নেতাকর্মীদের গ্রেফতার এড়িয়ে চলার পরামর্শ নজরুলের

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:২১ পিএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮

নেতাকর্মীদের গ্রেফতার এড়িয়ে আগামী দিনের সংগ্রামে অংশ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

তিনি বলেন, আপনাদের সবার কাছে অনুরোধ, আমি দেখলাম একজন একটা ম্যাসেজ পাঠিয়েছে.. অনেকের কাছে পাঠিয়েছে, আপাতত ধরা-টরা পইড়েন না, সাবধানে থাকেন। আন্দোলন-সংগ্রাম সামনে আসছে তখন যাতে সেই সংগ্রামে সক্রিয়ভাবে অংশ নিতে পারেন। একই আহ্বান আপনাদের প্রতি।

সোমবার সন্ধ্যায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার এবং তার বিশেষ সহকারী শিমুল বিশ্বাসের মুক্তি ও চিকিৎসা দাবিতে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে একথা বলেন তিনি।

নজরুল ইসলাম বলেন, মানুষ যখন ঐক্যবদ্ধ হয় তখন কোনো বাধাই তাকে আটকাতে পারে না। বাংলাদেশের মানুষ গত প্রায় ১০ বছর ধরে যেভাবে নির্যাতিত হয়েছে, নিষ্পেষিত হয়েছে, অত্যাচারিত হয়েছে ও বঞ্চিত হয়েছে তাতে বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে সেই ধরনের একটা ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

তিনি বলেন, মনে রাখতে হবে যে, বিরাট পরিমাণের একটা বারুদের স্তুপ যদি এক জায়গায় রাখে সেটা কোনা ক্ষতি করতে পারে না। যে পর্যন্ত তাতে আগুনের স্ফুলিংগ নিক্ষেপ করা না হয়। আজকে বাংলাদেশের বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের হৃদয়ে বারুদের স্তুপ জমেছে।

নজরুল বলেন, এই বারুদ বিস্ফোরিত হওয়ার অপেক্ষায় আছে। সেটা কখন কিভাবে বিস্ফোরিত হবে সেটা সময়ই বলে দিবে।

দেশের সব রাজনৈতিক দল ও সংগঠন লেভেল প্লেইং ফিল্ডের কথা বলছে বলে উল্লেখ করে ক্ষমতাসীনদের উদ্দ্যেশে বিএনপির এই নেতা বলেন, আপনারা এমপি থেকে নির্বাচন করবেন আর আমরা এমপি না হয়ে ইলেকশন করব এটা লেভেল প্লেইং ফিল্ড হল নাকি? কাজেই সংসদ বাতিল করতে হবে। নির্দলীয় সরকার করতে হবে। নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন করতে হবে। নির্বাচনে শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য সেনা বাহিনী নিয়োগ করতে হবে। আর খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে।

পরিবেশ দূষণে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা যাচ্ছে উল্লেখ করে নজরুল ইসলাম বলেন, গত ১০ বছরে রাজনৈতিক দূষণে যে পরিমাণ মানুষ বাংলাদেশে মারা গেছেন, তার পরিসংখ্যান করা হলে শুধু দক্ষিণ এশিয়ায় নয়, বিশ্বের মধ্যে এক নম্বর হবে বাংলাদেশ।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র নেতাদের আয়োজনে প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন সাবেক ছাত্রদল নেতা মামুনুর রশিদ শান্ত। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ছাত্রদলের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শহীদুল ইসলাম বাবুল, শ্রমিক নেতা হুমায়ুন কবির, সাবেক ছাত্র নেতা আব্দুল বারী ড্যানি, ছাত্রদলের সহসভাপতি এজমল হোসেন পাইলট, নাজমুল হাসান প্রমুখ।

কেএইচ/জেএইচ/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :