রোহিঙ্গা নারী পাচার: দুই আসামির জামিন আবেদন হাইকোর্টে খারিজ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:১৬ পিএম, ১৩ অক্টোবর ২০২১
ফাইল ছবি

রোহিঙ্গা নারীদের অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে মালয়েশিয়া পাঠানোর কথা বলে পাচার চেষ্টার অভিযোগে করা মামলায় সঙ্গবদ্ধ মানবপাচারকারী দলের সদস্য কবির আহমেদ ও মো. ইমরানকে জামিন দেননি হাইকোর্ট। তাদের জামিন আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ (নটপ্রেস রিজেক্ট) করেছেন আদালত।

আদেশের বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক।

এই আসামিদের জামিন সংক্রান্ত আবেদন শুনানি নিয়ে বুধবার (১৩ অক্টোবর) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. রেজাউল হক ও বিচারপতি মো. বদরুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে আজ আবেদনকারী পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী সুবির নন্দী দাস। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক, সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল আন্না খানম কলি ও মো. সাইফুর রহমান সিদ্দিকী সাইফ।

মামলার এজাহারে বলা হয়, আসামিরা কক্সবাজার রোহিঙ্গা শিবির থেকে ১৩ জন রোহিঙ্গা তরুণীর পরিবেশগত অসহায়ত্বকে পুঁজি করে তাদের উন্নত জীবনের মিথ্যা আশ্বাস দেন। এরপর তাদের রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে এনে ভুয়া নাম, পরিচয় ও ঠিকানা ব্যবহার করে পাসপোর্ট তৈরি করে মালয়েশিয়া পাঠানোর কথা বলে ঢাকার বাড্ডায় একটি বাসায় রাখেন।

সেখানে র‍্যাব-৩ অভিযান চালিয়ে এই দুই আসামিকে গ্রেফতার করে ভুক্তভোগীদের উদ্ধার করে। পরে এ ঘটনায় গত বছরের ২৭ জানুয়ারি র‍্যাবের ডিএডি (নায়েব সুবেদার) মো. রমজান আলী বাদী হয়ে বাড্ডা থানায় মামলা দায়ের করেন। আসামি কবির আহমেদ ও মো. ইমরানের বাড়ি কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায়।

মামলাটি ঢাকার মানবপাচার অপরাধ দমন ট্রাইবুনালে বিচারাধীন। এর আগে গত ৬ সেপ্টেম্বর একই আদালত তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছিলেন। এরপর তারা হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন।

এফএইচ/এমআরআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]