অন্তঃসত্ত্বাকে চড়-থাপ্পড় : পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:০৭ পিএম, ২৮ জুন ২০১৮

চাঁদার টাকা না দেয়ায় এক অন্তঃসত্ত্বাকে চড়-থাপ্পড় মারার অভিযোগে চকবাজার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইব্রাহিম হোসেন নয়নসহ সাত জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৮ জুন) ঢাকা মহানগর হাকিম ফাহাদ বিন আমীন চৌধুরীর আদালতে মামলাটি করেন চকবাজার থানা এলাকার নাজিম উদ্দিন রোডের বাসিন্দা সালমা আক্তার (২২)। আদালত বাদীর জবানবন্দী গ্রহণ করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্ত করে ৫ আগস্টের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলে নির্দেশ দেন। মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী ছিলেন জাহাঙ্গীর হোসেন।

মামলার আসামিরা হলেন- ওই এলাকার বাসিন্দা মাহবুব, হাজী বাবুল, জামাল উদ্দিন, মিন্টু, শাহীন ও শাহীদ।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২৩ মে মামলার আসামি এসআই নয়ন চকবাজারের নাজিম উদ্দিন রোডে বাদী সালমার বাসায় সাদা পোষাকে এসে ডাকাডাকি এবং তার দরজায় ধাক্কাধাক্কি করে। এ সময় নয়নের সঙ্গে বাকি ছয় আসামিও ছিলেন। বাদী দরজা খুললে তার স্বামী রিয়াজকে খোঁজাখুঁজি করতে থাকে আসামিরা। বাদী তার স্বামীকে খোঁজার কারণ জানতে চাইলে আসামিরা খারাপ আচারণ এবং ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন।

আসামি এসআই নয়ন বাদীকে বলেন, দাবীকৃত টাকা না দিলে স্বামীকে (রিয়াজ) একাধিক মাদক মামলার আসামি করা হবে। এ সময় তিনি টাকা দিতে অস্বীকার করলে এসআই নয়ন বাদীর দুই গালে চড় থাপ্পড় মারে। সঙ্গে থাকা অপর আসামিরাও এ সময় তাকে মরধর করে রক্তাক্ত করে। ৯ জুন আসামিদের বিরুদ্ধে লালবাগ জোনের ডিসির বরাবর একটি অভিযোগ করেন বাদী।

২৬ জুন আসামিরা অভিযোগের বিষয় জানতে পারে লাঠিসোটা নিয়ে বাদী ও তার স্বামীকে মারধর এবং অভিযোগ তুলে না নিলে তাদের জীবন নাশের হুমকি দেয়।

এসআই ছাড়া অপর আসামিরা বাদীর বাসায় প্রবেশ করে ভাংচুর এবং নগদ ৬০ হাজার টাকা ও দেড় ভরি স্বর্ণ লুট করে।

জেএ/এএইচ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]