সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে বিএনপিপন্থি আইনজীবীদের বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৫ পিএম, ২৩ মে ২০২২

অডিও শুনুন

বিএনপি ও সরকারপন্থি আইনজীবীদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনায় জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম সুপ্রিম কোর্ট ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক গাজী মো. কামরুল ইসলাম সজলসহ ছয় আইনজীবীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদ ও মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা।

সোমবার (২৩ মে) দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ভবনের সামনের চত্বরে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এতে বিএনপিপন্থি শতাধিক আইনজীবী অংশ নিয়ে সজলসহ ছয় আইনজীবীর বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবি জানান।

সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সভাপতি ও জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের যুগ্ম আহ্বায়ক এজে মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ফোরামের সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট মো. ফজলুর রহমান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বারের সাবেক সভাপতি মাসুদ আহমেদ তালুকদার, বাংলাদেশ ল'ইয়ার্স কাউন্সিলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ জসীম উদ্দীন সরকার, সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সম্পাদক ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদল, ব্যারিস্টার এএম মাহবুবউদ্দিন খোকন, আইনজীবী ফোরাম সুপ্রিম কোর্ট ইউনিটের সভাপতি আবদুল জব্বার ভূইয়া, আইনজীবী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, আব্দুল মতিন, মো. আখতারুজ্জামান, ব্যারিস্টার রাগীব রউফ চৌধুরী ও মির্জা আল মাহমুদ প্রমুখ। বিক্ষোভ সমাবেশ সঞ্চালনা করেন আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলী।

আইনজীবী ফোরামের সদস্য সচিব ফজলুর রহমান বলেন, গাজী কামরুল ইসলাম সজলসহ যে ছয়জন আইনজীবীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে তা অবিলম্বে প্রত্যাহার করার দাবি জানাচ্ছি। আমরা যে সুপ্রিম কোর্টে ওকালতি করি মানুষ আমাদের সম্মান করে। কিন্তু আমাদের যে মর্যাদাহানি হয়েছে তা ফিরিয়ে আনতে হবে। আমাদের আন্দোলন-সংগ্রাম চলবে, একদিনের জন্যও থামবে না।

সভাপতির বক্তব্যে এ জে মোহাম্মদ আলী বলেন, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে আওয়ামীপন্থি আইনজীবীরা যে জোর করে সম্পাদক পদ কেড়ে নিয়েছে তা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য বিএনপির ওপর দোষ চাপিয়ে মিথ্যা মামলা করেছে। আমরা চাই এ মামলা প্রত্যাহার করা হোক।

এসময় তিনি আরও বলেন, আগামী ২৫ মে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল নির্বাচনে জাতীয়তাবাদী ঐক্য প্যানেলের প্রার্থীদের বিজয়ী করতে আপনারা সবাই উপস্থিত থাকবেন। সুষ্ঠুভাবে বার কাউন্সিলের ভোট সমাপ্ত করার জন্য আপনারা উপস্থিত থাকবেন। আমাদের ভোট ছিনিয়ে নেয়া সহজ হবে না। এটা মগের মুল্লুক না। আমরা এটা মগের মুল্লুক বানাতে দেবো না।

গত ১৮ মে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক পদ নিয়ে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সমর্থিত আইনজীবীদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বিএনপিপন্থি ছয় আইনজীবীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে।

বুধবার (১৮ মে) শাহবাগ থানায় সুপ্রিম কোর্ট বারের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. রবিউল হাসান এই মামলা করেন। দুই পক্ষের মারামারিতে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ সমর্থিত অ্যাডভোকেট এনআই প্রামাণিক গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এর বিচার চেয়ে এ মামলা করা হয়।

মামলার আসামিরা হলেন- বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সুপ্রিম কোর্ট শাখার সাধারণ সম্পাদক ও বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট গাজী মো. কামরুল ইসলাম সজল, বিশেষ সম্পাদক নূরে আলম সিদ্দিকী সোহাগ, সহ-দপ্তর সম্পাদক কাইয়ুম, সহ-সাধারণ সম্পাদক রাসেল আহমেদ, সুপ্রিম কোর্ট বারের কার্যনির্বাহী সদস্য ও আইনজীবী ফোরামের সদস্য কামরুল ইসলাম এবং তথ্য ও গবেষণাবিষয়ক সম্পাদক সাগর হোসেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, পূর্ব পরিকলনা অনুসারে বুধবার (১৮ মে) সমিতির প্রধান ফটকে প্রতিবাদ সভার নামে বেআইনি সমাবেশ করেন বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা। ওই সমাবেশ থেকে গাজী কামরুল ইসলামের নেতৃত্বে বেশ কিছু আইনজীবী ও বহিরাগত ব্যক্তি (আনুমানিক ৫০/৬০জন) দেশীয় অস্ত্রসহ ওপরে উঠে সম্পাদকের কক্ষের সামনে আসেন। তারা সরাসরি সম্পাদকের কক্ষে এবং জানালায় হামলা করেন। তখন সম্পাদক আব্দুন নুর দুলাল কক্ষে তার চেয়ারে বসা ছিলেন। এ সময় আইনজীবী নুরে আলম সিদ্দিকী নেমপপ্লেট খুলে ফেলেন। এছাড়া তারা আওয়াপন্থি আইনজীবী মো. নজরুল ইসলাম প্রামাণিককে আঘাত করেন।

সুপ্রিম কোর্ট বারের সম্পাদকের কক্ষের দরজা-জানালায় হামলা এবং বেশ কয়েকজন আইনজীবীকে মারধরের ঘটনায় এ মামলা করা হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।

সূত্র জানায়, সুপ্রিম কোর্ট বারের সম্পাদক পদ দখলের অভিযোগ তুলে বুধবার বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভা করেন বিএনপি সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের নেতা-কর্মীরা। একপর্যায়ে বারের দ্বিতীয় তলায় বিএনপি ও আওয়ামী লীগ সমর্থিত আইনজীবীদের মধ্যে মারামারি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ সময় আইনজীবী মো. নজরুল ইসলাম (এনআই) প্রামাণিক আহত হন।

দখলের প্রতিবাদে বিএনপি সমর্থক আইনজীবীদের বিক্ষোভের সময় সম্পাদকের কক্ষের সামনে সরকার সমর্থক আইনজীবীদের সাথে ব্যাপক হাতাহাতি, কিল-ঘুষির ও হট্টগোলের ঘটনা ঘটেছে। দুই পক্ষে আইনজীবীদের সাথে হাতাহাতি-ধস্তাধস্তি হয়। এসময় একজন আইনজীবী আহত হন।

এ ঘটনায় পরের দিন ১৯ মে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম সুপ্রিম কোর্ট ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক গাজী কামরুল ইসলাম সজলসহ ছয়জন আইনজীবীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়।

এফএইচ/এমকেআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]