প্রধানমন্ত্রী ভুলতা ফ্লাইওভার উদ্বোধন করবেন শনিবার

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:২৯ পিএম, ১৪ মার্চ ২০১৯

দ্বিতীয় কাঁচপুর সেতু, ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ভুলতায় চার লেন বিশিষ্ট ফ্লাইওভার এবং লতিফপুর রেলওয়ে ওভারপাসের উদ্বোধন শনিবার (১৬ মার্চ)। উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন তিনি।

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় ৩৫৩.৩৬ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত চার লেন বিশিষ্ট তিনতলা ভুলতা ফ্লাইওভার একটি মেগা প্রকল্প। ভুলতা ফ্লাইওভার নির্মাণ হওয়ার কারণে এ এলাকায় জমির দামও বেড়েছে কয়েকগুণ।

ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক ও এশিয়ান হাইওয়ের সংযোগস্থল রূপগঞ্জের ভুলতা। হাজারো যাত্রীবাহী বাস, মালবাহী ট্রাক ও লরির নিত্যচলাচল এই পথে। বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রাম থেকে দেশের উত্তরাঞ্চলের একমাত্র রুট হিসেবে ব্যবহার করা হয় এই মহাসড়ক। দেশের বৃহত্তম পাইকারি কাপড়ের মার্কেট গাউছিয়ার অবস্থান থাকায় নিত্যদিনের যানজটের এলাকা হিসেবে চিহ্নিত এটি।

ফলে এই এলাকার যানজট নিরসন, বাণিজ্যিক কর্মকাণ্ড গতিশীল এবং সিলেট ও চট্টগ্রামের সঙ্গে যোগাযোগ সহজ করতে ২০১৫ সালের অক্টোবর মাসে মেগা প্রকল্পের অধীনে ভুলতা ফ্লাইওভার নির্মাণকাজ হাতে নেয় সরকার।

rupgonj-vulta

চার লেন বিশিষ্ট তিনতলা ভুলতা ফ্লাইওভারের নির্মাণকাজ ইতোমধ্যে প্রায়ই শেষ হয়েছে। জানা যায়, ২০১৫ সালের অক্টোবর মাসে ২৪০ কোটি ৫ লাখ ৬৬ হাজার ২০৮ টাকা ব্যয়ে ভুলতা ফ্লাইওভারটির নির্মাণকাজ শুরু করে সরকার। সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন প্রকল্পটির মেয়াদ ছিল গত বছরের জুন পর্যন্ত। ফ্লাইওভারটির নির্মাণে প্রথমে হকারদের কারণে বেগ পেতে হয় নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানের।

নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ না হওয়ায় প্রকল্পটির মেয়াদ আরও এক বছর বাড়ানো হয়। একই সঙ্গে গত বছরের ৮ আগস্ট ফ্লাইওভারটি নির্মাণে আরও ৫৮ কোটি ৫১ লাখ ২০ হাজার ৪৮৬ টাকা বাড়ায় সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

চারলেন বিশিষ্ট তিনতলা ফ্লাইওভারটি ১.২৩৮ কিলোমিটার লম্বা হবে। যার উভয় গার্ডার অভ্যন্তরে চারলেন বিশিষ্ট। ফ্লাইওভারটি নির্মাণ হচ্ছে রূপগঞ্জের ভুলতা ও গোলাকান্দাইলে।

ফ্লাইওভারটি নির্মাণ করছে চায়না রেলওয়ে ২৪ ব্যুরো গ্রুপ, স্পেকট্রা ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেড ও এমএন বিল্ডার্স লিমিটেড।

এফএইচএস/এসআর/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :