‘প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন বলতে কিছুই অবশিষ্ট নেই’

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৭:১০ পিএম, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সভায় গৃহীত প্রস্তাবে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন বর্জনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। প্রস্তাবে বলা হয়েছে, ৩০ ডিসেম্বরের নজিরবিহীন ভোট জালিয়াতি আর ভোট ডাকাতির পর নির্বাচনের সামান্যতম বিশ্বাসযোগ্যতাকেও ধ্বংস করা হয়েছে। দেশে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন বলতে আর কিছুই অবশিষ্ট নেই। এই প্রেক্ষিতে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের মতো উপজেলা পরিষদ নির্বাচনও পুরোপুরি অর্থহীন হয়ে পড়েছে।

শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সেগুনবাগিচায় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা আনছার আলী দুলালের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, কেন্দ্রীয় নেতা বহ্নিশিখা জামালী, আকবর খান, আবু হাসান টিপু, সজীব সরকার রতন, এ্যাপোলো জামালী, মাহমুদ হোসেন, শাহাদাৎ হোসেন খোকন, খলিলুর রহমান, স্নিগ্ধা সুলতানা ইভা, শেখ মো. শিমুল, ইমরান হোসেন, হালিমা খাতুন প্রমুখ।

এতে আরও বলা হয় সরকার ও নির্বাচন কমিশন মিলে গোটা নির্বাচনী ব্যবস্থাকে নষ্ট করে দিয়েছে। সে কারণে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনও জাতীয় নির্বাচনের মতো আর একটি তামাশায় পর্যবসিত হতে যাচ্ছে।

প্রস্তাবে জনগণের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা করে গণতান্ত্রিক জবাবদিহীমূলক ও শক্তিশালী স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলন গড়ে তোলারও সিদ্ধান্ত হয়। অপর এক প্রস্তাবে মারাত্মক সব সড়ক দুর্ঘটনায় ধারাবাহিক মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করা হয় এবং বলা হয় সড়কের নৈরাজ্যের কারণে বছরে হাজারও মানুষের প্রাণহানি ঘটছে।

এফএইচএস/এএইচ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :