নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারে সরকার চাপ প্রয়োগ করবে না : ড. রাজ্জাক


প্রকাশিত: ০২:০৯ এএম, ১১ জুন ২০১৭
ফাইল ছবি

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক খাদ্যমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, আগামী নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারে সরকার চাপ প্রয়োগ করবে না। তবে নির্বাচন কমিশন সর্বাধুনিক এই প্রযুক্তি ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিলে আওয়ামী লীগ স্বাগত জানাবে।

শনিবার এফডিসিতে ‘ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি’র আয়োজনে নির্বাচনে ইভিএমের ব্যবহার বিষয়ক এক সংসদীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতায় সম্মানিত অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

‘ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি’র চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণের সভাপতিত্বে বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান।

ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশন স্বাধীন। নির্বাচনের ক্ষেত্রে সে স্বাধীনভাবে তার ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারে। কমিশনকে সর্বোচ্চ নৈতিক শক্তি দিয়ে এই ক্ষমতা প্রয়োগ করতে হবে।

নির্বাচন-সহায়ক সরকার সম্পর্কে তিনি বলেন, বিএনপি এ বিষয়ে দাবি করলেও এখন পর্যন্ত এ ধরনের সরকারের কোনো রূপরেখা উপস্থাপন করেনি। তবে আগামী নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক করতে সরকার সব ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করবে বলেও তিনি জানান।

ড. আবদুল মঈন খান বলেন, বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন এখন পর্যন্ত ইভিএমের ব্যবহার বা ইভিএম মেশিন রাজনৈতিক দলগুলোর নিকট উন্মুক্ত করেনি। যে কারণে এ মেশিনের কার্যকারিতায় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা সম্পর্কে কেউ জানে না।

অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির শীর্ষ এ দুই নেতা বিভিন্ন ক্ষেত্রে দ্বিমত প্রকাশ করলেও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু, গ্রহণযোগ্য ও অংশগ্রহণমূলক করার পক্ষে অভিমত ব্যক্ত করেন।

প্রতিযোগিতায় সরকারি দল হিসেবে ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিক ও বিরোধী দল হিসেবে প্রাইম ইউনিভার্সিটি অংশগ্রহণ করে। এতে বিরোধী দল বিজয়ী হয়। বিচারক ছিলেন অধ্যাপক আবু মোহাম্মদ রইস, অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস এবং যোগাযোগ বিশেষজ্ঞ ড. এস এম মোর্শেদ। প্রতিযোগিতা শেষে বিতার্কিকদের সার্টিফিকেট ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

এফএইচএস/বিএ/ওআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :