সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের দায়ভার আমাদের কাঁধে আসছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৩৪ পিএম, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ভূমি সংক্রান্ত কাজের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সাব-রেজিস্ট্রি অফিস আইন মন্ত্রণালয়ের অধীন হলেও এই অফিসের অনেক কিছুর দায়ভার ভূমি মন্ত্রণালয়ের কাঁধে চলে আসছে বলে মন্তব্য করেছেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ।

বুধবার সচিবালয়ে আরএস খতিয়ান অনলাইনে অবমুক্তকরণ কার্যক্রম উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ভূমিমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা যা করছি অল পার্ট অব অটোমেশন, অল পার্ট অব ডিজিটাইজেশন। এভাবে একটা স্টেজে যাওয়ার পর টোটাল সিস্টেম উইল বি ইন্টিগ্রেটেড। সাব-রেজিস্ট্রি অফিস কিন্তু আমাদের না। এটা হচ্ছে আইন মন্ত্রণালয়ের।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা আসলে সব কাজই করব একটা স্টেজে গিয়ে হয়তো আমাদের...ওনারা (সাব-রেজিস্ট্রি অফিস) যদি অটোমেশনে সেইম ফেইজে না আসে, দেন উড বি ভেরি ডিফিকাল্ট। আমার মনে হয় এটুআই এ বিষয়ে নিশ্চয়ই ইনিশিয়েটিভ নিয়েছে।’

উপস্থিত এটুআই কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে ভূমিমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা একটু কাইন্ডলি, যেহেতু আপনারা এই কাজগুলো করছেন, এই সিস্টেমটাকে...আপনারা যদি মনে করেন আমাদের আপডেট দিতে পারবেন। যদি দেন ভালো হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা ইতোমধ্যে রিকোয়েস্ট করেছি, মাননীয় আইনমন্ত্রীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। পার্লামেন্ট নিয়ে এখন আমরা যেহেতু ব্যস্ত সবাই, তাই পার্লামেন্টটা যাক আমরা ইন্টারমিনিস্ট্রিয়াল একটি মিটিং করব।’

‘আমরা যদি সিনক্রোনাইজেশন করতে না পারি; তাহলে যতই বলি না কেন অনেক জায়গায় সমস্যা থেকে যাবে। আমি মনে করি এটুআই ক্যান প্লে ভেরি ইম্পট্যান্ট রোল।’

এ সময় এটুআই প্রকল্পের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘ইনোভেটিভ আইডিয়ার অধীনে একটি প্রজেক্টে আমরা অর্থায়ন করতে যাচ্ছি। আমাদের সিস্টেম তৈরি হয়ে গেছে। আমরা কোন একটি সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে এটি পাইলটিং করার অনুমতি চেয়েছি।’

ভূমিমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা পিএমও (প্রধানমন্ত্রীর অফিস) অফিসে বসেন আপনারা পারমিশন ওভাবে চান; আপনারা বলেন, আমরা ওমুখ অফিসে গিয়ে পাইলটিংটা করব, সুতরাং উই আর গোইং এহেড। আমরা ওমুক তারিখ যেতে চাই আপনারা ব্যবস্থা নিন। এভাবে করতে হবে। না হলে হবে না।’

‘এত কষ্ট করে ভূমি মন্ত্রণালয়... শোনেন অনেক সময় অনেক কিছু...আই অ্যাম সরি টু সে...তাদের অনেক কিছুর দায়ভার আমাদের কাঁধে চলে আসছে। মানুষের পারসেপশন কী, ও...ভূমি মন্ত্রণালয়, আসলে না, ওইটা (সাব-রেজিস্ট্রি অফিস) আমার মন্ত্রণালয়ের না। সব করতে গিয়ে এই যে আটকে গেলাম লাস্টে গিয়ে। তাহলে আর লাভটা কী হল’ বলেন সাইফুজ্জামান চৌধুরী।

তিনি বলেন, ‘সাংবাদিকদের প্রতি আমার অনুরোধ থাকল ওনারা আমাদের যেভাবে প্রেসারে রাখেন, ওনাদেরও (আইন মন্ত্রণালয়) ওভাবে প্রেসারে রাখবেন, তাতে কাজ হয়ে যাবে।’

আরএমএম/জেএইচ/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :