চীন ছাড়তে ইচ্ছুকদের বিনিয়োগ কি বাংলাদেশে আসবে?

সম্পাদকীয় ডেস্ক সম্পাদকীয় ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:১৯ পিএম, ০৬ জুন ২০২০

এম কে তৌফিক

কোভিড-১৯ উদ্ভূত পরিস্থিতিতে অনেক বিনিয়োগকারীই ‘বিশ্বের কারখানা’ হিসেবে পরিচিত চীন ছাড়তে চাচ্ছে। অনেক দেশ চীন-নির্ভরতা কমিয়ে আনার লক্ষ্যে তাদের দেশীয় কোম্পানিগুলোর বিদেশে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে নতুন নীতিমালা প্রণয়ন করছে। চীন ছাড়তে ইচ্ছুক বা চীনের প্রতি ক্ষুব্ধ দেশগুলোর সাথে অনেক দেশ যোগাযোগ করতে শুরু করেছে বিনিয়োগ আকর্ষণের জন্য। বাংলাদেশ কি পারবে এ পরিস্থিতির সুযোগ নিতে?

বিশ্বব্যাংক কর্তৃক প্রকাশিত সহজে ব্যবসাসূচক (২০২০) অনুযায়ী বাংলাদেশের অবস্থান ১৯০টি দেশের মধ্যে ১৬৮তম। প্রথমেই বলে রাখা উচিত যে, শুধুমাত্র সহজে ব্যবসা সূচকের ওপর ভিত্তি করে বিদেশি বিনিয়োগ আসে না। তবে একটি দেশের প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতার বেশ ভালো নির্দেশক এই সূচক।

বর্তমানে, দক্ষিণ এশিয়ার ৮টি দেশের মধ্যে এ সূচক অনুযায়ী বাংলাদেশের অবস্থান, শুধু আফগানিস্তানকে পেছনে ফেলে, ৭ম। নিম্ন মধ্যআয়ের ৪৭টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ৪২তম। ভারত (৪র্থ), ভিয়েতনাম (৭ম), ইন্দোনেশিয়া (৮ম), ফিলিপাইন (১৫তম) এবং পাকিস্তান (১৭তম) - এরা সবাই বাংলাদেশের অনেক উপরে অবস্থান করছে। অর্থাৎ, ভৌগোলিক অবস্থান বা আর্থিক সামর্থ্য, যে আয়না দিয়েই দেখা হোক না কেন, আমরা সুবিধাজনক অবস্থায় নেই।

বিনিয়োগকারীদের চীন ছাড়ার কারণ যতটা না অর্থনৈতিক তার চেয়ে বেশি ভূ-রাজনৈতিক। বিনিয়োগ আকর্ষণের জন্য স্থানীয় বাজারের আকৃতি ও সক্ষমতা, বৃহৎ বাজারের নৈকট্য, প্রয়োজনীয় উৎপাদনের উপাদানের সহজলভ্যতা এবং বর্তমান পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে, নিরাপত্তা বড় ভূমিকা পালন করবে। উন্নত, বিনিয়োগকারী দেশগুলো চাইছে একদেশের ওপর নির্ভর না করে উৎপাদনস্থলের ভৌগোলিক-বৈচিত্র্য আনতে যা তাদের জাতীয় নিরাপত্তাকে সুদৃঢ় করবে।

তাছাড়া অর্থনৈতিক ও সামরিকভাবে চীনের উত্থানকে হুমকি মনে করেছে যেসব দেশ, সেগুলোতে চীনবিরোধী মনোভাব চাঙা ও জোরালো হয়েছে কোভিড-১৯ এর কারণে। কোভিড-১৯ জাতিরাষ্ট্রের ধারণাকে সামনে নিয়ে এসেছে এবং সব দেশেরই ভবিষ্যৎ অর্থনৈতিক পরিকল্পনায় তার প্রভাব থাকবে। নভেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন এবং যুক্ত্রাষ্ট্র-চীন বাণিজ্য যুদ্ধও নিয়ামক হিসেবে কাজ করছে।

নিচের সারণিতে চীন, বাংলদেশ এবং চীন থেকে বিনিয়োগ সরে যেসব দেশে যাবার কথা শোনা যাচ্ছে বেশি, তাদের একটি তুলনামূলক চিত্র প্রদান করা হয়েছে। সারণির ৮টি দেশের মধ্য বাংলাদেশের অবস্থান সর্বনিম্ন। সারণিতে ৭ম দেশ ইন্দোনেশিয়া এবং ৮ম দেশ বাংলাদেশের মধ্যে জায়গা নিয়ে আছে ১০/২০টি নয়, ৯৫টি দেশ! সহজে ব্যবসাসূচকের ১০টি সহসূচক আছে। তার মধ্য সবকটিতে বাংলাদেশ পিছিয়ে আছে সম্ভাব্য বিনিয়োগ হারানো চীন এবং প্রতিদ্বন্দ্বী থাইল্যান্ড, তাইওয়ান ও মেক্সিকোর চেয়ে। ৯টি সহসূচকে বাংলাদেশ পিছিয়ে আছে ভারত, ভিয়েতনাম ও ইন্দোনেশিয়ার চেয়ে।

 

চীন

বাংলাদেশ

ভারত

ভিয়েতনাম

ইন্দোনেশিয়া

থাইল্যান্ড

তাইওয়ান

মেক্সিকো

ব্যবসা চালুকরণ

৯৪.১

৮২.৪

৮১.৬

৮৫.১

৮১.২

৯২.৪

৯৪.৪

৮৬.১

নির্মাণ সংক্রান্ত অনুমোদন

৭৭.৩

৬১

৭৮.৭

৭৯.৩

৬৬.৮

৭৭.৩

৮৭.১

৬৮.৮

বিদ্যুৎপ্রাপ্তি

৯৫.৪

৩৪.৯

৮৯.৪

৮৮.২

৮৭.৩

৯৮.৭

৯৬.৩

৭১.১

সম্পত্তি নিবন্ধন

৮১

২৯

৪৭.৬

৭১.১

৬০

৬৯.৫

৮৩.৯

৬০.২

ঋণ সুবিধা

৬০

৪৫

৮০

৮০

৭০

৭০

৫০

৯০

সংখ্যালঘু বিনিয়োগকারীর সুরক্ষা

৭২

৬০

৮০

৫৪

৭০

৮৬

৭৬

৬২

কর প্রদান

৭০.১

৫৬.১

৬৭.৬

৬৯

৭৫.৮

৭৭.৭

৮৪.৩

৬৫.৮

সীমান্ত দিয়ে বাণিজ্য

৮৬.৫

৩১.৮

৮২.৫

৭০.৮

৬৭.৫

৮৪.৬

৮৪.৯

৮২.১

চুক্তি কার্যকরীকরণ

৮০.৯

২২.২

৪১.২

৬২.১

৪৯.৫

৬৭.৯

৭৫.১

৬৭

দেউলেপনার মীমাংসা

৬২.১

২৮.১

৬২

৩৮

৬৮.১

৭৬.৮

৭৭.১

৭০.৩

সহজে ব্যবসাসূচক স্কোর

৭৭.৯

৪৫

৭১

৬৯.৮

৬৯.৬

৮০.১

৮০.৯

৭২.৪

সহজে ব্যবসাসূচক অবস্থান

৩১

১৬৮

৬৩

৭০

৭৩

২১

১৫

৬০

সারণি: সহজে ব্যবসাসূচক ও অন্তর্ভুক্ত সহসূচকসমূহের স্কোর অনুযায়ী বাংলাদেশ ও নির্বাচিত ৭ দেশের তুলনা। উৎস: সহজে ব্যবসাসূচক (বিশ্বব্যাংক, ২০২০)।

সহসূচকগুলোর প্রতিটিতে আলাদাভাবে এই ৮টি দেশের মধ্যে সবেচেয়ে সফল দেশের সাথে বাংলাদেশের তুলনা করলে দেখা যায়- ব্যবসা চালুকরণে তাইওয়ানে ৩টি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে ১০ দিন লাগে। বাংলাদেশে ৯টি প্রক্রিয়া বিদ্যমান এবং তাতে সময় লাগে ১৯.৫ দিন। নির্মাণ সংক্রান্ত অনুমোদনে তাইওয়ানে ১০টি প্রক্রিয়ায় ৮২ দিন লাগে। বাংলাদেশের ১৫.৭৮ টি প্রক্রিয়া সময় নেয় ২৭৩.৫২ দিন। বিদ্যুৎপ্রাপ্তিতে থাইল্যান্ডে ২টি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হয়, সময় লাগে ৩০ দিন।

পক্ষান্তরে, বাংলাদেশে ৮.৫৬টি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হয়, সময় লাগে ১২৪.৪৬ দিন। সম্পত্তি নিবন্ধনে বাংলাদেশে ৮টি প্রক্রিয়ায় ২৭০.৮২ দিন লাগে। তাইওয়ানে আছে ৩টি প্রক্রিয়া এবং তারা সময় নেয় ৪ দিন। করের ক্ষেত্রে তাইওয়ানে বছরে ১১টি পেমেন্ট করতে হয় আর তাতে সময় লাগে ২২১ ঘণ্টা। বাংলাদেশে ৩৩টি পেমেন্টে বছরে সময় যায় ৪৩৫ ঘণ্টা। চীনে রফতানি এবং আমদানির জন্য প্রয়োজনীয় দালিলিক সম্মত্তি পেতে যথাক্রমে ৮.৬২৫ ও ১২.৮ ঘণ্টা লাগে, বাংলাদেশে লাগে যথাক্রমে ১৪৭ ও ১৪৪ ঘণ্টা। চুক্তি কার্যকরীকরণে চীন সময় নেয় ৪৯৬.২৫ দিন আর আমরা নিই ১৪৪২ দিন।

দেউলিয়াপনার মীমাংসা করতে থাইল্যান্ড ১.৯ বছর সময় নেয়, আমরা নিই ৪ বছর। এখানে কেবল প্রক্রিয়ার সংখ্যা এবং তা সম্পন্ন করতে কত সময় লাগে, তার তুলনা করা হয়েছে বিধায় ঋণ সুবিধা এবং বিনিয়োগকারীর সুরক্ষা- এই দুটি সহসূচকের তুলনা করা সম্ভব হ্য়নি। তুলনাকৃত ৮টি সহসূচকের মধ্যে ৭টিতে গত ৫ বছরে বাংলাদেশ কোনো উন্নতি করতে পারেনি। যাহোক, প্রতিটি সহসূচকে সেরা স্কোর অর্জনকারী দেশের নীতি যদি বাংলাদেশ অনুসরণ করে, তাহলে বাংলাদেশের সহজে ব্যবসাসূচক স্কোর হবে ৮৬.৮৯ এবং অবস্থান হবে বিশ্বে ১ম!

ঈদের আগে শেষ কার্যদিবসে বাণিজ্যমন্ত্রী আশঙ্কা প্রকাশ করেন যে বিনিয়োগ আকর্ষণের সুযোগ হাতছাড়া হয়ে যেতে পারে। তিনি ঈদের পর উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন টাস্কফোর্স গঠনের কথা বলেন। রাষ্ট্রীয় অতীব গুরুত্বপূর্ণ এবং জরুরি কাজ ছুটির জন্য আটকে থাকা উচিত নয়। সবসময় মনে রাখতে হবে, এই মুহূর্তে আমাদের প্রতিদ্বন্দ্বীরা কী করছে আর আমরা কী করছি।

প্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ‘মেইক ইন ইন্ডিয়া’ স্লোগান কার্যকর করার উদ্যোগ নিয়েছেন। অবকাঠামো, দেশি সরবরাহ শৃঙ্খল, অর্থায়ন, দক্ষতা উন্নয়ন, শুল্ক ব্যবস্থা ইত্যাদিতে দুর্বলতা আছে বিধায় নানা রকমের প্রণোদনার উল্লেখ করে ভারত বিনিয়োগ আকর্ষণের চেষ্টা করছে। এপ্রিলে ভারত ১০০০ আমেরিকান কোম্পানির সাথে যোগাযোগ করে চীন থেকে ভারতে কারখানা সরানোর অনুরোধ জানায় এবং নানা ধরনের প্রণোদনার ব্যাপারে অবহিত করে।

যুক্তরাষ্ট্রের ২৭টি কারখানা চীন থেকে ইন্দোনেশিয়ায় আসছে। ইন্দোনেশিয়া ইতোমধ্যে দ্রুততার সাথে সেন্ট্রাল জাভায় ৪ হাজার হেক্টর জমি তৈরি করছে। উচ্চ উৎপাদনশীলতাসম্পন্ন লোকবল, উত্তম অবকাঠামো, বৃহদায়তনের ভূমি, যথেষ্ট প্রণোদনা, সরাসরি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট এবং কোম্পানিগুলোর প্রধানদের সাথে আলোচনা করা- ইত্যাদি বিষয়গুলো ইন্দোনেশিয়াকে সফল করছে।

বর্তমান অবস্থায় দ্রুত নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে নতুন বিদেশি বিনিয়োগ সহায়ক নীতিমালা প্রণয়ন করতে হবে। সরাসরি সম্ভাব্য বিনিয়োগকারীদের কাছে বিনিয়োগ-ধরন অনুযায়ী তৈরি পৃথক ও নির্দিষ্ট নীতিমালা বা পদক্ষেপ পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। বাণিজ্য, পররাষ্ট্র ও অন্যান্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়সমূহ, বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠন, বাংলাদেশে বিদেশি রাষ্ট্রদূত, বিদেশে বাংলাদেশি দূতাবাস– সবাইকে কৌশলগতভাবে কাজে লাগাতে হবে। অর্থনৈতিক কূটনীতির জন্য এর চেয়ে ভালো সময় আর আসেনি।

বিনিয়োগ আকর্ষণে প্রাতিষ্ঠানিক দুর্বলতা এবং প্রাতিষ্ঠানিক সংস্কার বা দক্ষতা উন্নয়নে অনীহা-ই আমাদের প্রধান অন্তরায়। গত কয়েক দশকে এই প্রথমবারের মতো বিশ্বের প্রধান বিনিয়োগকারী দেশগুলো সচেতনভাবে বিনিয়োগস্থলের বৈচিত্র্যকরণ করছে। এ সুযোগটা হাতছাড়া করলে আমরা দীর্ঘমেয়াদে ক্ষতিগ্রস্ত হবো কারণ বিনিয়োগ বিনিয়োগ আনে। ট্রেন এবার স্টেশনে না থামাতে পারলে, অদূর ভবিষ্যতেও থামবে না।

লেখক : সহযোগী অধ্যাপক ও চেয়ারম্যান, অর্থনীতি বিভাগ, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

এইচআর/বিএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাস - লাইভ আপডেট

২৬,২০,৮২,৮৬৫
আক্রান্ত

৫২,২১,২২৩
মৃত

২৩,৬৬,৮২,৯০৫
সুস্থ

# দেশ আক্রান্ত মৃত সুস্থ
বাংলাদেশ ১৫,৭৬,০১১ ২৭,৯৮০ ১৫,৪০,৫৯৭
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ৪,৯১,০৫,৬০৪ ৭,৯৯,৪৪৩ ৩,৮৮,৮০,০৮১
ভারত ৩,৪৫,৮০,৮৩২ ৪,৬৮,৭৯০ ৩,৪০,০৮,১৮৩
ব্রাজিল ২,২০,৮০,৯০৬ ৬,১৪,৩১৪ ২,১২,৯৩,৩১৪
যুক্তরাজ্য ১,০১,৮৯,০৫৯ ১,৪৪,৮১০ ৯০,২৫,৭৭৩
রাশিয়া ৯৬,০৪,২৩৩ ২,৭৩,৯৬৪ ৮২,৯৫,৮১১
তুরস্ক ৮৭,৭০,৩৭২ ৭৬,৬৩৫ ৮৩,০১,৮৮৩
ফ্রান্স ৭৬,২০,০৪৮ ১,১৮,৮৯৪ ৭১,০০,৮১০
ইরান ৬১,১৩,১৯২ ১,২৯,৭১১ ৫৮,৭৩,৪৪১
১০ জার্মানি ৫৮,১৫,৮৪৮ ১,০১,৫৫৮ ৪৮,৫২,৮০০
১১ আর্জেন্টিনা ৫৩,২৬,৪৪৮ ১,১৬,৫২৯ ৫১,৯১,০৫৪
১২ স্পেন ৫১,৩১,০১২ ৮৭,৯৫৫ ৪৯,১৪,২৮৬
১৩ কলম্বিয়া ৫০,৬৫,৩৭৩ ১,২৮,৪৩৭ ৪৯,০৫,৪৩১
১৪ ইতালি ৫০,১৫,৭৯০ ১,৩৩,৭৩৯ ৪৬,৯২,৪০৮
১৫ ইন্দোনেশিয়া ৪২,৫৬,১১২ ১,৪৩,৮১৯ ৪১,০৪,৩৩৩
১৬ মেক্সিকো ৩৮,৮৩,৮৪২ ২,৯৩,৮৯৭ ৩২,৪০,৫২১
১৭ পোল্যান্ড ৩৫,২০,৯৬১ ৮৩,০৫৫ ৩০,২২,৭৭১
১৮ ইউক্রেন ৩৪,২৭,৮২৭ ৮৫,৪১৪ ২৯,২০,৭১৪
১৯ দক্ষিণ আফ্রিকা ২৯,৬১,৪০৬ ৮৯,৭৯৭ ২৮,৪৭,৭৭১
২০ ফিলিপাইন ২৮,৩২,৩৭৫ ৪৮,৫০১ ২৭,৬৭,৫৮৫
২১ মালয়েশিয়া ২৬,২৩,৮১৬ ৩০,৩০৯ ২৫,২৭,০৫২
২২ নেদারল্যান্ডস ২৬,২১,০২২ ১৯,৩৪৯ ২১,০৪,৫৬৩
২৩ পেরু ২২,৩৪,০৭৫ ২,০১,১০৮ ১৭,২০,৬৬৫
২৪ চেক প্রজাতন্ত্র ২১,৩২,৩৮০ ৩২,৯২৯ ১৮,৩৫,০৪৪
২৫ থাইল্যান্ড ২১,১১,৫৬৬ ২০,৭৩২ ২০,১৩,০২১
২৬ ইরাক ২০,৮০,৪৪৮ ২৩,৮০৭ ২০,৪৩,৬৬৬
২৭ কানাডা ১৭,৮৬,২৪৬ ২৯,৬৩৩ ১৭,২৮,৯৭৯
২৮ রোমানিয়া ১৭,৭৮,০৪৫ ৫৬,৩৮২ ১৬,৮৩,২০৪
২৯ চিলি ১৭,৬১,৩৬৫ ৩৮,৩৪৩ ১৬,৫৪,৫৬৪
৩০ জাপান ১৭,২৭,১৪৩ ১৮,৩৫৮ ১৭,০৭,৯০২
৩১ বেলজিয়াম ১৭,০১,৬৩৩ ২৬,৮৪০ ১৩,০৭,১৫৪
৩২ ইসরায়েল ১৩,৪২,২১০ ৮,১৮৯ ১৩,২৭,৩১৬
৩৩ পাকিস্তান ১২,৮৪,৩৬৫ ২৮,৭০৯ ১২,৪১,৭৬১
৩৪ সার্বিয়া ১২,৫২,৫৭৩ ১১,৬৩৭ ১১,৮৯,৪৯২
৩৫ ভিয়েতনাম ১২,২৪,১১০ ২৫,০৫৫ ৯,৭৪,৭২৪
৩৬ সুইডেন ১১,৯৮,৮৪৮ ১৫,১১৩ ১১,৫৮,২০০
