তফসিলভুক্ত নয় বলে ইভ্যালির তদন্ত থেকে সরে এলো দুদক

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:৫৬ পিএম, ১৯ অক্টোবর ২০২১

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) তফসিলভুক্ত নয় বলে আলোচিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির অনিয়মের তদন্ত থেকে সরে এসেছে সংস্থাটি। ইভ্যালি পরিচালনার জন্য উচ্চ আদালত থেকে সাবেক বিচারপতিসহ পাঁচজনকে দায়িত্ব দেওয়ার একদিন পরই দুদক এই তথ্য জানালো।

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) বিকেলে দুদক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মঈন উদ্দিন আব্দুল্লাহ সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘ইকমার্স বা ইভ্যালির দুর্নীতি দুদকের শিডিউলভুক্ত অপরাধ নয়। মানি লন্ডারিংয়ের বিষয়টি দেখে আমরা আমলে নিয়েছিলাম। এখন মানি লন্ডারিংয়ের বিষয়সহ অন্য সংস্থা তদন্ত করবে।’

এর আগে গত বছরের নভেম্বর থেকে মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগে ইভ্যালির বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছিল দুদক। এমনকি তাদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. রাসেলের বিদেশগমনে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল।

দুদক চেয়ারম্যান আরও বলেন, দুদকের তফসিলভুক্ত না হওয়ায় ইভ্যালির বিষয়টি দেখার দায়িত্ব সিআইডির। এটা তারা দেখবে।

প্রায় ৩৫০ কোটি টাকার অনিয়মের অভিযোগ অনুসন্ধান শুরুর চার মাস পর এ কথা জানালেন দুদক চেয়ারম্যান।

গত ২ সেপ্টেম্বর দুদক সচিব ড. মু. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার বলেছিলেন, ইভ্যালি নিয়ে শুধু আমরা কাজ করি না। অন্যান্য সংস্থাও কাজ করছে। এক্ষেত্রে অন্যান্য সংস্থাগুলো তাদের তদন্তে অগ্রগতি কিংবা যে পদক্ষেপ নেবেন, সেগুলোও আমরা অনুসন্ধানের স্বার্থে আমলে নেবো। মানি লন্ডারিং সংক্রান্ত অপরাধ কিংবা জনগণ বা রাষ্ট্রের অর্থ আত্মসাতের বিষয়টি কতটুকু হয়েছে, তা এখনও চূড়ান্ত হয়নি।

গত ৪ জুলাই ইভ্যালির বিরুদ্ধে ওঠা বিভিন্ন অভিযোগ তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে দুদকসহ চার প্রতিষ্ঠানকে চিঠি দেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। তখনই দুদকের সহকারী পরিচালক মামুনুর রশীদ চৌধুরী ও উপ-সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ শিহাব সালামের সমন্বয়ে টিম গঠন করে অনুসন্ধান শুরু করে সংস্থাটি। আর ৯ জুলাই দুদকের অনুসন্ধান টিমের সুপারিশের ভিত্তিতে ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন ও এমডি মো. রাসেলের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়।

এসএম/এআরএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]