দেনমহর কী ও কেন?

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:২৪ পিএম, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বিয়ের সময় স্ত্রীকে বাধ্যতামূলক নগদ অর্থ, স্বর্ণালংকার কিংবা স্থাবর সম্পত্তি হিসেবে যে মাল বা সম্পদ দেয়া হয় সেই মালকে ‘দেনমহর’ বলে। স্ত্রীর প্রতি সম্মানসূচক স্বামীর আবশ্যিক দেনা হলো দেনমহর। তবে বিয়েতে স্বামীর পক্ষ থেকে স্ত্রীকে যে স্বর্ণালংকার উপঢৌকন দেয়া হয় তা দেনমহর হিসেবে সাব্যস্ত হবে না।

নারী-পুরুষের বিয়ে সম্পাদনে অন্যতম শর্ত হচ্ছে দেন-মহর। দেন-মহর-এর শর্ত পূর্ণ না হলে বিয়ে বৈধ হবে না। আর মহর পুরুষকে পরিশোধ করতে হয়। এ কারণেই আল্লাহ তাআলা বিয়ের সময় নারীকে মহর প্রদানের নির্দেশ দিয়েছেন। আল্লাহ তাআলা বলেন-
‘এবং তোমরা নারীদেরকে তাদের মহর সন্তুষ্টচিত্তে প্রদান কর, পরে তারা খুশি মনে (মহরের) কিছু অংশ ছেড়ে দিলে, তোমরা তা স্বাচ্ছন্দে ভোগ কর।’ (সুরা নিসা : আয়াত ৪)

দেনমহর স্ত্রীর ন্যায্য অধিকার। আল্লাহ তাআলা স্বামীকে এ অধিকার আদায়ে নির্দেশ দিয়ে ক্ষ্যান্ত হননি। বরং যদি কোনো স্বামী তার স্ত্রীকে নিজ ইচ্ছায় কোনো কারণে তালাক দেয়, সে ক্ষেত্রেও স্ত্রীকে দেয়া মহর ফেরৎ নিতে কঠোরভাবে নিষেধ করেছেন। আল্লাহ তাআলা বলেন-
‘আর যদি এক স্ত্রীর স্থলে অন্য স্ত্রী গ্রহণ করা স্থির কর এবং তাদের একজনকে প্রচুর অর্থও (মহর) দিয়ে থাক; তবুও তা থেকে কিছুই গ্রহণ কর না। তোমরা কি মিথ্যা অপবাদ এবং প্রকাশ্য পাপাচার দ্বারা তা গ্রহণ করবে? কিরূপে তোমরা তা গ্রহণ করবে, যখন তোমরা পরস্পর (সহবাসে) মিলিত হয়েছ এবং তারা তোমাদের কাছ থেকে দৃঢ় প্রতিশ্রুতি নিয়েছেন?’ (সুরা নিসা : আয়াত ২০-২১

দেনমহর প্রদান প্রসঙ্গে আল্লাহ তাআলা অন্য আয়াতে বলেন-

‘উল্লেখিত (অবৈধ) নারীগণ ব্যতীত অন্যান্য নারীগণকে তোমাদের জন্য বৈধ করা হয়েছে এ শর্ত যে, তোমরা তাদেরকে তোমাদের স্বীয় অর্থের বিনিময়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার জন্য তলব করবে, ব্যভিচারের জন্য নয়। তাদের মধ্যে যাদেরকে তোমরা উপভোগ করবে তাদেরকে নির্ধারিত মহর অর্পণ করবে।’ (সুরা নিসা : আয়াত ২৪)

মহর দেয়ার কারণ সম্পর্কে বলা হয়েছে যে, এ মহর বিয়ে সম্পাদনের অন্যতম শর্ত। স্বামী-স্ত্রী উভয়েই এর মাধ্যমে উপকৃত ও পরিতৃপ্ত। মহর আদায়ে স্বামীর অধিকারই বেশি। কেননা দেনমহর পরিশোধে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার পর স্ত্রীর অধিক কর্তব্য হলো তার দেহ-যৌবনসহ স্বামীর বাড়িতে এসে বা সদা ছায়ার ন্যায় স্বামী-পাশে থেকে তার অনুসরণ ও সেবা করে।

প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘সবচেয়ে অধিক গুরুত্বপূর্ণ শর্ত যা পূরণ করা জরুরি আর তাহলো সেই বস্তু যার দ্বারা তোমরা (স্ত্রীদের) গুপ্তাঙ্গ হালাল করে থাক।’ (জামেউস সগির)

সুতরাং স্ত্রীকে তার প্রাপ্য দেনমহর প্রদান করা আবশ্যক। জমি, জায়গা, অর্থ, অলঙ্কার, কাপড়-চোপড় ইত্যাদিও মহর দেয়া চলে। তবে সেসব সম্পদ যেন উপঢৌকন থেকে দেয়া না হয়।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে দেনমহর পরিশোধ করে বিয়ে সম্পাদন করার তাওফিক দান করুন। বিয়ের বন্ধনকে সুদৃঢ় করতে দেনমহরের শর্তকে সমাজে প্রতিষ্ঠিত করার তাওফিক দান করুন। দেনমহর সম্পর্কে কুরআন-সুন্নাহর নির্দেশ যথাযথ পারন করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

এমএমএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :