পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্ত শহীদদের প্রতি বিশ্বাসঘাতকতা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৫:১১ পিএম, ০৪ জুলাই ২০২০

রাষ্ট্রীয় পাটকল বন্ধের সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে সিপিবি নেতৃবৃন্দ পাটকলসমূহ বন্ধের সরকারি সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে একে জাতি ও মুক্তিযুদ্ধের ৩০ লাখ শহীদদের প্রতি বিশ্বাসঘাতকতা বলে আখ্যায়িত করেন। নেতৃবৃন্দ বলেন, মুক্তিযুদ্ধের পর দেশের প্রধান শিল্প পাটকলসমূহ রাষ্ট্রায়ত্তকরণ করা ছিল ৫৪’র যুক্তফ্রন্ট্রের ২১-দফা ও ৬৯’র গণঅভ্যুত্থানে ছাত্র সমাজের ১১-দফার অন্যতম অঙ্গীকারের বাস্তবায়ন। গত ৪০ বছর ধরে ক্ষমতাসীন সরকারগুলো এশিয়ার বৃহত্তম পাটকল আদমজীসহ সকল পাটকল বন্ধ বা বেসরকারিকরণ করে সে অঙ্গীকারকে পদদলিত করেছে।

সিপিবির কেন্দ্রীয় কমিটির সহকারী সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দনের সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক আহসান হাবীব লাবলু, রুহিন হোসেন প্রিন্স, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সাদেকুর রহমান শামীম।

সভা পরিচালনা করেন ঢাকা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ডা. সাজেদুল হক রুবেল। সভায় উপস্থিত ছিলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য অনিরুদ্ধ দাশ অঞ্জন, আবদুল্লাহ ক্বাফী রতন, সদস্য লুনা নূর ও ঢাকা কমিটির সভাপতি মোসলেহউদ্দিন প্রমুখ।

সিপিবি নেতৃবৃন্দ বলেন, ২০০২ সালে বিএনপি-জামাত সরকারের শিল্পমন্ত্রী রাজাকার নিজামীর হাত দিয়ে দেশের বৃহত্তম আদমজী পাটকল বন্ধ করে দেয়া হয়। আর আজ মুক্তিযুদ্ধের চেতনার দাবিদার বর্তমান আওয়ামী সরকার মুক্তিযুদ্ধে খেতাবপ্রাপ্ত মন্ত্রীর হাত দিয়ে অবশিষ্ট ২৫টি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ বিশ্বাসঘাতকতাপূর্ণ কাজের জন্য জাতি কখনও তাদের ক্ষমা করবে না।

সভা শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল রাজপথ প্রদক্ষিণ করে।

এফএইচএস/এনএফ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]