৩৭ অস্ট্রিয়া ১১,৫১,৮০৯ ১২,৪২৫ ৯,৯৪,০৯১
৩৮ পর্তুগাল ১১,৪৪,৩৪২ ১৮,৪৩০ ১০,৭১,৫৪৪
৩৯ হাঙ্গেরি ১০,৯৬,৭১৮ ৩৪,৩২৬ ৮,৭৭,২৫১
৪০ সুইজারল্যান্ড ১০,০১,৫৪৯ ১১,৫০৫ ৮,৬০,২৭৭
৪১ কাজাখস্তান ৯,৭০,৮৮৭ ১২,৬৭৮ ৯,৩৪,৮১৩
৪২ কিউবা ৯,৬২,৩৫০ ৮,৩০০ ৯,৫৩,১৩০
৪৩ মরক্কো ৯,৪৯,৭৩২ ১৪,৭৭৪ ৯,৩১,৯৮৫
৪৪ জর্ডান ৯,৪৮,৯৬৬ ১১,৫৮৪ ৮,৮৩,৯৮০
৪৫ গ্রীস ৯,৩১,১৮৩ ১৮,০৬৭ ৮,৩৫,৮৮২
৪৬ জর্জিয়া ৮,৪০,৫৯৩ ১১,৯৭৪ ৭,৮৩,৯৮৭
৪৭ নেপাল ৮,২১,১২১ ১১,৫২৪ ৮,০২,৬৫৩
৪৮ সংযুক্ত আরব আমিরাত ৭,৪১,৯৭৬ ২,১৪৬ ৭,৩৬,৮৬২
৪৯ তিউনিশিয়া ৭,১৭,২৫৮ ২৫,৩৬৩ ৬,৯০,৭৯১
৫০ বুলগেরিয়া ৬,৮৯,৩৫৬ ২৮,১০১ ৫,৫৫,৯৬৩
৫১ স্লোভাকিয়া ৬,৭৩,০১৫ ১৪,৩৪১ ৫,৪৯,১৭১
৫২ লেবানন ৬,৬৮,০৮৭ ৮,৭০৯ ৬,৩১,২৯৪
৫৩ বেলারুশ ৬,৫৩,৩২৩ ৫,০৬৭ ৬,৪০,১৩২
৫৪ গুয়াতেমালা ৬,১৭,৬১০ ১৫,৯২৮ ৬,০০,০৩৪
৫৫ ক্রোয়েশিয়া ৬,০৪,৩৪৭ ১০,৮২৬ ৫,৬৩,৬৩০
৫৬ আজারবাইজান ৫,৮৬,৬৪০ ৭,৮৩৩ ৫,৫২,৮১৫
৫৭ কোস্টারিকা ৫,৬৬,৫৬০ ৭,২৮৭ ৫,৪৩,৮৭৫
৫৮ শ্রীলংকা ৫,৬২,৫২০ ১৪,৩০৫ ৫,২৯,৬৬২
৫৯ আয়ারল্যান্ড ৫,৬০,০৫৪ ৫,৬৫২ ৪,৩৯,৬২৩
৬০ সৌদি আরব ৫,৪৯,৭২০ ৮,৮৩৪ ৫,৩৮,৮৮৫
৬১ বলিভিয়া ৫,৩৬,৪৭২ ১৯,১৬১ ৪,৯১,৯৪৬
৬২ ইকুয়েডর ৫,২৪,৪৩২ ৩৩,১২৮ ৪,৪৩,৮৮০
৬৩ মায়ানমার ৫,২১,৯৩১ ১৯,০৯৭ ৪,৯৬,৬৬০
৬৪ ডেনমার্ক ৪,৮৩,২৫৩ ২,৮৮৩ ৪,০৩,১১৮
৬৫ পানামা ৪,৭৭,৫১৪ ৭,৩৬২ ৪,৬৭,৪৫৯
৬৬ লিথুনিয়া ৪,৬৮,৪৯৪ ৬,৭১৯ ৪,৩২,৫৫৯
৬৭ প্যারাগুয়ে ৪,৬২,৯৫৬ ১৬,৪৬৩ ৪,৪৫,৬৫৭
৬৮ দক্ষিণ কোরিয়া ৪,৪৪,২০০ ৩,৫৮০ ৩,৯৩,৬১৭
৬৯ ভেনেজুয়েলা ৪,৩০,৬৯৬ ৫,১৩৮ ৪,১৭,৮৩১
৭০ ফিলিস্তিন ৪,২৯,৬৯৭ ৪,৫২৮ ৪,২২,৪৪২
৭১ স্লোভেনিয়া ৪,১৮,৪১০ ৫,২০৬ ৩,৭৪,৭৮৫
৭২ কুয়েত ৪,১৩,২৬৬ ২,৪৬৫ ৪,১০,৫৭৫
৭৩ ডোমিনিকান আইল্যান্ড ৪,০৬,৮০৩ ৪,২০৪ ৩,৯৯,৪৩৮
৭৪ উরুগুয়ে ৩,৯৯,৩৪৮ ৬,১২৯ ৩,৯১,০৮৩
৭৫ মঙ্গোলিয়া ৩,৮১,১৩৫ ১,৯৯৫ ৩,১৩,২৫৬
৭৬ হন্ডুরাস ৩,৭৭,৮৮৮ ১০,৪০৩ ১,২০,৩০৮
৭৭ লিবিয়া ৩,৭২,২০৯ ৫,৪৪৮ ৩,৪৪,০৮৭
৭৮ ইথিওপিয়া ৩,৭১,২৬২ ৬,৭৪০ ৩,৪৮,৭৯৯
৭৯ মলদোভা ৩,৬৩,১১০ ৯,০৯০ ৩,৪৭,১১৮
