উদ্যোক্তাদের জন্য সরকারের দ্বার উন্মুক্ত : প্রতিমন্ত্রী পলক

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৪৭ পিএম, ১০ এপ্রিল ২০২১

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক এমপি বলেছেন, ‘উইয়ের উদ্যোক্তাদের জন্য সরকারের দ্বার সব সময় উন্মুক্ত থাকবে।’ উইমেন অ্যান্ড ই-কমার্স ফোরামের (উই) আয়োজনে বায়ার সেলার মিটের সমাপনী দিন শনিবার বিকেলে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পলক বলেন, ‘উইয়ের বিএসএমের মত উদ্যোগগুলোর প্রাতিষ্ঠানিক রূপ আসবে ভবিষ্যতে। উইয়ের সদস্যদের জন্য টেকনোলজি, ট্রেনিং, ট্রেড লাইসেন্স, ট্রান্সেকশন এবং সবাইকে এক করে কাজ করাটা ভীষণভাবে জরুরি।’

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমাদের শেখ রাসেল ডিজিটাল কম্পিউটার ল্যাব বিকেল ৪টা থেকে ৬টা পর্যন্ত যাতে ব্যবহার করতে পারেন উইয়ের সদস্যরা, সেটা নিয়ে কাজ চলছে। দেশের ৫৫০টি ডিজিটাল সার্ভিস এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড ট্রেনিং সেন্টার হতে যাচ্ছে। যার মাধ্যমে উইয়ের উদ্যোক্তারা সহজে কাজ করতে পারবেন।’

তিনি বলেন, ‘৬৪টি জেলায় আইটি ইনকিউবেশন সেন্টার, ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার, একশপ বা একপে’র মাধ্যমে উইয়ের সদস্যরা ব্যবসা করতে পারবেন।’

প্রতিমন্ত্রী পলক এসময় উইয়ের মাধ্যমে লজিস্টিকস সেবা চালুর ঘোষণা ও সহজতর করা সম্পর্কে জানান। তিনি বলেন, ‘উইয়ের মাধ্যমে ২০০০ উদ্যোক্তাকে অনুদান দেওয়া হচ্ছে ৫০ হাজার টাকা করে। আমি উইয়ের থেকে ১০০ জনের তালিকা নেব। যাদের ২৫ লাখ টাকা পর্যন্ত মাত্র ৪% সুদে বিশেষ বিনিয়োগ করবে আইটি ডিভিশন।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন উইয়ের গ্লোবাল অ্যাডভাইজর ও সিল্কক গ্লোবালের সিইও সৌম্য বসু, উইয়ের উপদেষ্টা জাহানুর কবির সাকিব, উইয়ের ডিরেক্টর শেখ লিমা, প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি নাসিমা আক্তার নিশা।

উই প্রেসিডেন্ট নাসিমা আক্তার নিশা বলেন, ‘আমরা কৃতজ্ঞ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমাদের জন্য এতগুলো সুযোগ সৃষ্টি করার জন্য। তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী আমাদের অভিভাবক হিসেবে উইকে সাপোর্ট করে যাচ্ছেন। প্রথম থেকে এটি আমাদের জন্য বড় আনন্দের খবর। ভবিষ্যতেও বিএসএমের মত আয়োজন করবো প্রতিনিয়ত।’

এসইউ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]