পোস্টারে ‘বিসমিল্লাহ’ লেখা বন্ধের রিট খারিজ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৩৪ পিএম, ১৪ জুলাই ২০১৯

ধর্মের বিষয়ে আমরা কোনো আদেশ দেব না। আর ধর্মের বিষয় কে কীভাবে পালন করবে সেটা তো আমরা বলে দিতে পারি না বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট।

বিভিন্ন পর্যায়ের নির্বাচনের সময় ‘বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম’ সহ মহান আল্লাহ তায়ালার বাণী সংবলিত পোস্টার ব্যানার না ছাপানোর নির্দেশনা চাওয়া-সংক্রান্ত এক রিটের শুনানিতে এমন মন্তব্য করেন হাইকোর্ট। এরপর রিটটি উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ (নট প্রেস রিজেক্ট) করে দেন আদালত।

এ সংক্রান্ত এক রিটের শুনানিতে রোববার হাইকোর্টের বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। এ সময় আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে উপস্থিত ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সাইফুল আলম। অন্যদিকে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. রিয়াজুর রহমান।

এ বিষয়ে সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সাইফুল আলম জাগো নিউজকে বলেন, মহান আল্লাহ তায়ালার বাণী সংবলিত লেখা পোস্টার ও ব্যানার ফেস্টুন না ছাপানোর নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিট করা হয়। রিটের বিবাদীরা হলেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব ও নির্বাচন কমিশনার। ওই রিটের শুনানি করতে আসলে আদালত তা খারিজ করে দেন।

আদালত ধর্মীয় বিষয়ে কোনো আদেশ না দিয়ে বলেছেন, এটা ধর্মীয় বিষয়, আমরা কোনো আদেশ দেব না। আর ধর্মের বিষয় কে কীভাবে পালন করবে সেটা তো আমরা বলে দিতে পারি না।

এ বিষয়ে রিটকারী আইনজীবী মো. রিয়াজুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, দেশে জাতীয় এবং স্থানীয় নির্বাচনের সময় পোস্টার ব্যানার ও ফেস্টুন ছাপানো হয়। সেখানে বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিমসহ আল্লাহ তায়ালার নামে বিভিন্ন বাণী থাকে। সেটা ছিড়ে ফেলার পর মানুষ পায়ে মারায়। এতে আল্লাহ তায়ালার প্রতি অমর্যাদা হয়।’

রিটকারী আইনজীবী আরও বলেন, ‘এ ছাড়া ধর্মকে রাজনীতিতে ব্যবহার করা যাবে না মর্মেও সংবিধানে উল্লেখ রয়েছে।’

‘তাই গত মাসের শেষ দিকে এ সংক্রান্ত বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে একটি রিট করেছিলাম। আজ সেটির শুনানি করতে গেলে রিটটি উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। এখন আমি রিটটি নিয়ে অন্য কোর্টে যেতে পারি,’ বলেন রিয়াজুর রহমান।

এফএইচ/এনডিএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]