এক আসনে এরশাদ-হুদা-ফারুক-পার্থ, মাহীর প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৪৭ পিএম, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮

 ঢাকা -১৭ (গুলশান,বনানী, ভাষানটেক, ক্যান্টনমেন্ট ) আসন থেকে মনোনয়ন প্রত্যাহার করলেন বিকল্পধারার প্রার্থী মাহী বি. চৌধুরী। রোববার ঢাকায় সেগুনবাগিচায় রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে তিনি এ আসন থেকে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেন। তবে তিনি মুন্সিগঞ্জ-১ আসনে মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করবেন।

মাহীর প্রত্যাহারের পরও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ লড়াই হচ্ছে ঢাকা-১৭ আসনে। এই আসনে লড়ছেন আওয়ামী লীগ থেকে মনোনীত চিত্রনায়ক আকবর হোসেন পাঠান ফারুক, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ (লাঙ্গল প্রতীকে), তৃণমূল বিএনপির সভাপতি ও বিএনপির সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির (বিজেপি) আন্দালিব রহমান পার্থ।

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটে ২৯ আসন পেয়েছে জাতীয় পার্টি। অপরদিকে জাতীয় পার্টি ১৩২ আসনে দলীয়ভাবে প্রার্থী দিয়েছে। এতে ঢাকা-১৭ আসনে এইচ এম এরশাদকে প্রার্থী করা হয়েছে।

রোববার ঢাকা জেলা বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে লাঙ্গল প্রতীক চেয়ে চিঠি পাঠিয়েছেন এরশাদ। ২০০৮ সালে ঢাকা-১৭ আসনে মহাজোটের প্রার্থী হয়ে জয়লাভ করেছিলেন এরশাদ। তবে ২০১৪ সালের নির্বাচনে এরশাদ ঢাকার এ আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিলেও পরে তা প্রত্যাহার করেন। তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন রংপুরের একটি আসন থেকে। ঢাকা-১৭ আসনে মহাজোটের প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ এমপি ছিলেন।

ভোলায় ধানের শীষে নির্বাচন করা বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির (বিজেপি) আন্দালিব রহমান পার্থ এবারই প্রথম থাকছেন এই আসনে। শনিবার বিকেলে তাকে এ আসনে মনোনয়ন দেয়া হয়।

নানা জল্পনা-কল্পনার পর এই আসনে আরও লড়ছেন দুদকের মামলায় চার বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত তৃণমূল বিএনপির সভাপতি ও বিএনপির সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা।

প্রথমে তার মনোনয়নপত্র অবৈধ ঘোষণা করা হয়। বাতিল হওয়া মনোনয়নপত্রের আপিল নিষ্পত্তির শেষ দিনে শনিবার শুনানি শেষে তার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়।

এআর/জেডএ/জেআইএম