দইয়ের সঙ্গে যেসব খাবার না খাওয়াই ভালো

লাইফস্টাইল ডেস্ক
লাইফস্টাইল ডেস্ক লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:০২ পিএম, ১৭ মে ২০২১

আনারস খেয়ে দুধ পান করলে না-কি পেটে বিষক্রিয়ার সৃষ্টি হয়! বিষয়টি আসলে তেমন নয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, দুধের মধ্যে যেমন এক ফোঁটা লেবুর রস দিলে তা ফেটে যায়। টকজাতীয় খাবার খাওয়ার পর দুধ পান করলে হতে পারে বদহজম, পেট ফাঁপা, পেট খারাপ। তবে বিষক্রিয়ার কোনো আশঙ্কা নেই।

ঠিক তেমনই দই খাওয়ার পর এমন কিছু খাবার আছে, যেগুলো খাওয়া উচিত নয়। গরমে দই কিন্তু শরীর ঠান্ডা রাখার অন্যতম এক খাবার। বিশেষজ্ঞদের মতে, গরমে প্রতিদিনের ডায়েটে এক বাটি টকদই খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী।

ক্যালসিয়াম, ভিটামিন বি-২, ভিটামিন বি-১২, ম্যাগনেসিয়াম এবং পটাসিয়ামে ভরপুর থাকে দই। গরমে দই খেলে শুধু শরীর ঠান্ডাই থাকে না, পাশাপাশি তাড়াতাড়ি খাবারও হজম হয়। প্রতিদিন এক বাটি দই খেলে শরীর ডিটক্স হয়।

jagonews24

তবে এমন ৫টি খাবার আছে, যা দইয়ের সঙ্গে খেতে নেই। কারণ দইয়ের সঙ্গে এই খাবারগুলো খেলে টক্সিন সৃষ্টি হয় এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল হয়ে পড়ে। এই করোনাকালে সুস্থ থাকার মূলমন্ত্র হলো শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো। তাই যেকোনো খাবার খাওয়া আগে তা শরীরের জন্য কতখানি উপকারী তা জেনে তবেই খেতে হবে-

দই ও পেঁয়াজ: অনেকেই টকদই, শশার সঙ্গে পেঁয়াজ মিশিয়ে রায়তা খেতে পছন্দ করেন। তবে জানেন কি? দুধ ও পেঁয়াজ একসঙ্গে খেলে অ্যাসিডিটি বেড়ে যায় এমনকি বমি পর্যন্ত হতে পারে। পাশাপাশি হজমেও সমস্যা দেখা দেয়।

jagonews24

দই শরীরকে ঠান্ডা রাখে আর পেঁয়াজ শরীরের তাপ বাড়ায়। তাই এই দুই খাবার একসঙ্গে না খাওয়াই ভালো। ঠান্ডা এবং গরমের সংমিশ্রণ শরীরের গিয়ে ত্বকে র্যাশ, একজিমা, সোরিয়াসিস এবং অ্যালার্জির কারণ হতে পারে। এর সঙ্গে গ্যাস, অ্যাসিডিটি এবং বমিভাবের মতো সমস্যাও শুরু হয়ে যতে পারে।

আম ও দই: টকদইয়ের সঙ্গে মিশিয়ে অনেকেই আম খেয়ে থাকেন। তবে ভুলেও একসঙ্গে আম ও দই খাবেন না। এর ফলে শরীরে টক্সিন সৃষ্টি হয়। কাটা আমের সঙ্গে এক বাটি দই খেতে ভালো লাগলেও তা শরীরের জন্য ভালো নয়।

মাছ ও দই: দইয়ের সঙ্গে মাছ খাওয়া উচিত নয়। এর ফলে শরীরে খারাপ প্রভাব পড়ে। যদিও অনেকে একসঙ্গে দই এবং মাছ রান্না করে খেয়ে থাকেন। আপনি যদি মাছের সঙ্গে দই খান তাহলে বদহজমসহ পেটের সমস্যায় ভুগতে পারেন।

jagonews24

ভাজাপোড়া খাবার: পরোটা, পুরিসহ বিভিন্ন ভাজাপোড়ার সঙ্গে অনেকেই দই চাটনি হিসেবে খেয়ে থাকেন। এর ফলে হজমে সমস্যা দেখা দিতে পারে। দইয়ের সঙ্গে তেল-ভাজা খাবারের সংমিশ্রণ হজমশক্তি কমিয়ে দেয়।

সূত্র: ইন্ডিয়া নিউজ রিপাবলিক

জেএমএস/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]