রহস্যময় মনোলিথের দেখা মিলল ইউরোপের পাহাড়ে

রাকিব হাসান রাফি
রাকিব হাসান রাফি রাকিব হাসান রাফি , স্লোভেনিয়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০১:২৪ এএম, ০২ ডিসেম্বর ২০২০

‘মনোলিথ’ শব্দটি আমাদের অনেকের কাছে সেভাবে পরিচিত নয়। এটি এক ধরনের প্রিজম আকৃতির চকচকে ধাতব স্তম্ভ। সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উটাহ্ মরুভূমিতে আকস্মিক মনোলিথের দেখা মিলেছে।

বিশ্বের বিভিন্ন গণমাধ্যমে পরবর্তীতে সে খবরটি ভাইরাল হয়। এরপর গত শুক্রবার হঠাৎ গায়েব হয়ে যায় রহস্যময় এ মনোলিথটি। উটাহ মরুভূমির মতো আরও একটি মনোলিথের দেখা মেলে দক্ষিণ-পূর্ব ইউরোপের দেশ রোমানিয়ার এক পাহাড়ে।

রোমানিয়ার স্থানীয় গণমাধ্যম ‘জিয়ার পিয়াত্রা নিয়ামথে’ প্রকাশিত সংবাদ অনুযায়ী গত বৃহস্পতিবার (২৬ শে নভেম্বর) থেকে রোমানিয়ার বাটকা ডোয়ামনেই পাহাড়ে এ মনোলিথটি দেখা যাচ্ছে। ৯.৮ থেকে ১৩.১ ফুট উচ্চতার এ বস্তুটি নিয়ে তখন থেকে আশপাশের অঞ্চলের মানুষের মাঝে নানা ধরনের জল্পনা কল্পনা শুরু হয়।

রোমানিয়ার যে পাহাড়ে এটি দেখা যাচ্ছে সেটি স্থানীয় অনেক অধিবাসীর কাছে পবিত্র পাহাড় নামে পরিচিত। এমনকি ঐতিহাসিকভাবেও এ পাহাড়টির বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। পাহাড়ের সম্মুখভাগে ডাসিয় রাজবংশের শাসনামলে একটি দুর্গ নির্মাণ করা হয়। এ দুর্গ থেকে মাত্র কয়েক গজ দূরে মনোলিথটি খাড়াভাবে দণ্ডায়মান অবস্থায় রয়েছে।

আশ্চর্য এ বস্তুটি কোথা থেকে এলো কিংবা কীভাবে এলো সে বিষয়ে নিশ্চিতভাবে এখনও কোনও কিছু জানা যায়নি। অনেকে এ মনোলিথের ছবি তুলে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টুইটারসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করছেন। ফলে ইন্টারনেটের বদৌলতে রীতিমতো পুরো বিষয়টি ভাইরাল হয়ে যায়।

এর আগে গত ১৮ নভেম্বর উটাহ মরুভূমিতে যে মনোলিথটি দেখা গিয়েছিল। সেটির উচ্চতায় ছিল ১০ থেকে ১২ ফুটের কাছাকছি। ব্রেট হ্যাচিং নামক এক পাইলট সর্বপ্রথম এ মনোলিথটি দেখতে পান এবং সাথে তিনি স্থানীয় প্রশাসনকে এ বিষয়ে অবহিত করেন। যদিও তিনি এ রহস্যময় বস্তুটির সঠিক অবস্থান প্রকাশ করতে অস্বীকৃতি জানান।

পরবর্তীতে উটাহ মরুভূমির উপকণ্ঠে অবস্থিত ক্যানিয়নল্যান্ডস ন্যাশনাল পার্কে বেড়াতে আসা কিছু দর্শনার্থীর বদৌলতে রহস্যময় এ বস্তুটির কথা চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। রোমানিয়ার মতো সেখানেও এ বস্তুটি সম্পর্কে একই প্রশ্ন উঠছিল। গত ২৭ নভেম্বর রাতে আচমকা উটাহ মরুভূমি থেকে এ মনোলিথটি উধাও হয়ে যায়। যদিও দ্য গার্ডিয়ান কিংবা নিউইয়র্ক টাইমসসহ বেশ কিছু গণমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী এ মনোলিথটিকে আসলে অন্যত্র সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

অনেকে ইতোমধ্যে অবশ্য দাবি করেছেন যে মনোলিথ দুইটি আসলে ভিনগ্রহের এলিয়েনদের তৈরি এবং তারাই এ মনোলিথ দুইটির একটিকে উটাহ মরুভূমিতে এবং অন্যটিকে রোমানিয়ার পাহাড়ে স্থাপন করেছে। সব মিলিয়ে আমেরিকা এবং ইউরোপে দেখা মেলা এই আশ্চর্য ধাতব চকচকে বস্তুটিকে ঘিরে রহস্য ক্রমেই ঘনীভূত হচ্ছে।

এমআরএম

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]