বন্ধ হয়ে গেল দৈনিক সকালের খবর

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১২:৩৭ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ০১:৪০ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭

বন্ধ হয়ে গেল দৈনিক সকালের খবর। ছয় বছর পর বৃহস্পতিবার বিকেলে আনুষ্ঠানিকভাবে র‌্যাংগস গ্রুপের মালিকানাধীন পত্রিকাটি বন্ধের ঘোষণা দেন কর্তৃপক্ষ।

সকালের খবর’র ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক কমলেশ রায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় জাগো নিউজকে এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, আপাতত পত্রিকাটির প্রিন্ট ভার্সন বন্ধ থাকবে। তবে অনলাইন চালু থাকবে। র‌্যাংগস গ্রুপের প্রতিনিধিরা তেজগাঁওয়ের কার্যালয়ে এসে পত্রিকাটি বন্ধের ঘোষণা দেন।

কমলেশ রায় আরও বলেন, ওয়েজ বোর্ডের নিয়ম-কানুন মেনে সংবাদকর্মীদের দেনা-পাওনা মিটিয়ে দেয়া হবে।

পত্রিকায় কর্মরত এক সাংবাদিক বলেন, আজ (বৃহস্পতিবার) বিকালে মালিকপক্ষ পত্রিকাটি বন্ধ ঘোষণা করেন। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, শিগগিরই সাংবাদিক-কর্মচারীদের সমুদয় পাওনাদি পরিশোধ করা হবে। কিন্তু পত্রিকাটি বন্ধের ঘোষণায় দুই শতাধিক সাংবাদিক-কর্মচারী বেকার হয়ে পড়লেন। তাদের অবস্থা কী হবে? এখন কোথায় চাকরি পাবেন। সবার ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে গেল।

প্রসঙ্গত, ২০১১ সালের মে মাসে র‌্যাংগস গ্রুপের অর্থায়নে রোমো রউফ চৌধুরীর প্রকাশনায় নতুন আঙ্গিকে পত্রিকাটি বের হয়।

পত্রিকাটি বন্ধের ঘোষণায় সাবেক ও বর্তমান অনেক কর্মী, শুভাকাঙ্ক্ষী মর্মাহত হয়েছেন। ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে পত্রিকাটির সাবেক এক কর্মী লিখেছেন, `খুবই খারাপ লাগছে, আমার প্রিয় সকালের খবর আজ থেকে বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। পত্রিকাটিতে প্রায় সাত বছর কাজ করার সুযোগ পেয়েছি। কর্মজীবনে যতগুলো হাউসে কাজ করেছি, সবচেয়ে ভালো লেগেছে আমার সকালের খবর’র কর্মকাল। পত্রিকাটি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বেকার হলেন আমার কিছু সাবেক সহকর্মী। আশা করছি খুব শিগগিরই তারা নতুন কর্মস্থল খুঁজে পাবেন। সবার জন্য শুভ কামনা রইল।'

এমইউ/এসআই/এসএইচএস/এমএআর/পিআর/আইআই

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]