০১৫৩৭-৭০৭০৭০ নম্বরে অভিযোগ জানানো যাবে ধর্ম প্রতিমন্ত্রীকে

মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল
মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:০২ পিএম, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

০১৫৩৭-৭০৭০৭০। রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল অপারেটর টেলিটকের একটি নম্বর। এ নম্বরটিতে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আবদুল্লাহকে সার্বক্ষণিক পাওয়া যাবে। সাধারণ জনগণের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করার জন্য তিনি এ নম্বর নিয়েছেন। হোয়াটস অ্যাপের মাধ্যমে ধর্ম মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত যেকোনো অভিযোগ ও ক্ষুদেবার্তা দেয়া যাবে এই নম্বরটিতে। 

ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর পক্ষে একজন দায়িত্বপ্রাপ্ত একজন কর্মকর্তা অভিযোগ ও ক্ষুদেবার্তা প্রতিমন্ত্রীকে জানিয়ে উত্তর দিয়ে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে জবাব পাঠাবেন। ধর্ম মন্ত্রণালয়ের একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

সূত্র জানায়, চলতি বছরের হজ মৌসুমে টানা ৪০ থেকে ৫০ দিন বাংলাদেশ ও সৌদি আরবে টেলিটকের এ নম্বরটি সচল থাকবে। হাজিদের যেন কোনো ধরনের ভোগান্তি বা হয়রানির শিকার হতে না হয়, সেজন্য ধর্ম প্রতিমন্ত্রী তাদের সান্নিধ্যে সর্বক্ষণ থাকতে চান। 
সূত্র আরও জানায়, ধর্ম মন্ত্রণালয়কে পুরোপুরি ডিজিটালাইজড করতে তথ্যপ্রযুক্তিতে অভিজ্ঞ একজনকে নিযুক্ত করা হয়েছে। ইতোমধ্যেই ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর পক্ষে তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক (https://www.facebook.com/Alhajadvskmdabdullah) ও টুইটারে (https://twitter.com/advskmdabdulla) অ্যাকাউন্ট খুলে দিয়েছেন। ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর প্রতিদিনের কার্যক্রম সেখানে পোস্ট করা হচ্ছে। ধর্ম মন্ত্রণালয়ের কোনো প্রতিমন্ত্রীর এমন ডিজিটাল প্রচার-প্রচারণা সকলের দৃষ্টি কেড়েছে। 

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী নিজেও তার মন্ত্রণালয়কে দুর্নীতি মুক্ত রাখতে দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘নিজে দুর্নীতি করবেন না, কাউকে করতেও দেবেন না। আসন্ন হজে হাজিদের নির্বিঘ্নে হজ পালন করার সুযোগ করে দেয়াই তার প্রধান কাজ হবে।’ তিনি আরও বলেছেন, ‘কোনো হজ এজেন্সির কারণে যদি হজযাত্রীদের চোখে পানি ঝরে তাহলে তিনি ওই এজেন্সির লোকজনের চোখ থেকে রক্ত ঝরাবেন।’

সম্প্রতি প্রতিমন্ত্রী উদ্যোগী হয়ে বিমানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনাক্রমে চলতি বছরের হজ মৌসুমে বিমানভাড়া ১০ হাজার কমিয়েছেন। গত বছর পর্যন্ত বিমানভাড়া ছিল ১ লাখ ৩৮ হাজার টাকা। এবার ভাড়া কমিয়ে করা হয়েছে ১ লাখ ২৭ হাজার। 

এখানেই শেষ নয়, তারই উদ্যোগে চলতি বছর তাবলিগের দুই গ্রুপ একসঙ্গে ১৫ থেকে ১৮ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ইজতেমায় অংশগ্রহণ করতে রাজি হয়েছে। সাধারণ মানুষ বলছেন, ইতিবাচক কথাবার্তার কারণে তিনি নবগঠিত মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রীদের মধ্যে আলোচনায় রয়েছেন।

এমইউ/এসআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]