যে ৫ কাজ ভালোবাসাকে গভীর করে

লাইফস্টাইল ডেস্ক
লাইফস্টাইল ডেস্ক লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:১৮ পিএম, ১১ জানুয়ারি ২০২০

নতুন বছরে কত কী করার পরিকল্পনা থাকে আমাদের! নিয়ম মেনে খাওয়া, বেড়াতে যাওয়া, ঝুলে থাকা কাজগুলো দ্রুত শেষ করা- এমন হাজারটা বিষয়। কিন্তু যে মানুষটির সঙ্গে পাশাপাশি ছিলাম, আছি- তার সঙ্গে সম্পর্কটিকে আরও মজবুত রাখার জন্য কতটুকু করছি? যে আছে, সে থেকেই যাবে এমন একটা ধারণা আমাদের প্রায় প্রত্যেকের। কিন্তু অন্যান্য বিষয়ের মতো যত্ন না করলে সম্পর্কও তার সৌন্দর্য হারাতে থাকে। তাই নতুন বছরে সম্পর্কটিকেও আরেকবার ঝালিয়ে নিন। মেনে চলুন এই পাঁচ বিষয়-

Valobasa-2.jpg

একদমই তর্ক করেন না?
সম্পর্ক ভালো রাখতে গিয়ে তর্ক এড়িয়ে চলেন একেবারেই? অবশ্য অনেকেই এমন ধারণা লালন করেন যে, কথা কাটাকাটি বা তর্ক করা মানেই সম্পর্কে অবনতি হওয়া। এ ধারণা ঠিক নয়। কারণ দু’জন মানুষ কখনোই সব বিষয়ে একমত হবেন না। সেক্ষেত্রে কথা কাটাকাটি হওয়া খারাপ বিষয় নয়। তাতে করে একে অন্যের দৃষ্টিভঙ্গি সম্পর্কে আরও গভীরভাবে বুঝতে পারা যায়। তাতে সম্পর্কটি আরও সুন্দর করার সুযোগ মিলবে।

Valobasa-2.jpg

ঝগড়া হলেও দ্রুত মিটিয়ে ফেলুন
ঝগড়া হতেই পারে। তার মানে এই নয় যে আপনি দীর্ঘদিন ধরে তার রেশ ধরে রাখবেন। এমনকী গোপনে রাগ, দুঃখ, ক্ষোভও পুষে রাখবেন না। তাতে মন তো খারাপ থাকবেই, সেইসঙ্গে খারাপ হবে মনও। তাই ঝগড়ার মাত্রা যতই তীব্র হোক না কেন, চেষ্টা করুন তা দ্রুত মিটিয়ে ফেলতে। মনে রাখবেন, যেকোনো সমস্যাকে প্রশ্রয় দিলে তা শুধু বাড়তেই থাকবে।

Valobasa-2.jpg

ক্ষমা চাওয়ার অভ্যাস করুন
প্রয়োজনে ক্ষমা চাওয়া এবং ক্ষমা করতে জানা একটি সম্পর্কের ক্ষেত্রে সবচেয়ে জরুরি। রেগে গেলে অনেকে অনেক সময় ভুলভাল বকে থাকেন। রাগ নেমে গেলে সেসবের জন্য ক্ষমা চেয়ে নিন। এমনকী ইচ্ছাকৃত বা অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্যও ক্ষমা চান। ক্ষমা চাইতে জানার মানে কিন্তু আপনার ছোটত্ব নয়, বড় মনেরই প্রকাশ।

Valobasa-2.jpg

নিজেকে জানান দিন
তার সম্পর্কে জানতে আপনার যতটা ইচ্ছা, আপনাকে জানতেও তার তেমনই আগ্রহ থাকতে পারে। তাই নিজেকে লুকিয়ে না রেখে জানান দিন। নিজেকে প্রকাশ করুন, তিনি যতটা চান। তার প্রতি আপনার অনুভব, আকাঙ্ক্ষার কথাও জানান। কখনো মুখে, কখনো লিখে, কখনো চোখের ভাষায় জানিয়ে দিন কতটুকু ভালোবাসেন, কতটা আপনি তার!

Valobasa-2.jpg

বেড়িয়ে আসুন
এটি খুব স্বাভাবিক একটি বিষয় যে একই জায়গায় দীর্ঘদিন থাকলে বিরক্তি আসবেই। তখন তার প্রভাব পড়ে আপনার পাশের মানুষটির উপরেই। তাই দু’জনে মিলে বেরিয়ে পড়ুন যখনই সময় হয়। বেড়ানো মানেই যে দূরে যেতে হবে এমন নয়। ঘুরে আসতে পারেন কাছাকাছি কোথাও থেকে। নতুন পরিবেশের প্রভাব সম্পর্কেও আনবে নতুনত্ব।

এইচএন/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]