বাংলাদেশ স্কাউটস জাতীয় কাউন্সিলের সাধারণ সভা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৪৬ পিএম, ২৭ জুন ২০২২
বাংলাদেশ স্কাউটসের বার্ষিক কাউন্সিলের সাধারণ সভা

বাংলাদেশ স্কাউটসের জাতীয় কাউন্সিলের ৫০তম বার্ষিক সাধারণ সভা হয়েছে। সোমবার (২৭ জুন) বিকেলে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ সভার আয়োজন করা হয়।

রাষ্ট্রপতি ও চিফ স্কাউট মো. আব্দুল হামিদ বঙ্গভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত থেকে এ সভার উদ্বোধন করেন।

এতে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ স্কাউটসের সভাপতি ও গ্লোবাল কমিশন অন বায়োডাইভারসিটিজের কমিশনার মো. আবুল কালাম আজাদ। স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ স্কাউটসের প্রধান জাতীয় কমিশনার ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কমিশনার ড. মো. মোজাম্মেল হক খান।

সভায় বাংলাদেশ স্কাউটসের বাস্তবায়িত কার্যক্রমের ওপর ভিডিও প্রদর্শন শেষে রাষ্ট্রপতির অনুমতিতে বাংলাদেশ স্কাউটসের সর্বোচ্চ অ্যাওয়ার্ড রৌপ্য ব্যাঘ্র ও রৌপ্য ইলিশ অ্যাওয়ার্ড তুলে দেন ড. মো. মোজাম্মেল হক খান।

এসময় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন ‘রৌপ্য ব্যাঘ্র’ পুরস্কার পান। স্কাউটিংয়ে অনবদ্য অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ২০২০ সালের ১৫ জন রৌপ্য ব্যাঘ্র ও ১৫ জন রৌপ্য ইলিশ পুরস্কার পান।

এছাড়া হাতে-কলমে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সর্বোচ্চ যোগ্যতা অর্জনকারী স্কাউট ও রোভার স্কাউটদের মাঝে প্রেসিডেন্টস স্কাউট অ্যাওয়ার্ড ও প্রেসিডেন্টস রোভার স্কাউট পুরস্কার দেওয়া হয়। ২০১৯ সালের ৮০৮ জন স্কাউট প্রেসিডেন্টস স্কাউট পুরস্কার ও ২০২০ সালের ১৪ জন রোভার স্কাউট প্রেসিডেন্টস রোভার স্কাউট পুরস্কার পান।

সভায় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেন, শিশু-কিশোর-তরুণদের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড, ধর্মান্ধতা, সাম্প্রদায়িকতা, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ থেকে দূরে রাখতে ধেলাধুলা ও সুস্থ বিনোদনের পাশাপাশি স্কাউটিং অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, স্কাউটিং কার্যক্রমই পারে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে প্রগতিশীল, সৃজনশীল ও উন্নয়নের পথে নিজেদের সম্পৃক্ত রাখতে।

স্বাধীন বাংলাদেশে ১৯৭২ সালের ৮-৯ এপ্রিল জাতীয় কাউন্সিলের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়। এরই ধারাবাহিকতায় স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে বাংলাদেশ স্কাউটস উদযাপন করে পথচলার ৫০ বছরপূর্তি। এ সভায় সারা দেশ থেকে ২৯৪ জন কাউন্সিলর, আমন্ত্রিত অতিথি, পুরস্কারপ্রাপ্তসহ প্রায় দুই হাজার জন অংশ নেন।

এইচএআর/এসএএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]