ঘুস নিয়ে গ্যাস সংযোগ কাটেনি তিতাস, দুদকের হস্তক্ষেপে বিচ্ছিন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৪৩ এএম, ২৫ মে ২০২২

ঢাকার উদ্যান এলাকায় একটি বাড়িতে অবৈধ গ্যাস সংযোগ পেলেও তা বিচ্ছিন্ন করেনি পেট্রোবাংলার প্রতিষ্ঠান তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড। অভিযোগ রয়েছে— ঘুসের বিনিময়ে বাড়িটির অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেনি সংস্থাটি।

মঙ্গলবার (২৪ মে) দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) অনুসন্ধানে এমন অভিযোগের সত্যতা মেলে। পরে দুদকের হস্তক্ষেপে ওই বাড়ির অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। দুদকের জনসংযোগ দপ্তর জাগো নিউজকে এ তথ্য জানিয়েছে।

জানা যায়, বাড়িটিতে আনুমানিক ৩০ টি অবৈধ তিতাস গ্যাস সংযোগ রয়েছে— এমন অভিযোগের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালায় ধানমন্ডি এলাকার তিতাস অফিসের কর্মকর্তারা। তবে, অভিযানে এসে অবৈধ গ্যাস সংযোগ পেলেও টাকা (ঘুস) নিয়ে তা বিচ্ছিন্ন না করে চলে যান তারা।

তিতাসের ঘুস নেওয়ার বিষয়টি নজরে এলে সেই বাড়িটিতে অভিযান চালায় দুদক। এরপর দুদকের সহকারী পরিচালক জেসমিন আক্তার, সহকারী মো. আবুল কালাম আজাদের সমন্বয়ে গঠিত এনফোর্সমেন্ট টিম মঙ্গলবার সেই বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে দুদকের অনুসন্ধানে এর সতত্যা মেলে।

জানা গেয়ে, অভিযোগের ভিত্তিতে দুদক টিম প্রথমে ধানমন্ডিতে তিতাসের উপ-মহাব্যবস্থাপকের কার্যালয়ে যান। সেখানে দায়িত্বপ্রাপ্ত উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) ইঞ্জিনিয়ার মো. নজিবুল হকের সঙ্গে অভিযোগের বিষয়ে আলোচনা করেন। এরপর অভিযোগে উল্লিখিত বাসার ঠিকানার গ্যাস লাইনের সংযোগের রেকর্ডপত্র যাচাই করা হয়। রেকর্ডপত্রে ওই বাসার অনুকুলে গ্যাস সংযোগ গ্রহণের বৈধ কোনো রেকর্ডপত্র পাওয়া যায়নি। পরে দুদক টিম এবং তিতাস গ্যাসের চার সদস্যের একটি টিম যৌথভাবে বাড়িটিতে অভিযান চালায়।

অভিযানে তিনতলা বিশিষ্ট বাড়িটির প্রতিটি ফ্লোরে তিনটি করে অবৈধ গ্যাসের লাইন রয়েছে। তার মধ্যে দুইটি করে ডবল চুলার লাইন সক্রিয় রয়েছে। বাসার মালিক এবং বাসায় দায়িত্বরত ম্যানেজারের কাছ থেকে গ্যাস বিলের কপি চাইলে তারা দীর্ঘ সময়ে অপেক্ষা করিয়েও রেকর্ডপত্র দেখাতে পারেনি। পরে তিতাস গ্যাস লিমিটেডের প্রতিনিধিরা দুদক টিমের উপস্থিতিতে গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেন। এসময় দুদক টিম তিতাস গ্যাসের কর্তৃপক্ষকে ওই অবৈধ গ্যাস সংযোগ ব্যবহারকারী গ্রাহকের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশনা দেয়।

দুদক টিম জানায়, এলাকার দায়িত্বপ্রাপ্ত তিতাস গ্যাস কোং লিমিটেডের ম্যানেজার এবং সুপারভাইজারসহ অন্যান্য কর্মচারীদের তথ্য সংগ্রহ এবং সেই অবৈধ গ্যাস সংযোগ দেওয়ার ক্ষেত্রে যেসব কর্মকর্তা জড়িত রয়েছে তাদের তথ্য সংগ্রহ করে বিস্তারিত প্রতিবেদন কমিশন বরাবর জমা দিতে বলা হয়।

এসএম/এমএএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]