ভিশন ওয়াল ডিজিটাল বাংলাদেশের দৃশ্যমান সংকলন

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:১৫ পিএম, ০৮ জানুয়ারি ২০১৮

বাংলাদেশকে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে বঙ্গবন্ধুর সুখী ও উন্নত দেশে পরিণত করতে কর্মকর্তাদের উদ্বুদ্ধ ও উজ্জীবিত করার লক্ষ্যে টেরাকোটায় নির্মিত ভিশন ওয়াল ‘আমার বাংলা’ বিসিএস প্রশাসন একাডেমি প্রাঙ্গণে স্থাপিত হয়েছে। গত ডিসেম্বরে এর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের বিভিন্ন বিষয় ফুটিয়ে তোলা হয়েছে টেরাকোটায় নির্মিত এ ভিশন ওয়ালে। এতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ স্থান পেয়েছে। জাতির জনকের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার ক্ষেত্রে বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড বাস্তবায়নের ফলে ভিশন ২০২১ ও ২০৪১ অর্জন করার ক্ষেত্রে কিভাবে দেশ ও জাতি এগিয়ে যাচ্ছে, এখানে তা বিমূর্ত বাস্তবতায় ফুটে উঠেছে।

পদ্মা নদীর উপর নিজস্ব অর্থায়নে নির্মাণাধীন পদ্মা সেতু, ঢাকার যানজট নিরসনের জন্য গৃহীত মেগা প্রজেক্ট মেট্রোরেলসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড শিল্পের মাধ্যমে তুলে ধরার প্রয়াস লক্ষ্য করা যায় এ ভিশন ওয়ালে।

papri2

এছাড়া, ডিজিটাল বাংলাদেশ এবং ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়নের মাধ্যমে উন্নত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় লক্ষ্য করা যায় এ চিত্রকর্মের মাঝে। বর্তমান সরকারের অগ্রাধিকার প্রকল্প রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্প, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট প্রকল্পসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রমকে বিমূর্ত বাস্তবতায় ফুটিয়ে তোলা হয়েছে টেরাকোটার এ ভিশন ওয়ালে।

সামগ্রিকভাবে সুখী, সমৃদ্ধ, উন্নত ও ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে বর্তমান সরকারের গৃহীত সকল প্রকল্পের এক দৃশ্যমান সংকলন শিল্পীর হাতের ছোঁয়ায় টেরাকোটায় নির্মিত এ চিত্রকর্ম। এটি জাতি, ধর্ম, বর্ণ, বয়স নির্বিশেষে সকলকে উদ্বুদ্ধ করবে দেশ ও জাতি গঠনের দীপ্ত শপথে এগিয়ে আসতে।

একাডেমিতে আগত সকল প্রশিক্ষণার্থী কর্মকর্তাকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশ গঠনে আত্মনিয়োগ করতে উজ্জীবিত করবে এ ভিশন ওয়াল। এছাড়া একাডেমির লাইব্রেরিতে একটি আকর্ষণীয় ও মুক্তিযুদ্ধের তথ্য সম্বলিত ‘মুক্তিযুদ্ধ কর্নার’ ১৫ ডিসেম্বর ২০১৬ চালু করা হয়েছে।

যে কোনো কর্মদিবসে অফিস সময়কালে সকল দর্শনার্থীর জন্য এ ভিশন ওয়াল উন্মুক্ত।

জেপি/এসএইচএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :