ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং ও সমন্বয় কমিটি গঠন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:১৬ এএম, ২০ অক্টোবর ২০১৮

পলিসি নির্ধারণে স্টিয়ারিং কমিটি ও একটি কো-অর্ডিনেশন কমিটি গঠন করেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। পাশাপাশি আগামী ২৪, ২৬, ২৭ ও ৩০ অক্টোবরের জন্য কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

শুক্রবার (১৯ অক্টোবর) রাজধানীর ধানমন্ডিতে নাগরিক ঐক্যের এক নেতার বাসায় অনুষ্ঠিত জোটের বৈঠকে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয় বলে বৈঠকে উপস্থিত একাধিক নেতা জানিয়েছেন।

তারা জানান, জোটের নীতি নির্ধারণে অলিখিতভাবে ড. কামাল হোসেন থাকছেন। তিনি সুবিধা মতো স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠকে অংশ নেবেন। এ কমিটিতে থাকছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেনও থাকছেন এ কমিটিতে।

নেতাদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, কমিটির সদস্য হলেন-বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব, সিনিয়র সহ-সভাপতি মিসেস তানিয়া রব, সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন, জাতীয় গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু, ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, কেন্দ্রীয় নেতা শহীদুল্লাহ কায়সার, মমিনুল ইসলাম ও ডা. জাহেদ উর রহমান।

বৈঠকে উপস্থিত নেতাদের ভাষ্যমতে স্টিয়ারিং কমিটির নেয়া সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে একটি কো-অর্ডিনেশন কমিটি গঠন করা হয়েছে। ওই কমিটিতে আছেন বিএনপির বরকতউল্লাহ বুলু, মো. শাহজাহান, মনিরুল হক চৌধুরী ও হাবিবুর রহমান হাবিব, নাগরিক ঐক্যের শহীদুল্লাহ কায়সার, মমিনুল ইসলাম ও ডা. জাহেদ উর রহমান, জেএসডির মিসেস তানিয়া রব, আবদুল মালেক রতন ও শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার আ ও ম শফিকুল্লাহ, জগলুল হায়দার আফ্রিক ও মোস্তাক আহমেদ।

জোট নেতারা জানিয়েছেন, আগামী ২৩ অক্টোবর সিলেটে যে কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছিল তা ২৪ অক্টোবর পালন করা হবে। সিলেটে শাহজালার (রহ.) এর মাজার জিয়ারতের মাধ্যমে ওই কর্মসূচি শুরু হবে। এছাড়া আগামী ২৬ অক্টোবর ঢাকায় সুধী সমাবেশ এবং ২৭ অক্টোবর চট্টগ্রামে ও ৩০ অক্টোবর রাজশাহীতে সমাবেশের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

তারা আরও জানিয়েছেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আগামী কর্মসূচিগুলোতে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের জামায়াত ছাড়া বাকি সব শরিকদের আমন্ত্রণ জানানো হবে। গণফোরামের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আগামী রোববার জাতীয় ঐকফ্রন্টের পরবর্তী সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিষ্টার মওদুদ আহমেদ, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, সিনিয়র সহ-সভাপতি তানিয়া রব, ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ, নাগরিক ঐক্যের কেন্দ্রীয় নেতা শহীদুল্লাহ কায়সার, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী প্রমুখ।

এইউএ/এমএমজেড/এএইচ

আপনার মতামত লিখুন :