অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থায় দুর্বলতা আছে : শিল্পমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:২৭ পিএম, ৩০ মার্চ ২০১৯

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেছেন, ‘বিশ্বের বড় বড় শহরগুলোতেও অগ্নিকাণ্ড ঘটে থাকে। লন্ডনেও অগ্নিকাণ্ড ঘটে। কিন্তু তারা যেভাবে নিয়ন্ত্রণ করে, আমরা সেভাবে পারি না। অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থায় আমাদের দুর্বলতা আছে।’

রাজধানীর মতিঝিলের শিল্প মন্ত্রণালয়ে শনিবার প্রথম জাতীয় শিল্প মেলা ২০০৯ উদ্বোধন উপলক্ষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন তিনি।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, ‘গত বৃহস্পতিবার বনানীতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অনেকে হতাহত হয়েছেন। এতে আমরা মর্মাহত। আজ সকালেও একটি দুর্ঘটনা ঘটেছে গুলশানে ডিএনসিসির মার্কেটে। এটি কাঁচাবাজার এখানে আগেও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু আমরা জেনেছি সেখানে অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা ছিল না।

তিনি বলেন, এসব দুর্ঘটনায় আমাদের দুর্বলতাগুলো বেরিয়ে আসছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে।’

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ বলেন, ‘এ অগ্নিকাণ্ডে যাদের অবহেলা আছে সরকার ইতোমধ্যে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে। একই সঙ্গে এসব দুর্ঘটনা প্রতিকারে সরকারসহ সংশ্লিষ্ট সংস্থা দ্রুত ব্যবস্থা নিচ্ছে।’

শনিবার (৩০ মার্চ) ভোর ৫টা ৪৮ মিনিটে রাজধানীর গুলশান-১ এর ডিএনসিসি মার্কেটের কাঁচাবাজারের পূর্ব পাশে আগুন লাগে। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিট কাজ করে। প্রায় আড়াই ঘণ্টা চেষ্টার পর সকাল ৮টা ৩৫ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। একই মার্কেটে গত ২০১৭ সালের ৩ জানুয়ারিও আগুন লেগেছিল। সেই সময় ১৬ ঘণ্টা চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা। ওই আগুনে মার্কেটের নিচতলা ও দোতলার মোট ৬০৫টি দোকান পুড়ে যায়।

এদিকে গত বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) বনানীর ২২তলা এফআর টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ২৫ জন নিহত ও ৭১ জন আহত হন। দীর্ঘ ৫ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিসের ২২টি ইউনিট।

এসআই/এনডিএস/এমএস


আরও পড়ুন