জুলহাস-তনয় হত্যা : অন্যতম অভিযুক্ত গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:৪৬ এএম, ১৬ জানুয়ারি ২০১৯
সন্ত্রাসীদের হাতে নিহত দুই বন্ধু জুলহাস মান্নান ও মাহবুব তনয়

যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থার (ইউএসএআইডি) কর্মকর্তা জুলহাস মান্নান ও তার বন্ধু মাহবুব তনয় হত্যা মামলায় প্রধান অভিযুক্তদের একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর পার্শ্ববর্তী টঙ্গী এলাকা থেকে ডিএমপির কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের সদস্যরা তাকে গ্রেফতার করে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের এডিসি ওবায়দুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, আজ (বুধবার) বেলা সাড়ে ১১টায় ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে।

উল্লেখ্য, দেশজুড়ে ‘উগ্রপন্থিদের’ একের পর এক হত্যা-হামলার মধ্যে ২০১৬ সালের ২৫ এপ্রিল রাজধানীর কলাবাগানে লেক সার্কাস রোডের এক বাসায় ঢুকে ইউএসএইড কর্মকর্তা এবং সমকামী অধিকারকর্মী জুলহাস মান্নান ও তার বন্ধু থিয়েটারকর্মী মাহবুব তনয়কে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

জুলহাস-তনয়কে হত্যার পর খুনিরা পালানোর সময় ওই বাড়ির দারোয়ান পারভেজ মোল্লাও তাদের হামলার শিকার হন।

ওই সময় একজনের কাছ থেকে একটি ব্যাগ ছিনিয়ে রাখেন কলাবাগান এলাকায় নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা এএসআই মমতাজ। পরে সেখানে একটি পিস্তল, একটি দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র, গুলি ও মোবাইল ফোন পাওয়া যায়।

ঘটনার রাতেই জুলহাসের ভাই মিনহাজ মান্নানের পক্ষ থেকে অজ্ঞাতপরিচয় পাঁচ-ছয়জনকে আসামি করে কলাবাগান থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়।

এএসআই মমতাজের ওপর হামলা এবং অস্ত্র পাওয়ার ঘটনায় অপর মামলাটি করেন কলাবাগান থানার এসআই শমীম আহমেদ।

বর্তমান শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির খালাত ভাই জুলহাস (৩৫) বাংলাদেশে নিযুক্ত তৎকালীন মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান ডব্লিউ মজিনার প্রটোকল কর্মকর্তা ছিলেন। হত্যাকাণ্ডের আগে সমকামীদের অধিকার প্রতিষ্ঠার সাময়িকী ‘রূপবান’ সম্পাদনার পাশাপাশি জুলহাস উন্নয়ন সংস্থা ইউএসএইডে কাজ করতেন।

জুলহাসের বন্ধু নিহত মাহবুব রাব্বী তনয় (২৬) নাট্য সংগঠন লোকনাট্য দলের কর্মী ছিলেন। শিশু সংগঠন পিপলস থিয়েটারে শিশু নাট্য প্রশিক্ষক হিসেবেও কাজ করতেন তিনি।

এর আগে এ মামলায় শরীফুল ইসলাম কেরামত ও রাশিদুন্নবী ভূইয়া টিপু নামের দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।

জেইউ/এমএমজেড/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :