সন‌দের জন্য হজযাত্রীদের হাসপাতা‌লে অ‌পেক্ষার প্র‌য়োজন নেই

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১২:৩৩ এএম, ১৯ জুন ২০১৯

সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনার হজ গমনেচ্ছুদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও টিকাদান কার্যক্রম গত ১৬ জুন থেকে শুরু হয়েছে। ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট থেকে হজ গমনেচ্ছুরা মেডিকেল প্রোফাইল প্রিন্ট করে সরকারি মেডিকেল কলেজ, জেলা সদর এবং সিভিল সার্জন অফিসে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে নিচ্ছেন।

গত তিনদিনে রাজধানীসহ সারাদেশে আট হাজার ২০১ জন হজযাত্রী প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও ইনফ্লুয়েঞ্জা/ম্যানেনজাইটিস টিকা গ্রহণ করে চিকিৎসকের কাছ থেকে স্বাস্থ্য-সনদ সংগ্রহ করেছেন।

বিভিন্ন হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে আগত হজযাত্রীরা জানান, স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও টিকা গ্রহণের পর সনদ পেতে তাদের দীর্ঘসময় অপেক্ষা করতে হচ্ছে। ডাটা এন্ট্রি অপারেটরের অপ্রতুলার কার‌ণে বেশি সময় লাগছে।

হজযাত্রীদের দীর্ঘ সময় অপেক্ষার বিষয়টি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নজরে আসে। মন্ত্রণালয়ের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা মঙ্গলবার বিকেলে এ প্রতিবেদককে জানান, হজযাত্রীদের দুর্ভোগ লাঘবের জন্য মেডিকেল প্রোফাইলের মতো স্বাস্থ্য ও টিকার সনদ যেন ধর্ম মন্ত্রণালয় ওয়েবসাইট থেকে প্রিন্ট করতে পার‌বেন ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ওই কর্মকর্তা জানান, গত তিনদিন যাবত হজযাত্রীরা মেডিকেল প্রোফাইলের প্রিন্ট জমা দিয়ে নাম এন্ট্রি করে চিকিৎসকের কাছে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর নার্সদের কাছ থেকে ইনফ্লুয়েঞ্জা/ম্যানেনজাইটিস টিকা গ্রহণ করছেন। এরপর স্বাস্থ্য ও টিকার সনদের জন্য অপেক্ষা করছেন। এখন থেকে হজযাত্রীদের স্বাস্থ্য বা টিকার সনদ গ্রহণ করার জন্য অপেক্ষার প্রহর গুনতে হবে না।

স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও টিকা গ্রহণের তথ্য-উপাত্ত এন্ট্রি হলেই তার কাছে ক্ষুদেবার্তা পৌঁছে যাবে। তখন তিনি ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট থেকে মেডিকেল প্রোফাইলের মতো স্বাস্থ্য ও টিকার সনদ প্রিন্ট নিতে পারবেন।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানান, হজযাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও টিকা দেয়ার পর সনদ পেতে বিলম্ব হচ্ছে- এই মর্মে সোমবার জাগো নিউজে প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে তারা হজযাত্রীদের দুর্ভোগ লাঘবের প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করেন।

ওই কর্মকর্তা জানান, এখন থেকে চিকিৎসকের কাছে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও নার্সদের কাছে টিকা দেয়ার পর কোনো হজযাত্রীকে এ দুটি সনদ পাওয়ার জন্য আর হাসপাতালে অপেক্ষা করতে হবে না। তারা যেমনটি করে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট থেকে হেলথ প্রোফাইল প্রিন্ট করে নিচ্ছেন- এভাবে তারা নিজস্ব পিলগ্রিম আইডির মাধ্যমে ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে স্বাস্থ্য ও টিকা সনদ প্রিন্ট নিতে পারবেন।

যাত্রীদের দুর্ভোগ কমানোর জন্য এ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়া প্রত্যেক হজযাত্রীর কাছে সঠিকভাবে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও টিকাদান কার্যক্রম শেষ হওয়ার পরই স্বয়ংক্রিয়ভাবে ক্ষুদেবার্তা চলে যাবে।

উল্লেখ্য, চলতি বছর সরকারি ব্যবস্থাপনায় সাত হাজার ১৯৮ জন ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এক লাখ ২০ হাজার বাংলাদেশি পবিত্র হজ পালন করবেন। আগামী ৪ জুলাই থেকে হজফ্লাইট শুরু হচ্ছে।

এমইউ/বিএ

আপনার মতামত লিখুন :