পারিবারিক গোরস্থানে চিরঘুমে অগ্নিসেনা সোহেল রানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৪০ পিএম, ০৯ এপ্রিল ২০১৯

বনানীর অগ্নিকাণ্ডে আহত হওয়ার পর সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যাওয়া ফায়ারম্যান সোহেল রানার মরদেহ গ্রামের বাড়ি পারিবারিক গোরস্থানে সমাহিত করা হয়েছে। যে মাটিতে সোহেল রানার বেড়ে ওঠা, সে মাটিতেই চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন তিনি।

মঙ্গলবার বিকেলে মরদেহ নিজ গ্রাম কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলার চৌগাঙ্গা ইউনিয়নের কেরুয়াইলায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে দ্বিতীয় জানাজা শেষে তাকে পারিবারিক গোরস্থানে সমাহিত করা হয়।

Sohel-Rana3

এর আগে বেলা ১১টায় ফায়ার সার্ভিস সদর দফতরে সোহেল রানার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের মহাপরিচালকসহ সব স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং সোহেল রানার পরিবারের সদস্যরা অংশ নেন। সেখান থেকে সোহেল রানাকে চোখের জলে বিদায় জানান সহকর্মীরা।

Sohel-Rana3

গত ২৮ মার্চ বনানীর এফআর টাওয়ারের অগ্নিদুর্ঘটনায় উদ্ধার কাজে অংশ নিয়ে গুরুতর আহত হন ফায়ারম্যান সোহেল রানা। তাকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয়। অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য গত ৫ এপ্রিল সন্ধ্যায় এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে তাকে সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার দিবাগত রাতে বাংলাদেশ সময় ২টা ১৭ মিনিটে তিনি মারা যান। বনানীর আগুনে সোহেল রানাসহ মোট ২৭ জন মারা যান। এ ছাড়া আহত হন ৭১ জন।

Sohel-Rana3

ফায়ারম্যান সোহেল রানার মৃত্যুতে শোক জানান রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

সোমবার রাত ১০টা ৪০ মিনিটে সোহেল রানার মরদেহ এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছলে সেখানে তাকে গার্ড অব অনার প্রদান দেয়া হয়।

সোহেল রানা (পিএন-৯৩১৩) ১৯৯৪ সালের ১ জানুয়ারি বাবা নূরুল ইসলাম ও মা মোছা. হালিমা খাতুনের ঘরে জন্ম নেন।

Sohel-Rana3

চার ভাই ও এক বোনের মধ্যে সোহেল রানা ছিলেন পরিবারের দ্বিতীয় সন্তান। তিনি ছিলেন অবিবাহিত। ২০১০ সালে চৌগাঙ্গা শহীদ স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস এবং ২০১৪ সালে করিমগঞ্জ কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন।

২০১৫ সালের ৫ আগস্ট তিনি ফায়ারম্যান হিসেবে ফায়ার সার্ভিসে যোগদান করেন। তার প্রথম কর্মস্থল ছিল মুন্সীগঞ্জ কমলাঘাট নদী ফায়ার স্টেশন। সর্বশেষ তিনি কুর্মিটোলা ফায়ার স্টেশনে কর্মরত ছিলেন। তার বয়স হয়েছিল ২৫ বছর।

জেইউ/এনডিএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :