প্রবাসীদের স্মার্ট কার্ড দেয়ার উদ্যোগ ইসির

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৩১ পিএম, ১৩ জানুয়ারি ২০১৯
ফাইল ছবি

আবারও প্রবাসীদের ভোটার করার কাজ শুরু করছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। প্রথমে সিঙ্গাপুর প্রবাসীদের ভোটার করে তাদের স্মার্ট কার্ড দেয়া হবে। এজন্য আগামী মাসের মাঝামাঝি সময়ে একটি কারিগরি দল সিঙ্গাপুর যাচ্ছে। এরপর এপ্রিল থেকে পরীক্ষামূলকভাবে প্রবাসীদের ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে তাদের উন্নত মানের জাতীয় পরিচয়পত্র ‘স্মার্ট কার্ড’ দেয়া হবে।

সিঙ্গাপুরের পর সংযুক্ত আরব আমিরাত, কাতার, বাহরাইন, সৌদি আরবসহ অন্যান্য দেশে অবস্থানরত বাংলাদেশিদেরও জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়ার কর্মপরিকল্পনা নেয়া হবে। এরপর দ্বিতীয় ধাপে অন্য দেশগুগলোতে অবস্থানরত প্রবাসীদের ভোটার করা হবে।

ইসির জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগ সূত্রে জানা গেছে এ তথ্য।

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, অনেক আগে থেকে প্রবাসীদের ভোটার করার উদ্যোগ নিয়েছে ইসি। সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে সেই কার্যক্রমটি স্থগিত রেখেছিলাম। নির্বাচন শেষ হয়েছে, তাই প্রবাসীদের ভোটার করার কার্যক্রমটি এগিয়ে নেয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

ইসি সচিব বলেন, সিঙ্গাপুর আমাদের কাছের দেশ এবং লাখের বেশি প্রবাসী থাকেন। এজন্য ‘পাইলট প্রজেক্ট’ হিসেবে সিঙ্গাপুর প্রবাসীদের ভোটার করার নীতিগত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এর অংশ হিসেবে ইসির একটি টিম ফেব্রুয়ারির মধ্যভাগে সিঙ্গাপুরে যাবে। প্রতিনিধি দলটি ওখানে বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে কথা বলবেন। বিশেষ করে বাংলাদেশি যে অ্যাম্বাসি আছে, ফরেন মিনিস্ট্রি, লেবার উইং, ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্ট, বাংলাদেশি কমিউনিটির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় ও সেমিনার হবে। সংশ্লিষ্ট সবার মতামতের ওপর ভিত্তি করে কারিগরি দল প্রতিবেদন দেবে। এর ভিত্তিতে আশা করছি এপ্রিল থেকেই আমরা সিঙ্গাপুরের কার্যক্রম শুরু করতে পারব। এটি সফলভাবে শেষ হলে দ্বিতীয় দফায় দুবাইয়ে কার্যক্রম শুরু হবে।

জানা যায়, বিশ্বের ১৫৭টি দেশে প্রায় এক কোটির উপরে প্রবাসী বাংলাদেশি রয়েছেন। এর মধ্যে জনবহুল তিনটি দেশ অর্থাৎ সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও মালয়েশিয়ায় ভোটার করার পরিকল্পনা রয়েছে।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৮ সালে দেশের উচ্চ আদালত প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটাধিকার সংবিধান স্বীকৃত বলে ঘোষণা দেয়।এরপর ২০০৮ সালে প্রথমবারের মত ছবিসহ ভোটার তালিকা প্রণয়ন ও নাগরিকদের জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করে ড. এটিএম শামসুল হুদার কমিশন।

পাশাপাশি ড. হুদা কমিশন প্রবাসীদেরও ভোটার করার উদ্যোগ গ্রহণ করে। এর অংশ হিসেবে তখন দুই নির্বাচন কমিশনার মুহম্মদ ছহুল হোসাইন ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) এম সাখাওয়াত হোসেন বিদেশ সফর করেন। এরপর কেটে যায় আরও ১০ বছর।

পরে গত বছর কে এম নূরুল হুদা কমিশন প্রবাসীদের ভোটার করার উদ্যোগটি পুনরায় নেয়।

এইচএস/এসএইচএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]