গুম-খুনকে অপমৃত্যু বানাচ্ছে সরকার: মান্না

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:২৭ পিএম, ১৯ জানুয়ারি ২০২২
সভায় বক্তব্য দিচ্ছেন নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না

বর্তমান সরকার গুম-খুনকে অপমৃত্যু বানিয়ে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেছেন নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না।

তিনি বলেন, ‘দেশে গুম-খুন হচ্ছে। আর সেগুলো অপমৃত্যু বানিয়ে ধামাচাপা দেওয়া হচ্ছে। সরকারের মদতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এসব করে যাচ্ছে। তাদের চাপে ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা জীবনের ভয়ে সেটা মেনে নিতে বাধ্য হচ্ছেন।’

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ‘গুম হওয়া পরিবারের ওপর সরকারি নিপীড়নের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান’ শীর্ষক প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ অভিযোগ করেন। নাগরিক ঐক্য এই প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে।

মান্না বলেন, ‘সরকারের অবৈধ ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবহার করা হচ্ছে।’ তারা (সরকার) এই বাহিনীকে নষ্ট করেছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

সম্প্রতি ঘটে যাওয়া শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ‘ছাত্ররা পুলিশকে ফুল দিচ্ছে। কিন্তু পুলিশ বাহিনী যারা চালাচ্ছে তাদের মন পাথরের থেকেও শক্ত। ওদের মন গলানো যাবে না। ওরা নষ্ট হয়ে গেছে।’

নারায়ণগঞ্জে ইভিএমে ভোটের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জের ভোটের উদাহরণ দিয়ে সারা দেশে এভাবে জাতীয় নির্বাচনের কথা বলছেন। কিন্তু সেখানেও সূক্ষ্ম কারচুপি হয়েছে। এভাবে আগামীতে জাতীয় নির্বাচন করতে দেওয়া হবে না। আমরা দেখিয়ে দিয়েছি, কীভাবে ইভিএমে চুরি হয়। ভোট যেটায় দেওয়া হোক ইভিএমে আগেই রেজাল্ট নির্ধারণ করা যায়। তাই সারা দেশে ইভিএমে ভোট করবেন, এই ধান্দা ছেড়ে দিন।’

রাষ্ট্রপতির সংলাপ প্রসঙ্গে নাগরিক ঐক্যের সভাপতি বলেন, ‘আপনার কোনো ক্ষমতা নেই। দুটি কাজ করেছেন এই পর্যন্ত। একটি প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ, দ্বিতীয়টি বিচারপতি নিয়োগ। সবই শেখ হাসিনার ইশারায়। তাকে প্রধানমন্ত্রী করাটাও আপনার ক্ষমতার বিষয় না। ফলে ইলেকশন নিয়ে আপনি মাতব্বরি করবেন না। আপনাকে অসম্মান করছি না, কিন্তু আপনার কাজ ভালো লাগে না।’

মান্না বলেন, ‘এখন সরকার চাপে পড়ে বেআইনিভাবে আবার ইলেকশন কমিশন আইন করছে। কেউ জানে না; তার খসড়া করে ফেলেছে। যে আন্তর্জাতিক চাপে রয়েছে তারা; তাদের দেখাতে চাচ্ছে যে, আমরা আইন করে ভোট ফেয়ার (সুষ্ঠু) করেছি। কিন্তু আইনটা তো করছেন বেআইনিভাবে।’

নির্বাচন কমিশন আইনের কঠোর সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘এভাবে নির্বাচন করতে পারবেন না। কোনো নির্বাচন কমিশন বানাতে পারবেন না। এরা নির্বাচন কমিশন বানালে সেই নির্বাচন কমিশন মানি না। ওদের নির্বাচন কমিশনের অধীনে কোনো নির্বাচন হবে না। লোকদেখানো সার্চ কমিটির চিন্তা বাদ দিন। বর্তমান সরকারের ক্ষমতায় কোনো নির্বাচন হবেনা। এটা ঠেকাতে সব বিরোধী দল একমত।’

প্রতিবাদ সভায় নাগরিক ঐক্যের অন্যান্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এনএইচ/এআরএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]