৮০ মিসর ৩,৫৬,৭১৮ ২০,৩৪৭ ২,৯৬,১৬৭
৮১ আর্মেনিয়া ৩,৩৮,১২০ ৭,৫৩৫ ৩,১৬,১৯৮
৮২ ওমান ৩,০৪,৫১৯ ৪,১১৩ ২,৯৯,৯৫১
৮৩ বাহরাইন ২,৭৭,৫৮৫ ১,৩৯৪ ২,৭৫,৯১০
৮৪ বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ২,৭৪,২১৯ ১২,৫৫৫ ১৩,৪৯,৯৫৬
৮৫ সিঙ্গাপুর ২,৬২,৩৮৩ ৭০১ ২,৪৮,৩২৩
৮৬ নরওয়ে ২,৬০,৯২১ ১,০৫০ ৮৮,৯৫২
৮৭ কেনিয়া ২,৫৪,৯৫১ ৫,৩৩২ ২,৪৮,১৩১
৮৮ লাটভিয়া ২,৫২,৭২৮ ৪,১৫৫ ২,৩৬,৯৯৭
৮৯ কাতার ২,৪৩,২৯০ ৬১১ ২,৪০,৬৬৬
৯০ এস্তোনিয়া ২,২১,৮৬০ ১,৭৯১ ২,০১,৩১৫
৯১ উত্তর ম্যাসেডোনিয়া ২,১৫,১২৫ ৭,৫৬৯ ১,৯৯,৪৬০
৯২ নাইজেরিয়া ২,১৪,০৯২ ২,৯৭৬ ২,০৭,২৫৪
৯৩ আলজেরিয়া ২,১০,৩৪৪ ৬,০৬৪ ১,৪৪,২৯৫
৯৪ জাম্বিয়া ২,১০,১৫০ ৩,৬৬৭ ২,০৬,৩৯২
৯৫ অস্ট্রেলিয়া ২,০৯,১৪৫ ১,৯৯৭ ১,৯১,৭২২
৯৬ আলবেনিয়া ১,৯৯,৫৫৫ ৩,০৮৯ ১,৮৯,০৪৪
৯৭ বতসোয়ানা ১,৯৪,৯০৯ ২,৪১৬ ১,৯১,৯৬১
৯৮ উজবেকিস্তান ১,৯৩,০৬৫ ১,৩৯৯ ১,৮৯,৬৬৪
৯৯ ফিনল্যাণ্ড ১,৮৫,৬২২ ১,৩৩৫ ৪৬,০০০
১০০ কিরগিজস্তান ১,৮৩,২৮৫ ২,৭৪৩ ১,৭৮,১১২
১০১ আফগানিস্তান ১,৫৭,২৬০ ৭,৩৬৫ ১,৪০,৫৩০
১০২ মন্টিনিগ্রো ১,৫৬,৮৭৩ ২,২৮৫ ১,৫১,৮৫১
১০৩ মোজাম্বিক ১,৫১,৫২৪ ১,৯৪০ ১,৫১,৩৮২
১০৪ জিম্বাবুয়ে ১,৩৩,৯৯১ ৪,৭০৫ ১,২৮,৬৫৫
১০৫ সাইপ্রাস ১,৩১,৪৬২ ৫৯১ ১,২৪,৩৭০
১০৬ ঘানা ১,৩০,৯২০ ১,২০৯ ১,২৯,০৪২
১০৭ নামিবিয়া ১,২৯,১৮০ ৩,৫৭৩ ১,২৫,৪৮৩
১০৮ উগান্ডা ১,২৭,৪৮৫ ৩,২৫২ ৯৭,৮৪৭
১০৯ কম্বোডিয়া ১,২০,১১২ ২,৯৩৫ ১,১৬,৪৮৮
১১০ এল সালভাদর ১,১৯,৮০৩ ৩,৭৭১ ১,০২,৯৮২
১১১ ক্যামেরুন ১,০৬,৭৯৪ ১,৭৯১ ১,০২,৭১৬
১১২ রুয়ান্ডা ১,০০,৩৩০ ১,৩৪২ ৪৫,৫২১
১১৩ চীন ৯৮,৬৭২ ৪,৬৩৬ ৯৩,২৪৯
১১৪ মালদ্বীপ ৯১,৪৬৪ ২৫০ ৮৯,৪৩৪
১১৫ জ্যামাইকা ৯১,১৬৯ ২,৩৮৮ ৬২,৪৪৪
১১৬ লুক্সেমবার্গ ৮৯,০১০ ৮৭৪ ৮৩,৮৬৯
১১৭ সেনেগাল ৭৩,৯৮৭ ১,৮৮৫ ৭২,০৮৮
১১৮ লাওস ৭২,৪৪৭ ১৬৬ ৭,৩৩৯
১১৯ ত্রিনিদাদ ও টোবাগো ৭০,১৩৬ ২,১১৫ ৫৭,৫৪৪
১২০ অ্যাঙ্গোলা ৬৫,১৪৪ ১,৭৩৩ ৬৩,১৯৭
১২১ মালাউই ৬১,৮৯৭ ২,৩০৫ ৫৮,৭৬৫
১২২ আইভরি কোস্ট ৬১,৭০৮ ৭০৪ ৬০,৭০২
১২৩ রিইউনিয়ন ৫৯,০৪৮ ৩৮১ ৫৬,০৪০
