পেটের ভেতর থেকে বের হলো পলিথিনে মোড়ানো সাড়ে পাঁচ হাজার ইয়াবা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:০৮ পিএম, ২০ মে ২০২১

রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে পেটের ভেতরে বহন করে আনা সাড়ে পাঁচ হাজার ইয়াবাসহ মাদক কারবারি চক্রের দুই সদস্যকে আটক করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। আটককৃতরা হলেন- মো. মামুন মল্লিক (৩৮) ও দীপ্ত হালদার ওরফে দীপ (২৫)।

বৃহস্পতিবার (২০ মে) দুপুরে র‍্যাব-২-এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি আবদুল্লাহ আল মামুন জাগো নিউজকে বলেন, রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকায় মাদকের একটি চালান হস্তান্তর হবে এমন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কলেজ গেটের মুক্তিযোদ্ধা টাওয়ার এলাকায় অবস্থান নেয় র‍্যাবের একটি দল এবং সেখান থেকে সন্দেহভাজন দুই মাদক কারবারিকে আটক করা হয়।

তারা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মাদক বহনের বিষয়টি অস্বীকার করলেও তাদের আচার-আচরণ সন্দেহজনক হওয়ায় অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের পর তারা ইয়াবার কথা স্বীকার করে। তারা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজর এড়াতে বাহ্যিকভাবে বহন না করে বিশেষ কায়দায় ছোট পলিথিনের পুঁটলি তৈরি করে মুখ দিয়ে গিলে পাকস্থলীতে ইয়াবা বহন করছিল।

এএসপি আবদুল্লাহ আল মামুন আরও বলেন, প্রথমে তাদের শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারী বিভাগে ভর্তি করা হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক এক্সরে করে তাদের পেটের ভেতরে বাহ্যিক বস্তুর অস্তিত্ব দেখতে পায়। কর্তব্যরত চিকিৎসকের চিকিৎসা ব্যবস্থাপত্র ও পরামর্শ অনুযায়ী তাদেরকে মঙ্গলবার থেকে পরদিন বুধবার পর্যন্ত জরুরি বিভাগের তত্ত্বাবধানে পর্যায়ক্রমে পায়ুপথ দিয়ে মামুন মল্লিকের পেট থেকে ৭৫টি ও দীপ্ত হালদারের পেট থেকে ৩৫টি পুঁটলি বের করা হয়। ১১০টি পুঁটুলি থেকে সর্বমোট ৫৫৫০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

পরবর্তীকালে জিজ্ঞাসাবাদে তারা আরও জানায়, দুজনে দীর্ঘদিন ধরে সীমান্তবর্তী জেলা থেকে মাদক পরিবহন করে নিয়ে এসে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সরবরাহ করত। মাদক পরিবহনের ক্ষেত্রে প্রায়ই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজর এড়াতে তারা নিত্য-নতুন পদ্ধতি অবলম্বন করত।

টিটি/এমএইচআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]