মুক্তি পেলেন মাহমুদুর রহমান


প্রকাশিত: ০৭:১৪ এএম, ২৩ নভেম্বর ২০১৬

দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমান জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। তিনি বুধবার বেলা ১টার দিকে কাশিমপুর কারাগার-২ থেকে মুক্তি পান।

কাশিমপুর কারাগার-২-এর জেলার নাসির আহমেদ জানান, আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের জামিনের কাগজপত্র কারাগারে পৌঁছানোর পর তা যাচাই-বাছাই শেষে বেলা ১টার দিকে তাকে কারাগার থেকে মুক্তি দেয়া হয়।
 
এ সময় কারা ফটকে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এজেএম জাহিদ হোসেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ফরহাদ হালিম ডোনার, ইঞ্জিনিয়ার আনহ আক্তার, কলামিস্ট ফরহাদ মাজহার, বিএফইউজের সাবেক মহাসচিব রুহুল আমিন গাজী, বর্তমান মহাসচিব এম আব্দুল্লাহ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (একাংশ) সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সাবেক সভাপতি এসএম জসিম, বিএনপির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার রিয়াজুল ইসলাম রিজু, শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক ওবায়দুর রহমান, সহ-প্রচার সম্পাদক কৃষিবিদ শামীমুর রহমান শামীম, সহ-বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আফজাল হোসেন সবুজ, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য কালিয়াকৈর পৌর মেয়র মজিবুর রহমান, ডা. মাজহারুল আলম, গাজীপুর পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি হালিমুজ্জামান ননি ও ছাত্রদল কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল হুদা নুরুসহ বিএনপি, অঙ্গ সংগঠন ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতারা।
 
প্রসঙ্গত, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম স্কাইপে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের এক বিচারকের কথিত কথোপকথন পত্রিকায় প্রকাশের অভিযোগে ২০১২ সালের ১৩ ডিসেম্বর ঢাকার সিএমএম আদালতে মাহমুদুর রহমান ও পত্রিকাটির প্রকাশক মো. হাসমত আলীর বিরুদ্ধে এ মামলা করা হয়।

২০১৩ সালের ১১ এপ্রিল এই মামলায় মাহমুদুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়। এরপর থেকে তিনি কারাগারে ছিলেন। তার বিরুদ্ধে প্রায় ৭০টি মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে।

আমিনুল ইসলাম/এফএ/এনএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]