১২৪ ড্যানিশ রিফিউজি কাউন্সিল ৫৮,১১৫ ১,১০৪ ৫০,৯৩০
১২৫ গুয়াদেলৌপ ৫৫,১৪৭ ৭৪৬ ২,২৫০
১২৬ ফিজি ৫২,৫০৬ ৬৯৬ ৫১,০৩৭
১২৭ সুরিনাম ৫০,৭৬০ ১,১৬৬ ২৯,৫৬৯
১২৮ সিরিয়া ৪৭,৯৬৫ ২,৭৩৯ ২৮,৯৮১
১২৯ ইসওয়াতিনি ৪৬,৫৩৮ ১,২৪৮ ৪৫,২৪১
১৩০ ফ্রেঞ্চ গায়ানা ৪৫,৮৬৪ ৩২৬ ১১,২৫৪
১৩১ ফ্রেঞ্চ পলিনেশিয়া ৪৫,৬০৯ ৬৩৬ ৩৩,৫০০
১৩২ মার্টিনিক ৪৪,৩১৮ ৭০০ ১০৪
১৩৩ মাদাগাস্কার ৪৪,০৭২ ৯৬৭ ৪২,৫৪৫
১৩৪ সুদান ৪২,০৫৬ ৩,১১৪ ৩২,৯০৫
১৩৫ মালটা ৩৯,৩২৯ ৪৬৮ ৩৭,৩৩২
১৩৬ মৌরিতানিয়া ৩৯,১৭৮ ৮৩১ ৩৭,৩৮০
১৩৭ কেপ ভার্দে ৩৮,৩৬২ ৩৫০ ৩৭,৯৪৬
১৩৮ গায়ানা ৩৭,৭৭৩ ৯৮৭ ৩৫,২৬৫
১৩৯ গ্যাবন ৩৭,২৯৮ ২৭৯ ৩২,০১৯
১৪০ পাপুয়া নিউ গিনি ৩৫,০২৯ ৫৪৫ ৩৩,৮২৮
১৪১ গিনি ৩০,৭৭০ ৩৮৭ ২৯,৭২৫
১৪২ বেলিজ ৩০,১৬৫ ৫৭০ ২৮,৪২১
১৪৩ তানজানিয়া ২৬,২৬১ ৭৩০ ১৮৩
১৪৪ টোগো ২৬,২৪১ ২৪৩ ২৫,৯০০
১৪৫ বার্বাডোস ২৫,০৩৮ ২২৫ ২১,১১৮
১৪৬ হাইতি ২৫,০২৭ ৭২৩ ২০,৯৭৩
১৪৭ বেনিন ২৪,৮৫০ ১৬১ ২৪,৫৪৬
১৪৮ সিসিলি ২৩,১৯৭ ১২৫ ২২,৫৯০
১৪৯ সোমালিয়া ২৩,০১৬ ১,৩২৭ ১২,০৪৬
১৫০ বাহামা ২২,৭৩৪ ৬৭১ ২১,৬০৪
১৫১ লেসোথো ২১,৭৬৮ ৬৬২ ১৩,৬৮৫
১৫২ মরিশাস ২১,৩৮৬ ৪৫৫ ১৯,৫৪৩
১৫৩ মায়োত্তে ২০,৯৩৮ ১৮৫ ২,৯৬৪
১৫৪ বুরুন্ডি ২০,৩৮৬ ৩৮ ৭৭৩
১৫৫ পূর্ব তিমুর ১৯,৮২২ ১২২ ১৯,৬৯৭
১৫৬ কঙ্গো ১৮,৮৩৭ ৩৪৯ ১২,৪২১
১৫৭ আইসল্যান্ড ১৭,৭৭০ ৩৫ ১৬,১৪৩
১৫৮ কিউরাসাও ১৭,৩৯৭ ১৭৮ ১৭,১০৬
১৫৯ মালি ১৭,৩৩৯ ৬০৫ ১৫,১২৮
১৬০ চ্যানেল আইল্যান্ড ১৭,৩২৬ ১০৩ ১৫,১৩৫
১৬১ নিকারাগুয়া ১৭,১৫২ ২০৯ ৪,২২৫
১৬২ তাজিকিস্তান ১৭,০৯৫ ১২৪ ১৬,৯৬৬
১৬৩ এনডোরা ১৬,৭১২ ১৩১ ১৫,৭৭০
১৬৪ তাইওয়ান ১৬,৫৯৬ ৮৪৮ ১৫,৬০৩
১৬৫ আরুবা ১৬,৩২৪ ১৭৪ ১৫,৯৭৮
১৬৬ বুর্কিনা ফাঁসো ১৫,৭১১ ২৮১ ১৫,২১১
১৬৭ ব্রুনাই ১৫,০৫৮ ৯৭ ১৪,৪৫১
১৬৮ ইকোয়েটরিয়াল গিনি ১৩,৫৭৯ ১৭৩ ১৩,৩২৩
১৬৯ জিবুতি ১৩,৫০৪ ১৮৬ ১৩,২৯১
১৭০ সেন্ট লুসিয়া ১২,৯৭৭ ২৮০ ১২,৫৮৫
১৭১ দক্ষিণ সুদান ১২,৭১৭ ১৩৩ ১২,৩৯৫
১৭২ হংকং ১২,৪৩১ ২১৩ ১২,১৩৩
১৭৩ নিউ ক্যালেডোনিয়া ১২,১৩৯ ২৭৬ ১১,৫৫১
