যে মামলায় খালেদা জিয়ার সাজা তা গ্রহণযোগ্য নয় : ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:১৬ পিএম, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৬:০০ পিএম, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ক্ষমতা হারানোর ভয়ে অনির্বাচিত, অনৈতিক ও অবৈধ সরকার তাদের নীলনকশা বাস্তবায়নে সম্পূর্ণ মিথ্যা ও সাজানো মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসনকে কারাগারে পাঠিয়েছে। যে মামলায় তাকে এ সাজা দেয়া হয়েছে তা কখনোই গ্রহণযোগ্য নয়।

সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সাজা দেয়ার প্রতিবাদ ও তার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আসন্ন নির্বাচনে খালেদা জিয়া বাইরে থাকলে আওয়ামী লীগ জয়ী হতে পারবে না সেটা ভালো করে জেনেই তাকে (খালেদা জিয়া) নির্জন অন্ধকার ঘরে রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, বিচার বিভাগ দলীয়করণ করে খালেদা জিয়াকে সাজা দেয়ার পরও ক্ষমতাসীনরা আইনের ন্যূনতম বিচার বিধান পালন করছে না। রায়ের পাঁচদিনের মধ্যে সার্টিফাইড কপি দেয়ার নিয়ম থাকলেও এখন পর্যন্ত দেয়া হয়নি।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, বর্তমান সরকার দেশের মানুষের ওপর অত্যাচার নির্যাতনের স্ট্রিমরোলার চালাচ্ছে। প্রতিনিয়ত গুম-খুন করা হচ্ছে। শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংস হয়ে গেছে, প্রতিদিনেই প্রশ্ন ফাঁস হচ্ছে? হাজার হাজার টাকা লুট করে বিদেশে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। তাদের বিচার করা হচ্ছে না কারণ এ লুটপাটের সঙ্গে ক্ষমতাসীন সরকার জড়িত।

মির্জা ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়া ও দেশ আজ একাকার। খালেদা জিয়ার সঙ্গে গণতন্ত্র একে অপরের পরিপূরক। তাই খালেদা জিয়া ও গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ সোচ্চার হতে হবে। জনগণের শক্তি দিয়ে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনতে হবে। একটি অবাধ সুষ্ঠু নিরপক্ষে সরকার প্রতিষ্ঠা করে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

মহিলা দলের সভানেত্রী আফরোজা আব্বাসের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে আরও বক্তব্যে দেন মহিলা দলের নেত্রী নিলুফার চৌধুরী মনি, শাম্মী আক্তার, ইয়াসমিন আরা হক, নেওয়াজ হালিমা আর্লী, হেলেন জেরিন খান, শামসুন্নাহার ভূঁইয়া, আমেনা খাতুন প্রমুখ।

এমএম/এমবিআর/পিআর