গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে, জনগণের একটু অসুবিধা হতে পারে : তাপস

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:১১ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০২০

সিটি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গণজোয়ার সৃষ্টি হওয়ায় জনগণের একটু অসুবিধা হতে পারে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শেখ ফজলে নূর তাপস।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর ধোলাইপাড়ে নির্বাচনী প্রচারণা শুরুর আগে এ কথা জানান তিনি। আগামী ৩০ জানুয়ারি বিপুল ভোটে নৌকার বিজয় হবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তাপস।

তিনি বলেন, ‘ব্যাপক স্বতঃস্ফূর্ত সাড়া আমরা ঢাকাবাসীর কাছ থেকে পাচ্ছি। আমরা পাঁচটিভাগে ভাগ করে উন্নয়নের যে রূপরেখা দিয়েছি ঢাকাবাসী সেটা সাদরে গ্রহণ করছে। তারা স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করছে প্রচারণায় এবং আমাদের অনেক ভালবাসায় আলিঙ্গণ করে নিচ্ছেন।’

‘আমরা বিশ্বাস করি আগামী ৩০ জানুয়ারি বিপুল ভোটে নৌকার বিজয় হবে। আমরা ঢাকাবাসীর প্রত্যাশা পূরণে দায়িত্ব পাওয়ার প্রথম দিন থেকেই কাজ আরম্ভ করব এবং একটি উন্নত ঢাকা গড়ব।’

taposh-1.jpg

কোথাও কোথাও অতি উৎসাহী কর্মীরা আচরণবিধি লঙ্ঘণ করছেন- এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তাপস বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি, আমাদের নির্বাচন পরিচালনা কমিটিও এগুলো মনিটর করছে, কোনোরকম যেন কোনো আচরণবিধি লঙ্ঘন না হয়। সেদিকে আমরা খুব সচেতন ও সজাগ দৃষ্টি রাখছি। যেখানে যেটা আমরা জানতে পাচ্ছি, সাথে সাথে ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

কোনো কোনো কর্মী রাস্তা বন্ধ করে ফেলছে, বেলা ২টার আগে মাইক বাজাচ্ছে- এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বলেন, ‘আমি তো বলেছি, আমরা চেষ্টা করছি, আমাদের নির্বাচন পরিচালনা কমিটিও সার্বিকভাবে কাজ করছে। এলাকাভিত্তিক যে কমিটি করে দিয়েছি, তারাও চেষ্টা করছে। তারপরও যে একটি বিশাল উৎসাহ-উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে, গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে, এজন্য হয়তো জনগণের একটু অসুবিধা হতে পারে, যা হোক আমরা এই বিষয়টি আরও সচেতনভাবে দেখব।’

‘আমি যেখানেই যাচ্ছি, আমি সবাইকে নির্দেশনা দিচ্ছি- যাতে সুশৃঙ্খলভাবে তারা (প্রচারণায়) অংশগ্রহণ করে, জনগণের যাতে কোনো ভোগান্তি না হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘একটি উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচনের আমেজ বজায় রয়েছে। আমরা আশা করি, খুব সুষ্ঠুভাবে নির্বাচনটি সম্পন্ন হবে। প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ অংশগ্রহণমূলক ও উৎসবমুখর নির্বাচন হবে।’

ভোটের দিন স্বরস্বতী পূজা থাকায় একটি বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। প্রার্থী হিসেবে আপনি বিষয়টি কীভাবে দেখছেন? এ প্রশ্নে ফজলে নূর তাপস বলেন, ‘প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পরই আমি নির্বাচনী কার্যক্রম আরম্ভ করেছি। এখন গণসংযোগ করছি।

taposh-5.jpg

আসলে আমি দুঃখিত যে এই বিষয়টি কেন আগে থেকে নির্ধারণ করা হয়নি। আমরা যতটুকু জানি, নির্বাচন কমিশন আলাপ করেছিল, কিন্তু পঞ্জিকা অনুযায়ী এটা হয়তো একটু ভুল হয়ে গেছে।’

ডিএসসিসিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বলেন, ‘যা হোক তাদের (হিন্দু ধর্মাবলম্বী) প্রতি আমার সমবেদনা রয়েছে, সহমর্মিতা রয়েছে। কিন্তু নির্বাচনের তারিখ যেহেতু নির্ধারিত আমরা প্রার্থী হিসেবে তো গণসংযোগ চালিয়ে যেতে হবে। আমি আশা করব, সবাই সেটাতে (নির্বাচনে) অংশগ্রহণ করবেন।’

ধোলাইপাড়ে মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের ঢাল থেকে বেলা ১১টায় প্রচারণা শুরু করার কথা থাকলেও তাপস আসেন ১২টায়। এর আগেই সেখানকার ধোলাইপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে অবস্থান করছিলেন আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, সানজিদা খানম, ডিএসসিসির ৫১ নম্বর ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থী কাজী হাবিবুর রহমান হাবুসহ অন্যান্য নেতারা ও বিপুল সংখ্যক কর্মী। স্লোগানে পুরো এলাকা মাতিয়ে রাখেন আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা।

ধোলাইপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার পর নেতাকর্মীতের সঙ্গে নিয়ে ৫১ নম্বর ওয়ার্ডে গণসংযোগ চালান ফজলে নূর তাপস।

আরএমএম/জেডএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]