করোনাই কেবল ভালো আছে

মোস্তফা কামাল
মোস্তফা কামাল মোস্তফা কামাল , সাংবাদিক
প্রকাশিত: ০৯:৫৭ এএম, ০৫ মে ২০২১

করোনা নির্দোষে নিরপেক্ষতায়-নিরবচ্ছিন্নতায় যা করার করেই যাচ্ছে। দোষের পুরোভাগে সরকার। দোষী-দায়ী সাব্যস্ত করে বলা হচ্ছে, সরকারের ব্যর্থতার কারণেই কোভিড-নাইনটিন নামের ঘাতকটি দাপটের সঙ্গে চোখ রাঙিয়ে যাচ্ছে। সরকারের দোষেই এতো মৃত্যু-সংক্রমণ বাড়ছে। দোষী বিরোধীদলও। তাদের উল্টাপাল্টা ভূমিকায় মানুষ স্বাস্থ্যবিধিতে অনিহা দেখাচ্ছে। আবার সাধারণ মানুষও ব্যাপক দায়ী। তাদের অসচেতনতা ও স্বাস্থ্যবিধি না মানার কারণেই করোনাকে রোখা যাচ্ছে না।

নির্দোষের তো করণীয় কিছু থাকে না। তাই নিজে বহাল তবিয়তে ভালো থাকা ছাড়া করোনার করার কিছু নেই। ভালো থাকাই তার দায়িত্ব। সব করনীয় ও দায়িত্ব দায়ীদেরই। দায়ি পক্ষগুলোর সবাই দোষারোপে মত্ত। চরম উত্তেজিত-মারমুখীও। এক পক্ষ বলছে ‘মার্কেট খুলে দিয়ে সাড়ে সর্বনাশ করছে গন্ডার সরকার!’ আরেক পক্ষ বলছে, ‘মার্কেট না খুললে এতো মানুষ খাবে কী? চলবে কিভাবে? যুক্তিতে সবপক্ষই বড় কড়া। করোনাকে মোকাবেলা কারোই সাবজেক্ট-অবজেক্ট নয়। করোনার ফাঁকে চামেচুমে নিজে বাঁচাই সারকথা। নিজেকে ইনট্যাক্ট বা নিরাপদ রেখে বাদবাকিদের করোনাক্রান্তের তালিকায় ভাবার মানসিকতা একদম স্পষ্ট।

দিনপঞ্জিকা হিসাবে নিলে দেশে করোনাকাল চলছে বছর দেড়েক প্রায়। আর অর্থবছরের হিসাব ধরলে করোনা তিন বছর ছুঁই ছুঁই। দেশে করোনারোগী শনাক্ত হয় ২০১৯-২০ অর্থবছরের শেষ প্রান্তিকের ২০১৯ এর ৮ মার্চে। আর প্রথম মৃত্যু হয় এর ১০দিন পর ১৮ মার্চে। সেই থেকে মৃত্যু, আক্রান্ত, শনাক্ত, ওয়েভ, ভেরিয়েন্ট, লকডাউন, বিধিনিষেধের নানা রকমফের ও রেকর্ড। এবারের এপ্রিলে এসে মানুষের চলাচল, গণপরিবহন, যানবাহন ও ব্যবসা-বাণিজ্য চালু রাখার ক্ষেত্রে নানা বিধি-নিষেধ। কড়াকড়ি, শৈথিল্যের দফায় দফায় প্রজ্ঞাপন। নতুন অর্থবছর ২০২১-২২ শুরু হবে যথারীতি ১ জুলাই থেকে। অলৌকিক কিছু না ঘটলে করোনা তৃতীয় অর্থবছরের দুয়ারে। তার ভঅলো থাকারই আভাস। ২০২১-২২ অর্থবছরের জাতীয় বাজেট প্রণয়নের ছক-নকশা শেষ প্রায়। বাকি কেবল উপস্থাপন। এরপর অনুমোদন। প্রথা অনুযায়ী তা হবে জুনের মধ্যেই। সেই সময় পর্যন্ত করোনার অবস্থা খারাপ হবে বা সে চলে যাবে এমন কোনো আভাস এখন পর্যন্ত নেই। বরঞ্চ মহামারি করোনা তার সক্ষমতা হাড়ে হাড়ে বুঝিয়ে দিচ্ছে গোটা বিশ্বকে। রূপ আছে বলে তা বদলাচ্ছে। তেজি হচ্ছে।

আগে বিভিন্ন শতকে আসা কলেরা, ম্যালেরিয়া, প্লেগ ইত্যাদি মহামারি রূপ পাল্টে দুর্বল হয়েছে। আর করোনা রূপপাল্টে হচ্ছে আরো শক্তিধর। দৈনন্দিন জীবনে মানুষ চেতনে-অবচেতনে হাত দিয়ে কতো কাজ করে, হাত কতো জায়গায় নেয়- নিজেও জানে না। এসব কাজ করতে গিয়ে হাতে লাগে অসংখ্য জীবাণুর সংস্পর্শ। এতে প্রত্যেকের হাত প্রত্যেকের শত্রু হয়ে ওঠে। যার ফলে ছড়ায় নানা রোগবালাই। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, অনেক ক্ষেত্রেই সঠিক নিয়মে হাত ধোয়ার অভ্যাস একটি ভালো ভ্যাকসিনের চেয়েও বেশি কাজ করে। সেই বিবেচনায় হাত ধোয়া একটি সাশ্রয়ী স্বাস্থ্য অভ্যাস। হাত ধোয়ার অভ্যাস গড়ে উঠলে পানি ও মলবাহিত রোগগুলো বেশি দূর এগুতে পারে না।

করোনা মহামারি আপাতত আমাদের হাতমুখ ধোয়ার অভ্যাস গড়ে দিতে পেরেছে। আরো কিছু বদবৈশিষ্ট্যেও বাধ সাধতে পেরেছে। কোনো রাষ্ট্র তার নাগরিকদের অবিরাম বেত মেরে তাদের সভ্য বানাতে পারে না। নাগরিকদেরও সভ্য হওয়ার ইচ্ছা থাকতে হয়। সুস্থ থাকা ও রাখার চর্চাও করতে হয়। স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীর জনগণকে উদ্দেশ্য করে বলতে হয় হাত-মুখ ধুয়ে পয়পরিস্কার থাকতে। কোন তলানিতে জণসচেতনতা? জনগণের বোধ-বুদ্ধি? করোনাকালে প্রমান হয়েছে এতোদিন শিক্ষা মানুষকে দায়িত্ব সচেতন করেনি। সভ্য করেনি। আমরা মরতে চাই না, কিন্তু স্বর্গে যেতে চাই। বিষ গিলতে চাই। নিয়ম মানতে চাই না। কিন্তু করোনা থেকে সুরক্ষা চাই। হাঁচিকাশি দিতে দিতে, দাঁত খোঁচাতে-খোঁচাতে সরকারের ভুলত্রুটি ধরে ফেলছি।

ব্যক্তিপর্যায়ে মানুষকে সাফসতুর রাখার দায়িত্ব সরকারের নয়। সরকারের পক্ষে সেটা সম্ভবও নয়। নিজেরা ভাইরাস ছড়ালে, জন্ম দিলে সরকার কী করবে? যত্রতত্র থুতু ফেলা, পানের পিক ফেলা এবং নাক ঝাড়া বন্ধ করতে সরকারের আদেশ- অনুরোধ লাগছে। নিজেদের চারদিকসহ গোটা পরিবেশকে ভাইরাসের হ্যাচারি করে ফেলছেন কেউ কেউ। চিপসের প্যাকেট, প্লাস্টিকের বোতলসহ আবর্জনা ফেলে ভাইরাসের ভাগাড় তৈরি করলে সরকার বা রাষ্ট্র এখানে কী করবে? কব্জি ডুবিয়ে খাবো আমি, আর খাওয়ার পর সাবান দিয়ে কব্জি ডুবিয়ে হাত ধুয়ে দেবে আরেকজন? বা সরকার?

করোনাসহ নানা ভাইরাসের বিস্তার ঘটাতে আমরাই যথেষ্ট। আলামত এবং পারিপার্শ্বিকতায় জানাই ছিল করোনা থেকে বাংলাদেশ রেহাই পাবে না। কার সাথে কথা বলছি, ঘুরছি- একটুও ভ্রুক্ষেপ নেই। সেল্ফ কোয়ারেন্টাইন বুমেরাং হয়ে গেছে কবেই। স্বাভাবিক স্বাস্থ্যবিধিও মানতে নারাজ আমরা। করোনা মোকাবিলার নামে মাস্ক পরে ঘুরছি। আবার এক বিড়ি ফুঁকছি চারজনে। মাস্ক আর স্যানিটাইজার নিয়ে যে কাণ্ড ঘটছে তা আমাদের অভ্যাস বদলানোর বার্তা দেয় না। অমানবিক- পৈশাচিক বর্বরতাও বাদ দিচ্ছি না। এমন নিদানকালেও পরিবেশের বারোটা বাজাতে আমরা কমতি করেছি? হাট বাজারে, মাঠ ময়দানে যেভাবে বঙ্গসন্তানরা বীর বিক্রমে বাজার সওদা আর আহাম্মকের মতো নিশ্চিন্তে হেঁটে হেঁটে খোশগল্প করছি, তাতে পঙ্গপাল কেন, গোটা প্রকৃতিরই ভয় পেয়ে আইসোলেশনে চলে যাওয়ার দশা। হাত স্যানিটাইজের মতো মনটাকে স্যানিটাইজ করার গরজ আছে ক’জনের?

করোনায় গোটা বিশ্ব শেষ হয়ে যাবে, আমরা সবাই মরে যাবো- এমন কোনো বাজে আভাসও নই। বেঁচে যাওয়াদের কী হবে?-সেই নির্দেশনাও নেই। করোনা ঠেকাতে বাংলাদেশে লকডাউন তেমন ফলপ্রসূ কিছু নয়, সেটাও প্রমাণের বাকি নেই। গণপরিবহনে এখন আর স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। বাধ্যতামূলক মাস্ক পরা হচ্ছে না। শপিংমল, বাজারগুলোতে ভিড় আছে। কম-বেশি সভাসমাবেশও হচ্ছে। ধর্মীয় অনুষ্ঠান হচ্ছে। বিয়ে শাদী হচ্ছে। কিন্তু স্বাস্থ্যবিধি মানার কোন তোয়াক্কা নেই। ফলে যা হওয়ার তাই হচ্ছে। করোনা নির্দিধায় স্বস্তিতে ধেয়ে চলছে উল্লাসনৃত্যে।

লেখক : সাংবাদিক-কলামিস্ট; বার্তা সম্পাদক, বাংলাভিশন।

এইচআর/এমকেএইচ

করোনায় গোটা বিশ্ব শেষ হয়ে যাবে, আমরা সবাই মরে যাবো- এমন কোনো বাজে আভাসও নই। বেঁচে যাওয়াদের কী হবে?-সেই নির্দেশনাও নেই। করোনা ঠেকাতে বাংলাদেশে লকডাউন তেমন ফলপ্রসূ কিছু নয়, সেটাও প্রমাণের বাকি নেই। গণপরিবহনে এখন আর স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। বাধ্যতামূলক মাস্ক পরা হচ্ছে না। শপিংমল, বাজারগুলোতে ভিড় আছে। কম-বেশি সভাসমাবেশও হচ্ছে। ধর্মীয় অনুষ্ঠান হচ্ছে। বিয়ে শাদী হচ্ছে। কিন্তু স্বাস্থ্যবিধি মানার কোন তোয়াক্কা নেই। ফলে যা হওয়ার তাই হচ্ছে। করোনা নির্দিধায় স্বস্তিতে ধেয়ে চলছে উল্লাসনৃত্যে

করোনা ভাইরাস - লাইভ আপডেট

১৫,৯৯,৬১,৮৭৪
আক্রান্ত

৩৩,২৩,০৯২
মৃত

১৩,৮৬,০৭,৫৩১
সুস্থ

# দেশ আক্রান্ত মৃত সুস্থ
বাংলাদেশ ৭,৭৬,২৫৭ ১২,০০৫ ৭,১৫,৩২১
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ৩,৩৫,১৬,৮০৩ ৫,৯৬,২১২ ২,৬৫,০৭,৯০০
ভারত ২,৩২,৩৩,২৬৯ ২,৫২,৮২৪ ১,৯২,৫৯,৮০২
ব্রাজিল ১,৫২,১৪,০৩০ ৪,২৩,৪৩৬ ১,৩৭,৫৯,১২৫
ফ্রান্স ৫৭,৮০,৩৭৯ ১,০৬,৬৮৪ ৪৯,১৭,৩৯৩
তুরস্ক ৫০,৪৪,৯৩৬ ৪৩,৩১১ ৪৭,৪৩,৮৭১
রাশিয়া ৪৮,৯৬,৮৪২ ১,১৩,৯৭৬ ৪৫,০৯,৯১৫
যুক্তরাজ্য ৪৪,৩৭,২১৭ ১,২৭,৬০৯ ৪২,৫০,৬৯৯
ইতালি ৪১,১৬,২৮৭ ১,২৩,০৩১ ৩৬,১৯,৫৮৬
১০ স্পেন ৩৫,৮১,৩৯২ ৭৮,৮৯৫ ৩২,৭৪,৮০৮
১১ জার্মানি ৩৫,৩৮,৯২৭ ৮৫,৬২৩ ৩১,৯৬,৯০০
১২ আর্জেন্টিনা ৩১,৬৫,১২১ ৬৭,৮২১ ২৮,৩৭,০৫৮
১৩ কলম্বিয়া ৩০,১৫,৩০১ ৭৮,৩৪২ ২৮,৩৫,৫৫৪
১৪ পোল্যান্ড ২৮,৩৮,১৮০ ৭০,৩৩৬ ২৫,৮০,২৪৫
১৫ ইরান ২৬,৯১,৩৫২ ৭৫,৫৬৮ ২১,৪৪,১৯৭
১৬ মেক্সিকো ২৩,৬৬,৪৯৬ ২,১৯,০৮৯ ১৮,৮৮,৬৩৮
১৭ ইউক্রেন ২১,২৪,৫৩৫ ৪৬,৬৩১ ১৭,৭৭,৩৭০
১৮ পেরু ১৮,৫৩,৩৭০ ৬৪,৩৭৩ ১৭,২০,৬৬৫
১৯ ইন্দোনেশিয়া ১৭,২৩,৫৯৬ ৪৭,৪৬৫ ১৫,৮০,২০৭
২০ চেক প্রজাতন্ত্র ১৬,৪৬,৯৮১ ২৯,৭৪৯ ১৫,৮৩,৫৯০
২১ দক্ষিণ আফ্রিকা ১৫,৯৭,৭২৪ ৫৪,৮২৫ ১৫,১৭,৩৫০
২২ নেদারল্যান্ডস ১৫,৭১,৩৯৮ ১৭,৩৮৩ ১৩,৩৩,৩২৬
২৩ কানাডা ১২,৯৬,২৬২ ২৪,৬৯৭ ১১,৯২,৫৭৬
২৪ চিলি ১২,৫২,৮০৮ ২৭,৩১৮ ১১,৮৮,৮৩১
২৫ ইরাক ১১,২২,৯১৪ ১৫,৮৩৪ ১০,১৮,১৬৭
২৬ ফিলিপাইন ১১,১৩,৫৪৭ ১৮,৬২০ ১০,৩৮,১৭৫
২৭ রোমানিয়া ১০,৬৭,৮৮৭ ২৯,১৩৫ ১০,১৭,০৪৭
২৮ সুইডেন ১০,২১,৬০৪ ১৪,২১৭ ৮,৫৮,৮২৯
২৯ বেলজিয়াম ১০,১৭,৮৭৬ ২৪,৫৮৩ ৮,৮৮,৫৪৬
৩০ পাকিস্তান ৮,৬৪,৫৫৭ ১৯,১০৬ ৭,৬৬,৪৯২
৩১ পর্তুগাল ৮,৪০,০০৮ ১৬,৯৯৪ ৮,০১,৩০৬
৩২ ইসরায়েল ৮,৩৮,৯৯৬ ৬,৩৭৮ ৮,৩১,৭০৬
৩৩ হাঙ্গেরি ৭,৯২,৮৭৯ ২৮,৭৯২ ৫,৮৩,৮০২
৩৪ জর্ডান ৭,২০,৯৯৮ ৯,১২৫ ৭,০৫,৩৯২
৩৫ সার্বিয়া ৭,০২,৪৫১ ৬,৫৯৪ ৬,৬৬,৯৪৪
৩৬ সুইজারল্যান্ড ৬,৭৫,৬৭১ ১০,৭১৯ ৬,০৬,৯১০
৩৭ জাপান ৬,৪৫,৮১৭ ১০,৯৪১ ৫,৬৪,১২৮
৩৮ অস্ট্রিয়া ৬,৩২,৭৬৬ ১০,৪১৩ ৬,০৭,৭১২
৩৯ সংযুক্ত আরব আমিরাত ৫,৩৯,১৩৮ ১,৬১৭ ৫,১৯,৪০৫
৪০ লেবানন ৫,৩৩,১৪১ ৭,৫০৭ ৪,৮৭,১২৬
৪১ মরক্কো ৫,১৩,৯২২ ৯,০৭৭ ৫,০১,১৪৬
৪২ মালয়েশিয়া ৪,৪৮,৪৫৭ ১,৭২২ ৪,০৮,২৩৬
৪৩ সৌদি আরব ৪,২৮,৩৬৯ ৭,০৯৮ ৪,১২,১০২
৪৪ নেপাল ৪,১৩,১১১ ৪,০৮৪ ৩,১২,০১৯
৪৫ বুলগেরিয়া ৪,১১,২৮০ ১৭,০৪৫ ৩,৫১,৩৯৭
৪৬ ইকুয়েডর ৪,০২,০৬০ ১৯,২৪২ ৩,৪২,৮৭৮
৪৭ স্লোভাকিয়া ৩,৮৬,১৩৬ ১২,০৭৭ ৩,৬৮,৪৪৭
৪৮ বেলারুশ ৩,৭০,৫০৯ ২,৬৫২ ৩,৬০,৯১৬
৪৯ পানামা ৩,৬৭,৯০৮ ৬,২৭৭ ৩,৫৭,৩৫৩
৫০ গ্রীস ৩,৬৩,৯০৪ ১১,০৮৯ ৩,২৩,৪৫৮
৫১ কাজাখস্তান ৩,৪৬,৪৯৭ ৩,৯৪৮ ৩,০১,৮৫৭
৫২ ক্রোয়েশিয়া ৩,৪৫,৬২৩ ৭,৫৪৯ ৩,৩০,৩২৯
৫৩ আজারবাইজান ৩,২৭,৬০১ ৪,৭১৩ ৩,০৮,৩১৭
৫৪ জর্জিয়া ৩,২৪,২৫৬ ৪,৩৩৬ ৩,০৩,৬৭৯
৫৫ তিউনিশিয়া ৩,২১,৮৩৭ ১১,৪৬৮ ২,৭৯,৬৩৪
৫৬ বলিভিয়া ৩,১৮,৬১০ ১৩,২২৮ ২,৬১,৫৫২
৫৭ ফিলিস্তিন ৩,০২,২৪৯ ৩,৩৭৮ ২,৮৭,২০৬
৫৮ প্যারাগুয়ে ২,৯৯,৬৮৪ ৭,২০৯ ২,৪৮,৫৮৭
৫৯ কুয়েত ২,৮৬,০৪৬ ১,৬৫২ ২,৭০,৮৮৩
৬০ ডোমিনিকান আইল্যান্ড ২,৭২,১০৮ ৩,৫৪০ ২,৩১,৯৬৩
৬১ কোস্টারিকা ২,৭১,৪৭৮ ৩,৪৩০ ২,১৪,৭৮৮
৬২ ইথিওপিয়া ২,৬৩,১২০ ৩,৮৯৭ ২,১১,৪৯৩
৬৩ ডেনমার্ক ২,৬০,৯১৩ ২,৪৯৯ ২,৪৬,৯০৩
৬৪ লিথুনিয়া ২,৫৯,৮৬২ ৪,০৫৩ ২,৩৪,২২৩
৬৫ আয়ারল্যান্ড ২,৫৩,১৮৯ ৪,৯২১ ২,৩৬,০২৪
৬৬ মলদোভা ২,৫২,৭৯৮ ৫,৯৫৮ ২,৪৩,৭৩১
৬৭ স্লোভেনিয়া ২,৪৬,৭২৫ ৪,৩০২ ২,৩৩,৭৮৮
৬৮ মিসর ২,৩৮,৫৬০ ১৩,৯৭২ ১,৭৭,৪৪০
৬৯ গুয়াতেমালা ২,৩৫,৩০৪ ৭,৭৩৬ ২,১৪,৬০১
৭০ উরুগুয়ে ২,২২,৮৭০ ৩,১৭১ ১,৯৪,৯৬৪
৭১ হন্ডুরাস ২,২০,৯৮৮ ৫,৭০১ ৮১,৬৩৯
৭২ আর্মেনিয়া ২,১৯,৫৯৬ ৪,২৫৬ ২,০৫,৬৭৫
৭৩ কাতার ২,১১,৩৮৯ ৫১২ ২,০২,৫৫২
৭৪ ভেনেজুয়েলা ২,০৯,১৬২ ২,৩০৪ ১,৯২,০৭৫
৭৫ ওমান ২,০২,৭১৩ ২,১৪৮ ১,৮৬,৩৯১
৭৬ বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ২,০১,৫১২ ৮,৯১২ ১,৬৬,৮৮৭
৭৭ বাহরাইন ১,৯১,০১৮ ৬৯১ ১,৭৬,৩৩৮
৭৮ লিবিয়া ১,৮০,৬৯২ ৩,০৭৭ ১,৬৭,০৪৩
৭৯ নাইজেরিয়া ১,৬৫,৪৬৮ ২,০৬৫ ১,৫৬,৩১৮
৮০ কেনিয়া ১,৬৩,৬২০ ২,৯০৭ ১,১২,২৯৮
৮১ উত্তর ম্যাসেডোনিয়া ১,৫৪,০৫১ ৫,১০৯ ১,৩৮,৩৭০
৮২ মায়ানমার ১,৪২,৯৬৩ ৩,২১০ ১,৩২,০৪৫
৮৩ আলবেনিয়া ১,৩১,৭৫৩ ২,৪১৬ ১,১৮,০৪১
৮৪ শ্রীলংকা ১,২৮,৫৩০ ৮২৭ ১,০৫,৬১১
৮৫ দক্ষিণ কোরিয়া ১,২৮,২৮৩ ১,৮৭৯ ১,১৮,৭১৭
৮৬ এস্তোনিয়া ১,২৫,৬৯৬ ১,২০৬ ১,১৬,৬৪৮
৮৭ লাটভিয়া ১,২৪,৯৬০ ২,২১৭ ১,১৩,৪৩০
৮৮ আলজেরিয়া ১,২৪,২৮৮ ৩,৩৩৫ ৮৬,৫৫৪
৮৯ নরওয়ে ১,১৭,২৩৯ ৭৬৭ ৮৮,৯৫২
৯০ কিউবা ১,১৭,০৯৭ ৭৪১ ১,১০,৩১২
৯১ কিরগিজস্তান ৯৯,০৩৩ ১,৬৬৭ ৯২,১২০
৯২ মন্টিনিগ্রো ৯৮,৩৬৫ ১,৫৪৪ ৯৫,০৭০
৯৩ উজবেকিস্তান ৯৫,০৭২ ৬৬৪ ৯০,৬৬৪
৯৪ ঘানা ৯৩,০১১ ৭৮৩ ৯০,৬৯৭
৯৫ জাম্বিয়া ৯২,১১২ ১,২৫৭ ৯০,৫০১
৯৬ চীন ৯০,৭৮৩ ৪,৬৩৬ ৮৫,৮৪৫
৯৭ ফিনল্যাণ্ড ৮৮,৯৯০ ৯২৭ ৪৬,০০০
৯৮ থাইল্যান্ড ৮৬,৯২৪ ৪৫২ ৫৭,০৩৭
৯৯ ক্যামেরুন ৭৪,৯৪৬ ১,১৫২ ৭০,৪৯৭
১০০ এল সালভাদর ৭০,৩৮০ ২,১৫৮ ৬৫,৯২১
১০১ মোজাম্বিক ৭০,২৮৩ ৮২৫ ৬৭,৭৯৯
১০২ সাইপ্রাস ৬৯,৭০৮ ৩৩৭ ৩৯,০৬১
১০৩ লুক্সেমবার্গ ৬৮,৪৩১ ৮০৪ ৬৫,৪৬০
১০৪ আফগানিস্তান ৬২,৭১৮ ২,৭১৩ ৫৪,৫০৩
১০৫ সিঙ্গাপুর ৬১,৪০৩ ৩১ ৬০,৯৫৩
১০৬ নামিবিয়া ৫০,২০৯ ৬৯১ ৪৭,৩৮৪
১০৭ বতসোয়ানা ৪৯,০৪১ ৭৫১ ৪৬,২৯০
১০৮ জ্যামাইকা ৪৬,৭৮২ ৮০৯ ২২,৩৯৫
১০৯ আইভরি কোস্ট ৪৬,৪৪৩ ২৯১ ৪৫,৮৭৪
১১০ মঙ্গোলিয়া ৪৫,৯৩৬ ১৭৯ ৩৪,২৩০
১১১ উগান্ডা ৪২,৩৮৪ ৩৪৬ ৪১,৯৭১
১১২ সেনেগাল ৪০,৭২৯ ১,১২০ ৩৯,৪২৮
১১৩ মাদাগাস্কার ৩৯,৩৫১ ৭৩২ ৩৬,৬৩৩
১১৪ জিম্বাবুয়ে ৩৮,৪৩৩ ১,৫৭৬ ৩৬,২০৮
১১৫ মালদ্বীপ ৩৭,০১৯ ৮৭ ২৬,৫৪৭
১১৬ সুদান ৩৪,২৭২ ২,৪৪৬ ২৭,৯৪৯
১১৭ মালাউই ৩৪,১৮০ ১,১৫৩ ৩২,১৬৪
১১৮ মালটা ৩০,৪৬৪ ৪১৭ ২৯,৮৪৩
১১৯ ড্যানিশ রিফিউজি কাউন্সিল ৩০,৩৫০ ৭৭২ ২৬,৪৩৪
১২০ অস্ট্রেলিয়া ২৯,৯৩৮ ৯১০ ২৮,৮১৫
১২১ অ্যাঙ্গোলা ২৮,৮৭৫ ৬৩৬ ২৪,৭৭২
১২২ কেপ ভার্দে ২৬,৫৭৮ ২৩৫ ২৩,৪০২