১৭৪ সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক ১১,৭০৮ ১০১ ৬,৮৫৯
১৭৫ নিউজিল্যান্ড ১১,৪৪৪ ৪৩ ৫,৬৪৫
১৭৬ আইল অফ ম্যান ১১,১৫২ ৬৬ ১০,৪৬৬
১৭৭ ইয়েমেন ৯,৯৯৫ ১,৯৪৯ ৬,৮৭৩
১৭৮ গাম্বিয়া ৯,৯৮৯ ৩৪২ ৯,৬৩৮
১৭৯ ইরিত্রিয়া ৭,৩৪১ ৬০ ৭,০৮৪
১৮০ জিব্রাল্টার ৭,২০৩ ৯৮ ৬,৬৯৩
১৮১ নাইজার ৬,৯৫৮ ২৫৪ ৬,৫৪১
১৮২ কেম্যান আইল্যান্ড ৬,৭৩৮ ২,৫৫০
১৮৩ গিনি বিসাউ ৬,৪৪০ ১৪৮ ৬,২৬৮
১৮৪ সিয়েরা লিওন ৬,৪০১ ১২১ ৪,৩৯৩
১৮৫ ডোমিনিকা ৫,৯৫৫ ৩৮ ৫,৪৭৫
১৮৬ লাইবেরিয়া ৫,৯১৫ ২৮৭ ৫,৫২৩
১৮৭ গ্রেনাডা ৫,৮৮৮ ২০০ ৫,৬২২
১৮৮ সান ম্যারিনো ৫,৭৯০ ৯৩ ৫,৫১৯
১৮৯ বারমুডা ৫,৭৩০ ১০৬ ৫,৬০৩
১৯০ সেন্ট ভিনসেন্ট ও গ্রেনাডাইন আইল্যান্ড ৫,৫০০ ৭৪ ৪,৯৯১
১৯১ চাদ ৫,১০৫ ১৭৫ ৪,৮৭৪
১৯২ সিন্ট মার্টেন ৪,৫৭৫ ৭৫ ৪,৪৮০
১৯৩ লিচেনস্টেইন ৪,৫৬২ ৬১ ৪,১৩৯
১৯৪ কমোরস ৪,৪৯৮ ১৫০ ৪,২৮৪
১৯৫ অ্যান্টিগুয়া ও বার্বুডা ৪,১৪১ ১১৭ ৪,০০৮
১৯৬ সেন্ট মার্টিন ৩,৯৪৯ ৫৬ ১,৩৯৯
১৯৭ মোনাকো ৩,৭২৮ ৩৬ ৩,৫২৩
১৯৮ ফারে আইল্যান্ড ৩,৫০৫ ১৩ ৩,০৭৭
১৯৯ টার্কস্ ও কেইকোস আইল্যান্ড ৩,০৯৬ ২৪ ৩,০২১
২০০ ক্যারিবিয়ান নেদারল্যান্ডস ২,৮৮৯ ২২ ৬,৪৪৫
২০১ সেন্ট কিটস ও নেভিস ২,৭৮২ ২৮ ২,৭২৮
২০২ ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ২,৭৬৫ ৩৮ ২,৬৪৯
২০৩ ভুটান ২,৬৪০ ২,৬২০
২০৪ সেন্ট বারথেলিমি ১,৬০১ ৪৬২
২০৫ এ্যাঙ্গুইলা ১,৩৩৪ ১,২০৭
২০৬ গ্রীনল্যাণ্ড ১,৩৩২ ১,০১১
২০৭ ডায়মন্ড প্রিন্সেস (প্রমোদ তরী) ৭১২ ১৩ ৬৯৯
২০৮ ওয়ালিস ও ফুটুনা ৪৪৫ ৪৩৮
২০৯ ফকল্যান্ড আইল্যান্ড ৭৯ ৬৮
২১০ ম্যাকাও ৭৭ ৭৭
২১১ সেন্ট পিয়ের এন্ড মিকেলন ৫৯ ৩২
২১২ মন্টসেরাট ৪৪ ৪৩
২১৩ ভ্যাটিকান সিটি ২৭ ২৭
২১৪ সলোমান আইল্যান্ড ২০ ২০
২১৫ পশ্চিম সাহারা ১০
২১৬ জান্ডাম (জাহাজ)
২১৭ পালাও
২১৮ ভানুয়াতু
২১৯ মার্শাল আইল্যান্ড
২২০ সামোয়া
২২১ সেন্ট হেলেনা
২২২ টাঙ্গা
তথ্যসূত্র: চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন (সিএনএইচসি) ও অন্যান্য।
করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]