কেনিয়াত্তা ও তার পরিবারের ছয় সদস্যের এরকম ১৩টি অফশোর কোম্পানির সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার খবর পাওয়া গেছে।

যদিও এ বিষয়ে এখনও কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি কেনিয়ার প্রেসিডেন্ট বা তার পরিবারের পক্ষ থেকে।

প্যানডোরা পেপারসের তথ্য বলছে, অফশোর কোম্পানিতে কেনিয়াত্তার বিনিয়োগের মূল্য প্রায় ৩০ মিলিয়ন বা তিন কোটি ডলার। জানা গেছে, ২০০৩ সালে পানামায় ভ্যারিস নামের একটি ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করা হয়। এই ফাউন্ডেশনের প্রথম পৃষ্ঠপোষক কেনিয়াত্তার ৮৮ বছর বয়সী মা। আর দ্বিতীয় পৃষ্ঠপোষক তিনি নিজেই। মায়ের মৃত্যুর পর এই ফাউন্ডেশনের একমাত্র উত্তরাধিকারী হবার কথা তারই।

প্রেসিডেন্ট কেনিয়াত্তার মোট সম্পদের হিসাব সঠিকভাবে জানা যায়নি কখনও। তবে পরিবহন, বিমা, কৃষিসহ বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগ রয়েছে তার পরিবারের সদস্যদের।

যদিও ২০১৮ সালে তিনি বলেন, তার পরিবারের সদস্যদের সম্পদের তথ্য দেশের সাধারণ মানুষের জানা আছে। প্রেসিডেন্ট হিসেবে তিনি এবং তার পরিবার প্রতিবছর আইন অনুযায়ী সম্পদের পরিমাণ ঘোষণা করে জানিয়ে দেন। কিন্তু কয়েক বছরের ব্যবধানে তার সেই বক্তব্যের কোনো মিল পাচ্ছেন না বিশ্লেষকরা প্যানডোরা পেপারসের তথ্য ফাঁসের পর।

এসএনআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]