১২৩ রুয়ান্ডা ২৫,৭১৪ ৩৩৮ ২৪,১৫৫
১২৪ গ্যাবন ২৩,৫৬৫ ১৪৩ ২০,০৫১
১২৫ সিরিয়া ২৩,৪৩৯ ১,৬৬৪ ১৯,০২৪
১২৬ গিনি ২২,৬৮৫ ১৫১ ২০,৩১৯
১২৭ রিইউনিয়ন ২১,৬০১ ১৫০ ১৯,৮৪৮
১২৮ ফ্রেঞ্চ গায়ানা ২০,৬৪৪ ১০৬ ৯,৯৯৫
১২৯ কম্বোডিয়া ২০,২২৩ ১৩১ ৮,১৭০
১৩০ মায়োত্তে ২০,১৩৪ ১৭০ ২,৯৬৪
১৩১ ফ্রেঞ্চ পলিনেশিয়া ১৮,৭৯৭ ১৪১ ১৮,৬১৭
১৩২ মৌরিতানিয়া ১৮,৬৯১ ৪৫৬ ১৭,৯১৮
১৩৩ ইসওয়াতিনি ১৮,৪৮২ ৬৭১ ১৭,৭৮৪
১৩৪ গুয়াদেলৌপ ১৫,৩৬০ ২১০ ২,২৪২
১৩৫ গায়ানা ১৪,৪৪২ ৩২৭ ১২,২৬৭
১৩৬ সোমালিয়া ১৪,৪১৫ ৭৪৭ ৬,১৯১
১৩৭ মালি ১৪,১১৫ ৫০২ ৯,০৩৯
১৩৮ ত্রিনিদাদ ও টোবাগো ১৩,৪৫৪ ২১৫ ৯,৩৮১
১৩৯ এনডোরা ১৩,৪৪৭ ১২৭ ১৩,০৭০
১৪০ বুর্কিনা ফাঁসো ১৩,৩৮২ ১৬২ ১৩,১৬৪
১৪১ তাজিকিস্তান ১৩,৩০৮ ৯০ ১৩,২১৮
১৪২ হাইতি ১৩,২২৭ ২৬৬ ১২,৩০৪
১৪৩ টোগো ১৩,১৬৭ ১২৫ ১১,৬৯৪
১৪৪ বেলিজ ১২,৭০০ ৩২৩ ১২,৩০৩
১৪৫ কিউরাসাও ১২,২৩৬ ১১৬ ১১,৯৭২
১৪৬ পাপুয়া নিউ গিনি ১২,০৮৬ ১২১ ১০,৫৯৯
১৪৭ হংকং ১১,৮১৩ ২১০ ১১,৫০৩
১৪৮ মার্টিনিক ১১,৫৫৮ ৮৩ ৯৮
১৪৯ জিবুতি ১১,৩৫৫ ১৪৯ ১১,১৩২
১৫০ কঙ্গো ১১,৩৪৩ ১৪৮ ৮,২০৮
১৫১ সুরিনাম ১১,২১৩ ২১৮ ৯,৮৩১
১৫২ বাহামা ১০,৯০৮ ২১৪ ৯,৮৫৪
১৫৩ আরুবা ১০,৭৮১ ১০২ ১০,৫৮৭
১৫৪ লেসোথো ১০,৭৭৩ ৩১৯ ৬,৪২৭
১৫৫ দক্ষিণ সুদান ১০,৬৪১ ১১৫ ১০,৪৬২
১৫৬ সিসিলি ৮,১৭২ ২৮ ৫,৬৫৮
১৫৭ বেনিন ৭,৮৮৪ ১০০ ৭,৬৫২
১৫৮ ইকোয়েটরিয়াল গিনি ৭,৬৯৪ ১১২ ৭,২৭৯
১৫৯ নিকারাগুয়া ৬,৯৮৯ ১৮৩ ৪,২২৫
১৬০ সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক ৬,৬৭৪ ৯৩ ৫,১১২
১৬১ আইসল্যান্ড ৬,৫২২ ২৯ ৬,৪০৯
১৬২ ইয়েমেন ৬,৪৮৫ ১,২৭৫ ৩,০০১
১৬৩ গাম্বিয়া ৫,৯২৯ ১৭৫ ৫,৫৯৮
১৬৪ নাইজার ৫,৩২২ ১৯২ ৪,৯০৪
১৬৫ সান ম্যারিনো ৫,০৮৩ ৯০ ৪,৯৬৮
১৬৬ চাদ ৪,৮৮২ ১৭১ ৪,৬৫৭
১৬৭ সেন্ট লুসিয়া ৪,৬৯০ ৭৫ ৪,৪৬১
১৬৮ জিব্রাল্টার ৪,২৯১ ৯৪ ৪,১৮৯
১৬৯ বুরুন্ডি ৪,২০০ ৭৭৩
১৭০ চ্যানেল আইল্যান্ড ৪,১১১ ৮৬ ৩,৯৬৫
১৭১ সিয়েরা লিওন ৪,০৮৯ ৭৯ ৩,০৯৩
