শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা বিএনপির

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:২৪ পিএম, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৩:৩৩ পিএম, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেছেন, আমরা শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করব। এছাড়া আগামী দিনে দেশে যাতে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হয় সেই দাবিও আদায় করব।

বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে অনুষ্ঠিত অনশন কর্মসূচিতে তিনি এসব কথা বলেন।

মওদুদ বলেন, ‘একটা ভুয়া, বানোয়াট মামলায় খালেদা জিয়াকে সাজা দেয়া হয়েছে। আমরা এ রায় মানি না। এটা জনগণের রায় নয়। এ রায় হলো তাকে রাজনৈতিকভাবে দুর্বল করার জন্য। কিন্তু তিনি দুর্বল হবেন না।’

বিএনপির এ নীতিনির্ধারক বলেন, শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে আমরা দেশনেত্রীকে মুক্ত করে আনব, ইনশাল্লাহ।

স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেন, দেশে স্বাধীনতা, গণতন্ত্র ও বাক-স্বাধীনতা নাই। খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে এবং নির্দলীয় সরকারের দাবি আদায়ের জন্য আন্দোলন চলবে।

দলের মহাসচিবকে অনুরোধ করে বিএনপির এ নীতিনির্ধারক বলেন, খালেদা জিয়াকে চারদিন ধরে যারা অবৈধভাবে ডিভিশন দেয়নি তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হোক। আইনি প্রক্রিয়ায় বিষয়টি মোকাবেলা করা হোক।

স্থায়ী কমিটির অপর সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, পুলিশের অনুরোধে দুপুর ১টার মধ্যে আমরা কর্মসূচি শেষ করছি। তারা (আওয়ামী লীগ) খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে বিএনপিকে দুর্বল করে নির্বাচন করতে চায়। কিন্তু খালেদা জিয়া এবং বিএনপিকে ছাড়া এদেশে নির্বাচন করতে দেয়া হবে না।

বিএনপির শীর্ষ এ নেতা বলেন, ‘সরকারকে বলতে চাই, দেশনেত্রীকে নিয়ে যে খেলা আপনারা করছেন সেই খেলা আগুন নিয়ে। আপনারা আগুনে হাত দিয়েছেন। নেত্রীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে। সেই ষড়যন্ত্র ধ্বংস করে দেশনেত্রীকে মুক্ত করে দাবি আদায় করা হবে।’

প্রশাসনকে উদ্দেশ্য করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আমরা আমাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি শেষ করছি। দয়া করে আপনারা পরিবেশ খারাপ করবেন না।

অনশন কর্মসূচিতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, নিতাই রায় চৌধুরী, এ জেড এম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদীন ফারুক, আতাউর রহমান ঢালী, হাবিবুর রহমান হাবিব, যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, সহ-প্রচার সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীমসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

২০ দলীয় জোট নেতাদের মধ্যে বিজেপির আন্দালিব রহমান পার্থ, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির সৈয়দ মোহাম্মদ ইব্রাহিম (বীর প্রতীক), জাগপার খন্দকার লুৎফর রহমান, ন্যাপের গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া, ডেমোক্রেটিক লীগের সাইফুদ্দিন মনি, মুসলিম লীগের শেখ জুলফিকার বুলবুল চৌধুরী, জাপার মোস্তফা জামাল হায়দার ও আহসান হাবিব লিংকন, ইসলামী ঐক্যজোটের মাওলানা ইসহাক, জাতীয় দলের সৈয়দ এহসানুল হুদা, লেবার পার্টির মোস্তাফিজুর রহমান ইরান ও এলডিপির শাহাদাৎ হোসেন সেলিম প্রমুখ অনশনে অংশ নেন।

এর আগে একই দাবিতে সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন এবং মঙ্গলবার রাজধানীর নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে বিএনপি।

এমএম/এমএমজেড/এমএআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :