নখের সাজগোজ

লাইফস্টাইল ডেস্ক
লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৫৯ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭
নখের সাজগোজ

চোখের সাজ কাজল, ঠোঁটের সাজ যদি লিপস্টিক হয় তবে নখের সাজ হচ্ছে নেইলপালিশ। নখের সাজে ইদানিং নেইলপালিশের পাশাপাশি বিভিন্ন অনুষঙ্গ যোগ হচ্ছে। যেমন নেইল আর্ট, স্টোন ইত্যাদি। তবে নেইলপালিশের জনপ্রিয়তা বরাবরই বেশি। নানা রঙে নিজের নখগুলো সাজিয়ে নিতে নেইলপালিশের ওপর নির্ভর করে ফ্যাশনপ্রেমী নারীরা।

চট-জলদি নখ সাজাতে নেইল পলিশের জুড়ি নেই। পোশাকের রঙের সাথে মেলাতে কিংবা পছন্দসই রঙের নেইল পলিশ আপনার নখকে করে তুলবে চকচকে ও আকর্ষণীয়।

নেইল পলিশ লাগানোর সময় প্রয়োজনীয় কিছু জিনিস যেমন কটনবল, রিমুভার, টাওয়েল, নিউজ পেপার ও কিয়ার নেইল পলিশ আগেই হাতের কাছে রাখুন।

নখের যত্নে কিছু নিয়ম মানা জরুরি সেই সাথে করতে হবে নিয়মিত মেনিকিউর এবং পেডিকিউর। নেইল পলিশ লাগানোর আগে ভালো করে পুরনো নেইল পলিশ তুলে ফেলতে হবে এবং অবশ্যই নেইল রিমুভার তুলোতে ভিজিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। নখ সুস্থ ও সুন্দর রাখার ক্ষেত্রে কিছুদিন পর পর ম্যানিকিউর প্যাডিকিউর করা জরুরি।

নেইল পলিশ ব্যবহার করার সময় তা ঢেকে রেখে ব্যবহার করুন। ঢাকনা খোলা রাখলে নেইল পলিশ শুকিয়ে যাবে। নেইল পলিশ শুকিয়ে গেলে তার মধ্যে গ্লিসারিন অথবা রিমুভার ঢেলে ভালোভাবে ঝাঁকিয়ে নিন। দেখবেন আবার আগের মতো ব্যবহার করতে পারছেন।

নেইল পলিশ বেশি ঘন করে না লাগানোই ভালো। নখে পেইন্ট বা অন্য কিছু লাগানোর পর খুব পাতলা করে নেইল পলিশ লাগাবেন। নেইল পলিশ লাগানোর আগে তা কিছুক্ষণ ঝাঁকিয়ে নিন।

নখের স্বাভাবিকতা ধরে রেখে অর্থাৎ প্রাকৃতিক রঙটাকে একটু উজ্জ্বল করাই হলো ফেঞ্চ ম্যানিকিউর। এক্ষেত্রে নখের সামনের দিকে সাদা বা অন্য কোনো কালার লাগানো হয়, নখের নিয়মিত যত্নে ফ্রেঞ্চ ম্যানিকিউর বেশ জনপ্রিয়।

নেইল রিমুভর দিয়ে খুব সহজেই নেইল পলিশ তোলা যায় ফলে অন্য কিছু দিয়ে ঘষাঘষির হাত থেকে নখ থাকে সুরক্ষিত। তুলা বা টিস্যুতে রিমুভার লাগিয়ে তা নখে হালকা চাপ দিয়ে তুলুন। রিমুভার শিশুদের নাগালের বাইরে রাখুন। রিমুভার লাগানো শেষ হলে হাত ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন।

দাঁত দিয়ে নখ কাটবেন না। নেইল কাটার ব্যবহার করুন। আর প্রতিবার নখ কাটার পর নখ ফাইল করতে ভুলবেন না। সবসময় নেইল পলিশ লাগাবেন না। তাতে নখের উজ্জ্বলতা স্পষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ভেজা হাতে গ্লাভস পরবেন না। এতে নখের ক্ষতি হয়।

সস্তা নেইল পলিশ এড়িয়ে চলুন। প্রতিবার খাওয়ার শেষে নখের কোথাও লেগে থাকা খাবার ভালোভাবে হ্যান্ড ওয়াশ দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ঘুমানোর আগে এবং গোসলের পর হাত, পায়ে ভ্যাসলিন লাগালে উপকার পাওয়া যাবে।

এইচএন/জেআইএম