রাজন ভট্টাচার্যের দীর্ঘ কবিতা

সাহিত্য ডেস্ক সাহিত্য ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:০০ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০

আলো আসবেই

অন্ধকার কেটে যাবে
সরব হবে জনপদ
কর্মমুখর হবে কারখানা
জমে উঠবে পাড়া-মহল্লা থেকে শহরের গলি, রাজপথ।

মাঠেজুড়ে দেখা মিলবে পশুর পাল
রাখালের বাঁশির মুগ্ধতায় মন ছুটে যাবে... বেলা অবেলা।

মিছিল আর স্লোগানে মুখরিত হবে ক্যাম্পাস
পার্টি অফিসজুড়ে বাড়বে কোলাহল
টিএসসিতে বসার জায়গা পেতে অপেক্ষা করতে হবে দীর্ঘ সময়।

রবীন্দ্রসরোবর থেকে আসবে নাচের আওয়াজ,
শিল্পকলায় জমবে নাটক
গানের আসর শেষে বেইলি রোডে হবে চাঁদ দেখার আয়োজন
বেঙ্গলের গান উৎসবে আমি ফের হবো রাতজাগা পাখি...

স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য হাততালি দেই
প্রার্থনা করি...
তোমার ভালো থেকো মহাকাল
আশীর্বাদ রইলো মন থেকে।

কোভিড-১৯ থাবায় গোটা বিশ্ব আজ এক অন্ধকার-অমাবশ্যায় ঢাকতে চলেছে
অজানা ভয়-আতঙ্ক আর অবিশ্বাস জেঁকে বসেছে সবখানে...
তাতে কি... করারই বা কি আছে...
সাহস আছে, আছে মনোবল
প্রতিরোধে; জয় অনিবার্য।

তবুও
বিশ্বাস করি
জেগে উঠবে মানবতা...

সন্তানকে স্কুল থেকে আনতে তপ্ত রোদে ছুটে যাবেন বাবা
হাসপাতালে শয্যাশায়ী মাকে বুকে আগলে রেখে
বাঁচানোর নিরন্তর চেষ্টা থাকবে সন্তানের...
খবরের খোঁজে মাঠ-ঘাট চষে বেড়াবেন সংবাদকর্মীরা।

ঘর ভরা সোনালি ধানের খুশিতে পান মুখে হাসবেন কৃষক
বৈঠা হাতে প্রাণ খুলে নদীতে গান ধরবেন মাঝি
খেয়া জাল ভড়ে উঠবে মাছ।

বিশুদ্ধ গন্ধ ছড়াবে প্রকৃতি
ভ্রমর আর ফুলের খেলায় হাসবে শিশু
শ্রমিকের ঘামে ভিজে উঠবে জামা।

প্রিয়তমার জন্য শাড়ি আনতে গঞ্জে ছুটে যাওয়া দেখে হেসে কুটিকুটি হবে নিন্দুকের দল।

হাতে হাত রেখে বন্ধুর কফির গ্লাসে চুমুক পড়বে বারবার।

আবির রঙের টিপ-কাজল-নতুন টাকার নোট-আংটি আর আলতা দেখে খুশিতে রাতভর প্রেম জমে উঠবে সদ্য বিবাহিতা তরুণীর।

আমরা জয় করবো হিংস্র দানবের থাবা
মুক্ত হব...
বিশ্বাস করি আলো আসবেই
ঘুচে যাবে সব অন্ধকার
সময়ের অপেক্ষা মাত্র...

এসইউ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]