‘পদ্মা সেতুতে লাগবে মাথা’ গুজব রটনাকারীর জামিন আবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৫৪ পিএম, ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯

‘পদ্মা সেতু নির্মাণে এক লাখ মানুষের কাটা মাথা লাগবে’ এমন গুজব ছড়ানোর অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় গ্রেফতার নড়াইলের নাজমুল হোসেন ওরফে বাবুর জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করা হয়েছে।

হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট সূত্র জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. শওকত হোসেন ও বিচারপতি ফাতেমা নজীবের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে জামিনের বিষয়ে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট হেলাল উদ্দিন মোল্লা, সঙ্গে ছিলেন সৈয়দা ফারাহ হেলাল। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক।

এর আগে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় নাজমুল হোসেন ওরফে বাবুর পক্ষে তার আইনজীবী এ জামিন আবেদন করেন। পরে এ বিষয়ে শুনানি হয়। আর রাষ্ট্রপক্ষকে বলা হয় মামলাটি গুরুত্বসহকারে বিবেচেনা করে শুনানির জন্য। তাই এ বিষয়ে শুনানির দিন পেছানো হয়েছে।

এর আগে গত ১৯ আগস্ট মো. নাজমুল হোসেন (৪০) ওরফে বাবুর জামিন চেয়ে নড়াইল আদালতে আবেদন করা হয়। এরপর ওই জামিন আবেদন শুনানি নিয়ে তা নাকোচ করেন নড়াইলের ভারপ্রাপ্ত দায়রা জজ মো. হায়দার আলী খোন্দকারের আদালত।

বিচারিক আদালতে জামিন আবেদন নিষ্পত্তিতে বলেন, নথি পর্যালোচনা করে দেখা যায় যে, এজাহার বর্ণনায় আবেদনকারী আসামির বিরুদ্ধে তার নাজমুল হোসেন বাবু নামক ফেইসবুক ম্যাসেঞ্জার আইডি থেকে ‘পদ্মা সেতু নির্মাণে এক লাখ মানুষের মাথা লাগবে’ মর্মে সোশাল মেডিয়াই গুজব ও আতঙ্ক ছড়ানোর সুনির্দিষ্ট অভিযোগ বিদ্যামান। বিষয়টি স্পর্শকাতর এবং দেশের মানুষের জন্য ব্যাপক বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে। অতএব আসামি নাজমুল হোসেন বাবুর জামিন আবেদনটি নামঞ্জুর।

এরপর বিচারিক আদালতের জামিন না পেয়ে সে হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন বলে জানান আইনজীবী হেলাল উদ্দিন মোল্লা।

নাজমুল তার ফেসবুকে আইডি থেকে 'পদ্মা সেতু নির্মাণে এক লাখ কাটা মাথা লাগবে' বলে একটি পোস্ট দিয়ে বিভিন্ন জনের ফেসবুক আইডিতে পাঠান। এই অভিযোগে ২০১৮ সালের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫(২), ৩১(২), ৩৫ ধারায় ২৫ জুলাই নড়াইল সদর থানায় মামলা করে পুলিশের পরিদর্শক মো. ইলিয়াস হোসেন। পরে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, অভিযুক্ত মো. নাজমুল হোসেন ওরফে বাবু ভুয়া একটি আইডির মাধ্যমে ‘পদ্মা সেতু নির্মাণে কাটা মাথা লাগবে’ বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি পোস্ট দেন।

পোস্টে তিনি লেখেন, ‘পদ্মা সেতু নির্মাণে বাধার সৃষ্টি হওয়ায় এক লাখ বা তারও অধিক মানুষের মাথা প্রয়োজন। পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ চালিয়ে যেতে তাই বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে দেশজুড়ে ৪২ দল বের হয়েছে এ মাথা সংগ্রহের জন্য। এরা পথেঘাটে, খেলার মাঠে, হাট-বাজারে ঘুরে বেড়ায়। এদের কাছে আছে ধারালো ছুরি এবং বিষাক্ত গ্যাস, যা ১০-১৫ হাত দূর থেকে স্প্রে করলেই মানুষ অজ্ঞান হয়ে যায়। তখন তারা মাথা কেটে নিয়ে যায়। তাদের লক্ষ্য মাথা কাটা। ইতোমধ্যে খুলনায় অনেক মাথা কেটে নেয়া হয়েছে; তাই সাবধান থাকবেন, বাসার সবাইকে সতর্ক করে দেবেন এবং বাসায় কোনো ভিক্ষুক এলে সাবধানে থাকবেন। অপরিচিত কেউ এলে দরজা খুলবেন না।’(সাবধান বাঙালি), বেশি বেশি ফরোয়ার্ড করুন এবং অন্যের জীবন রক্ষা করুন।

এফএইচ/এএইচ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]