‘ওয়ার্ল্ড হিজাব ডে’ পালিত হবে ১ ফেব্রুয়ারি

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৩০ পিএম, ২০ জানুয়ারি ২০১৯

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক সিটিতে ২০১৩ সাল থেকে ‘হিজাব দিবস’ পালিত হয়ে আসছে। গত ৬ বছরের ধারাবাহিকতায় এবারও ১ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার বিশ্বব্যাপী হিজাব দিবস পালিত হবে।

বিশ্বব্যাপী হিজাব বিরোধী মনোভাব পরিহার, ধর্ম-বর্ণ ও জাতিগত বিদ্বেষমূলক কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার তাগিদেই এ দিবস পালিত হবে।

‘হিজাব আমার স্বাধীনতা, হিজাব আমার নিরাপত্তা, হিজাব আমার পছন্দ, হিজাব আমার আচ্ছাদন’-এ স্লোগানে পালিত হবে এবারের হিজাব দিবস।

বিশ্বব্যাপী নারীদের হিজাব পরিধানে আগ্রহী করে তুলতে আগামী ১ ফেব্রুয়ারি দুপুর ১২টায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক সিটি হলে নানা কর্মসূচির মাধ্যমে পালিত হবে দিবসটি।

কয়েক বছর আগে জ্যামাইকায় নাজমা খান নামে এক বাংলাদেশি ছাত্রী হিজাব পরিধানের কারণে আক্রমণের শিকার হন। এ নাজমা খানই ‘হিজাব দিবস’ কর্মসূচির উদ্যোক্তা। তার পাশে দাঁড়িয়েছেন বাংলাদেশি এ্যাক্টিভিস্ট মাজেদাসহ অনেক নারী।

জ্যামাইকায় আক্রমণের শিকার নাজমা খানের সেই ঘটনার প্রতিবাদ, নিন্দা এবং সর্বসাধারণকে সচেতন করার লক্ষ্যে শুরু হওয়া হিজাব দিবস এবারও উদযাপিত হবে সে একই চেতনায়।

এখনো বিশ্বের অনেক দেশে নারীরা ধর্মীয় পোশাক পরিধানের কারণে বৈষম্যমূলক আচরণের শিকার হচ্ছে। এ কর্মসূচির উদ্যোক্তা নাজমা খানও এবারের কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকবেন।

উল্লেখ্য যে, ২০১৬ সালে নিউইয়র্ক স্টেট পার্লামেন্টে স্টেট সিনেটর রোকসানা জে পারসুয়াদ ‘ওয়ার্ল্ড হিজাব ডে’-এর মাধ্যমে নারীদের হয়রানি বন্ধে উদ্যোগ গ্রহণের দাবি জানায়। এ দাবির প্রেক্ষিতে ‘ওয়াল্ড হিজাব ডে’ শিরোনামে ‘জাতীয় সিলেব্রেশন ডে বিলটি পাশ হয়।

ইতিমেধ্য বিশ্বের ৪৫টি দেশের রাষ্ট্রদূতসহ খ্যাতনামা রাজনীতিক, স্কলারসহ বিশ্বখ্যাত গণমাধ্যম সিএনএন ও টাইম ম্যাগাজিন ‘হিজাব ডে’-এর সঙ্গে ঐকমত্য পোষণ করেন।

এমএমএস/পিআর