আখেরাতের কল্যাণে দুনিয়ায় দান-অনুদানের নির্দেশ

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:০০ এএম, ০২ নভেম্বর ২০১৭

ইসলাম মানুষকে আল্লাহ তাআলার প্রতি আনুগত্য প্রকাশের আহ্বান জানায়। এ আহ্বানে সাড়া দিতে হলে নিজেকে আল্লাহর প্রকৃতি বান্দা হিসেবে গড়ে তোলার বিকল্প নেই। নিজেকে আল্লাহর একনিষ্ঠ বান্দা হিসেবে গড়ার জন্য তাঁর হুকুম ‘জীবন ও সম্পদ’ ব্যয়ের মাধ্যমে ত্যাগ-তিতিক্ষার পরিচয় দিতে হবে।

আল্লাহ তাআলা ইতিপূর্বে আলাদা আলাদাভাবে জীবন ও সম্পদের কুরবানি কথা উল্লেখ করেছেন। পরকালের জীবনে যখন কোনো ক্রয়-বিক্রয় বা বন্ধুত্ব কাজে আসবে না সেদিনের কল্যাণে আল্লাহর পথে দানের প্রতি উদ্বুদ্ধ করতে সুস্পষ্ট ভাষায় তিনি ঘোষণা করেন-

Quran

আয়াতের অনুবাদ

Quran

আয়াত পরিচিতি ও নাজিলের কারণ
সুরা বাকারার ২৫৪নং আয়াতে আল্লাহ তাআলা ঈমানদারদেরকে তাঁর দেয়া সম্পদ তথা রিজিক থেকে তাঁরই পথে খরচ করার তাগিদ দিয়েছেন।

আল্লাহর পথে জীবন উৎসর্গ করতে উদ্বুদ্ধ করে পবিত্র কুরআনে ইতিপূর্বে বাদশাহ তালুতের ঘটনা উপস্থাপন করা হয়েছে। অতঃপর এ আয়াতে আল্লাহর পথে অর্থ-সম্পদ ব্যয়ের তাগিদ করে ইরশাদ করেন, ‘হে ঈমানদারগণ! আমি তোমাদেরকে যে রিজিক দান করেছি তা থেকে তোমরা ব্যয় কর এবং পরকালীন চিরস্থায়ী জিন্দেগির সুখ-সামগ্রী ক্রয় কর; মনে রেখো পরকালীন জিন্দেগীর জন্য সাধনা করার সময় দুনিয়ার এ জীবন।

মানুষের দুনিয়ার জীবনের অবসান হলে পরকালের জন্য আর নেক আমল বা কোনো কাজই করার সুযোগ থাকবে না। কেননা দুনিয়াতে কর্ম করে আখেরাতে ফল ভোগ করতে হয়।

সুতরাং মানুষের দুনিয়ার জীবন হবে কর্মময়। আর এ কর্ম যেন হয় আল্লাহ তাআলার পছন্দনীয়। আল্লাহর পছন্দনীয় কাজের মধ্যে তাঁর পথে দান করা পরকালের জন্য পাথেয় সংগ্রহে অন্যতম উপায়।

একটা কথা মনে রাখতে হবে-
পরকালে কোনো আমল ক্রয়-বিক্রয় করা ব্যবস্থা থাকবে না। কারো বন্ধুত্ব কাজে আসবে না। এমনকি কেউ কারো সুপারিশেও এগিয়ে আসবে না। যে দিন বাবা-মা সন্তান দেখলে, ভাই ভাইকে দেখলে আত্মীয়কে দেখলে পলায়ন করবে। তাইতো পরকালের জন্য পাথেয় সংগ্রহ করুন; সেদিন আসার আগে যেদিন কোনো প্রকার ক্রয়-বিক্রয় হবেনা।

যারা আল্লাহ তাআলার বক্তব্যের পরও নিজেদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করবে না। আল্লাহর নির্দেশ পালনে অবহেলা করবে; তারাই সত্যিকারার্থে জালেম। কেননা তারা নিজেরাই নিজেদের প্রতি জুলুম করছে।

পড়ুন- সুরা বাকারার ২৫৩ নং আয়াত

পরিশেষে...
আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে আল্লাহর দেয়া রিজিক থেকে তাঁরই পথে দান করার তাওফিক দান করুন। পরকালের কঠিন পরিস্থিতির মোকাবেলায় রসদ যোগাতে দুনিয়াতেই নেক আমলের প্রতি আগ্রহী হওয়ার তাওফিক দান করুন। নিজেদের প্রতি নিজেদের অত্যাচার থেকে হেফাজত করুন। আমিন।

এমএমএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :