বিয়ের বয়স হয়নি, তবুও বাধ্য হয়ে সিদ্ধান্ত নিলাম

ওমর ফারুকী শিপন
ওমর ফারুকী শিপন ওমর ফারুকী শিপন , সিঙ্গাপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৪:১২ পিএম, ১৯ জানুয়ারি ২০২০

তার সাথে আমার তেমন একটা কথা হতো না। খুব বেশি ঘোরাঘুরিরও সুযোগ হয়ে ওঠেনি। তবুও সে আমার অস্তিত্বজুড়ে বিরাজ করছে। তাকে নিয়ে কত রাত স্বপ্ন দেখেছি তার কোনো ইয়ত্তা নেই। তাকে অনুভব করছি প্রতিটি শ্বাস-প্রশ্বাসে। মাহফুজাকে ছাড়া আমি পঙ্গু, মূল্যহীন। সিদ্ধান্ত নিলাম তাকে বিয়ে করে। ভালোবাসার মর্যাদা দেব।

কিন্তু আমার তো এখনো বিয়ের বয়স হয়নি। বাড়িতে গিয়ে কী বলব। মা-বাবার সামনে দাঁড়িয়ে নিজের বিয়ের কথা বলার মতো সাহস আমার হয়নি। আমি কীভাবে বলব, বাবা আমি মাহফুজাকে ভালোবাসি তাকে বউ করে বাড়ি আনতে চাই। সিদ্ধান্তহীনতায় সময় পার করছি।

আমার প্রতি তার অনুভূতি, ভালোবাসা মিথ্যা হতে পারে না, অসম্ভব। সবকিছু শেষ হবার একবার অন্তত চেষ্টা করে দেখি।

বাসা থেকে বের হলাম বোনের বাসার উদ্দেশ্যে। আমাকে এখন সাহায্য করতে পারেন দুই বোন আর ভগ্নিপতি। তাদের পায়ে ধরে বলব প্লিজ আপনারা আমার জন্য কিছু করেন।

বাস থেকে নেমে দেখি শেষ বিকেল। আকাশের অবস্থা বেশি ভালো না। এখন জ্যৈষ্ঠ মাস যে কোনো সময় আকাশে মেঘ জমে ঝড় বৃষ্টি হতে পারে।গত সপ্তাহেও আমাদের পাশের গ্রামে ঝড় বৃষ্টিতে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। গাছ-গাছালি ঘরবাড়ি সব তছনছ। আমার এসব ভেবে কোনো লাভ নেই।

প্রকৃতির ঝড় তার ধ্বংস চিহ্ন রেখে যায় কিন্তু আমার মনের ভেতর যে তার চেয়ে বেশি ভয়াবহ ঝড় বইছে। আমার ভেতরটা ভেঙে চুরে তছনছ হয়ে যাচ্ছে অথচ কাউকে দেখাতে পাচ্ছি না। এই ঝড় মাহফুজাকে না পাওয়া পর্যন্ত থামবে না।

কালো মেঘে সূর্য ঢাকা পড়েছে। আকাশে বিজলী চমকাতে শুরু করেছে। আশপাশের লোকজন দৌড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে যাচ্ছে। আমার কোনো তাড়া নেই। ধীরস্থিরভাবে হাঁটছি। আমার মনের ঝড়ের কাছে এই ঝড় কিছুই না।

হঠাৎ ঝড়ো হাওয়ার সাথে বৃষ্টি আরম্ভ হলো। আমি কাছাকাছি গাছের নিচে আশ্রয় নিলাম। ঝড়ের গতি তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে। চোখের সামনে গাছ-গাছালি মড়মড় করে ভেঙে পড়ছে। মনে হচ্ছে আজকের ঝড়ে আমিও মারা যাব। এমন এক জায়গায় দাঁড়িয়েছি। যেখান থেকে জীবিত ফেরার আশা বোকামি। আশ্চর্য আমি মৃত্যুকে ভয় পাচ্ছি না বরং আমি মনে মনে নিজের মৃত্যু কামনা করছি। এখন আমার মৃত্যু হলেই বুঝি সব সমস্যার সমাধান হবে।

আমি খেয়াল করে দেখলাম ঝড়ের আঘাতটা বড় গাছের উপর দিয়েই গেল। এজন্য লোকজন বলে প্রকৃতিতে ঝড় উঠলে তা বড় গাছের উপর দিয়েই যায়।

আস্তে আস্তে ঝড়ের গতি কমতে থাকে। কিন্তু বৃষ্টি বেড়েই চলেছে। আমি বৃষ্টি উপেক্ষা করে রাস্তায় নেমে পড়ি। আজ বৃষ্টি আমাকে থামাতে পারবে না। আমাকে বোনের বাড়ি যেতেই হবে। আমার মাহফুজার ভালোবাসার মর্যাদা দিতে হবে।

এমআরএম/এমকেএইচ

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]