১৭২ বার্বাডোস ৩,৯৪৬ ৪৫ ৩,৮৬১
১৭৩ কমোরস ৩,৮৬০ ১৪৬ ৩,৬৮৮
১৭৪ ইরিত্রিয়া ৩,৭৫৪ ১২ ৩,৬১৩
১৭৫ গিনি বিসাউ ৩,৭৪১ ৬৭ ৩,৪০০
১৭৬ ভিয়েতনাম ৩,৫৩৭ ৩৫ ২,৬১৮
১৭৭ পূর্ব তিমুর ৩,৩৫৩ ১,৬৮৩
১৭৮ লিচেনস্টেইন ২,৯৭৫ ৫৮ ২,৮৮৭
১৭৯ নিউজিল্যান্ড ২,৬৪৪ ২৬ ২,৫৯১
১৮০ মোনাকো ২,৪৮১ ৩২ ২,৪২০
১৮১ বারমুডা ২,৪৫১ ৩১ ২,১৭০
১৮২ টার্কস্ ও কেইকোস আইল্যান্ড ২,৪০২ ১৭ ২,৩৫৮
১৮৩ সিন্ট মার্টেন ২,২৬৩ ২৭ ২,২০৬
১৮৪ লাইবেরিয়া ২,১১৪ ৮৫ ১,৯৬২
১৮৫ সেন্ট ভিনসেন্ট ও গ্রেনাডাইন আইল্যান্ড ১,৯২২ ১২ ১,৭৪১
১৮৬ সেন্ট মার্টিন ১,৭৭৩ ১২ ১,৩৯৯
১৮৭ আইল অফ ম্যান ১,৫৯০ ২৯ ১,৫৫০
১৮৮ ক্যারিবিয়ান নেদারল্যান্ডস ১,৫৮২ ১৭ ৬,৪৪৫
১৮৯ লাওস ১,৩৬২ ২৯৭
১৯০ মরিশাস ১,২৫৭ ১৭ ১,১২৫
১৯১ ভুটান ১,২৪৭ ১,১০১
১৯২ অ্যান্টিগুয়া ও বার্বুডা ১,২৩৮ ৩২ ১,১৭৮
১৯৩ তাইওয়ান ১,২১০ ১২ ১,০৯৩
১৯৪ সেন্ট বারথেলিমি ৯৭৪ ৪৬২
১৯৫ ডায়মন্ড প্রিন্সেস (প্রমোদ তরী) ৭১২ ১৩ ৬৯৯
১৯৬ ফারে আইল্যান্ড ৬৬৮ ৬৬২
১৯৭ কেম্যান আইল্যান্ড ৫৪৮ ৫৩৭
১৯৮ তানজানিয়া ৫০৯ ২১ ১৮৩
১৯৯ ওয়ালিস ও ফুটুনা ৪৪৫ ৪৪
২০০ ব্রুনাই ২৩০ ২১৮
২০১ ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ২১৯ ১৯৩
২০২ ডোমিনিকা ১৭৫ ১৭৫
২০৩ গ্রেনাডা ১৬০ ১৫৮
২০৪ ফিজি ১৫২ ১০১
২০৫ নিউ ক্যালেডোনিয়া ১২৪ ৫৮
২০৬ এ্যাঙ্গুইলা ১০৯ ৮৯
২০৭ ফকল্যান্ড আইল্যান্ড ৬৩ ৬৩
২০৮ ম্যাকাও ৪৯ ৪৯
২০৯ সেন্ট কিটস ও নেভিস ৪৫ ৪৪
২১০ গ্রীনল্যাণ্ড ৩১ ৩১
২১১ ভ্যাটিকান সিটি ২৭ ১৫
২১২ সেন্ট পিয়ের এন্ড মিকেলন ২৫ ২৫
২১৩ মন্টসেরাট ২০ ১৯
২১৪ সলোমান আইল্যান্ড ২০ ২০
২১৫ পশ্চিম সাহারা ১০
২১৬ জান্ডাম (জাহাজ)
২১৭ মার্শাল আইল্যান্ড
২১৮ ভানুয়াতু
২১৯ সামোয়া
২২০ সেন্ট হেলেনা
তথ্যসূত্র: চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন (সিএনএইচসি) ও অন্যান্য।
করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]