শফী হুজুরকে অফিসিয়ালি স্বীকৃতি দিয়েছি : সংসদে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:০৫ পিএম, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৮:২৩ পিএম, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

দু’দিন আগে চট্টগ্রামে গিয়ে হেফাজতে ইসলামের আমীর আল্লামা শাহ আহমদ শফীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করার ব্যাখ্যা দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। বুধবার জাতীয় সংসদে দেয়া ব্যাখ্যায় তিনি বলেন, কওমি মাদরাসার বোর্ডের চেয়ারপারসন হিসেবে আমরা তাকে স্বীকৃতি দিয়েছি।

রোববার জাতীয় সংসদে জাসদের সংসদ সদস্য নাজমুল হক প্রধানের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী একথা বলেন। জাসদ এমপি জঙ্গিবাদের প্রতি ইঙ্গিত করে হেফাজতে ইসলামের আমীর শাহ আহমদ শফীর সঙ্গে চট্টগ্রামে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাক্ষাৎ নিয়ে সংসদে প্রশ্ন তুলে বলেন, এ সাক্ষাৎ কী শুধুই সাক্ষাৎ, নাকি ‘কী আশায় বাঁধি খেলাঘর বেদনার বালুচরে’!

জবাবে তিনি বলেন, তিনি (শাহ আহমদ শফী) আলেম সমাজের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয়। আলেম সমাজ তাকে অত্যন্ত সম্মান করেন। চট্টগ্রামে একটি অনুষ্ঠানে গিয়ে হুজুরের অসুস্থতার কথা শুনে তাকে দেখতে গিয়েছি। আমাদের প্রধানমন্ত্রী কওমি মাদরাসার সনদের স্বীকৃতি দিয়েছেন। তিনি কওমি মাদরাসা বোর্ডের চেয়ারপারসন। আমরা তাকে গণভবনে ডেকে অফিসিয়ালি স্বীকৃতি দিয়েছি। কওমি মাদরাসার স্বীকৃতি দিয়েছি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, শুধু আলেম সমাজ না, যারা মসজিদ, মাদরাসায় শিক্ষকতা করেন কিংবা মসজিদের ইমাম-মুয়াজ্জিন তাদের কাছেও অত্যন্ত সম্মানিত ব্যক্তি তিনি।

তিনি আরও বলেন, আমি মনে করি কওমি মাদরাসার লাখ লাখ ছাত্র-শিক্ষক যারা ধর্মের জন্য পড়াশোনা করছেন, সময় দিয়েছেন তাদের জন্য আমাদের কিছু করা উচিত। সেটা আমাদের প্রধানমন্ত্রী উপলব্ধি করেছেন। তিনি কওমি মাদরাসার স্বীকৃতি দিয়েছেন। এজন্য সারা দেশের মানুষ প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

সব খালেদার পক্ষে হলে দেশ চলছে কীভাবে

বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির বৈঠকে খালেদা জিয়ার বক্তব্য নিয়ে সরকারি দলের আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইনের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, পুলিশ, সশস্ত্র বাহিনী বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পক্ষে হলে দেশ চলছে কীভাবে?

খালেদা জিয়া শনিবার দলের সভায় বলেছিলেন, বিএনপির কোনো ভয় নেই। বিএনপির সঙ্গে প্রশাসন-পুলিশ-সশস্ত্র বাহিনী আছে। এ দেশের জনগণ আছে। দেশের বাইরে যারা আছেন, তারা আছেন।

রোববার জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন খালেদার বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানতে চান। জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিচারক জানেন, কী রায় দেবেন। কিন্তু কেউ আইন নিজের হাতে তুলে নিলে, অস্থিতিশীল পরিস্থিতি বা ভাঙচুর করলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে।

খালেদার বহর থেকেই পুলিশের ওপর হামলা

আওয়ামী লীগের সংরক্ষিত সংসদ সদস্য ফজিলাতুননেসা ইন্দিরার এক সম্পূরক প্রশ্নের জাবাবে কামাল বলেন, গত ৩০ জানুয়ারি খালেদা জিয়ার গাড়ি বহরের সামনে থেকেই পুলিশের ওপর অতর্কিত হামলা করা হয়েছে। সেদিন তারা পুলিশের ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে পুলিশের দুটি রাইফেল ভেঙেছে, পুলিশের প্রিজন ভ্যান ভাঙচুর করেছে। ভিডিও ফুটেজ দেখে হামলাকারীদের শনাক্ত করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, যখন ঘটনাটি ঘটে ঠিক তখনই বিএনপি চেয়ারপারসন সেই রাস্তায় দিয়ে যাচ্ছিলেন। তার সামনের বহরে ঘটনাটি ঘটে। আমাদের পুলিশ অত্যন্ত ধৈর্যের সঙ্গে পরিস্থিতি মোকাবেলা করেছে।

এইচএস/আরআইপি