রমজানে ফিলিস্তিনিদের জন্য রোনালদোর ১৫ লাখ ডলার অনুদান!

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:০০ এএম, ২১ মে ২০১৯

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। পর্তুগিজ খ্যাতিমান ফুটবল তারকা। পবিত্র রমজান উপলক্ষে ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় সংকটাপন্নদের জন্য ১৫ লাখ ডলার অনুদান দিয়েছেন তিনি। রোনালদোর এ দানে গাজা উপত্যকার সংকটাপন্ন লোকদের দুঃখ-দুর্দশা কিছুটা হলেও লাঘব হবে।

ইসরাইলের অন্যায় আগ্রাসনে অবরুদ্ধ ফিলিস্তিনের গাজাসহ বিভিন্ন অঞ্চলের নিরীহ মানুষ। ফুটবল জগতের এ খ্যাতিমান তরকা খেলোয়াড় দীর্ঘ দিন ধরে ফিলিস্তিনের ওপর ইসরাইলের অন্যায় আগ্রাসন ও বর্বরতার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে আসছেন।

২০১২ সালে ফিলিস্তিনের জন্য তাহবিল সংগ্রহে রোনালদো তার একটি গোল্ডেন বুট নিলামে তুলে তা বিক্রি করেছিলেন। নিলাম থেকে পাওয়া সে অর্থ ফিলিস্তিনের শিশুদের জন্য দান করেছিলেন।

শুধু তাই নয়, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ২০১৩ সালে পর্তুগাল ও ইসরাইলের মধ্যকার এক ফুটবল ম্যাচ শেষে জার্সি বদলে ইসরাইলি খেলোয়াড়দের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছিলেন। ২০১৪ সালের বিশ্বকাপ আসরেও তা ঘটেছিল।

২০১৬ সালে ফিলিস্তিনের এক পরিবারের ৫ বছর বয়সী একমাত্র জীবিত সদস্য শিশু আহমদ বাওবাশা রিয়াল মাদ্রিদের প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে স্বাগত জানিয়েছিলেন। রোনালদো তার সঙ্গে ফটো শেসনে অংশ নেন এবং তাকে একটি শার্ট উপহার দেন।

উল্লেখ্য যে, দীর্ঘ দিন ধরে ইসরাইল অন্যায়ভাবে ফিলিস্তিনের ভূখণ্ড দখল ও তাদের ওপর অত্যাচার নির্যাতন করে আসছে।

২০০৭ সাল থেকে ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকা অন্যায়ভাবে অবরোধ করে রেখেছে ইসরাইল। ফলে গাজা উপত্যকায় বসবাসরত মুসলিমরা চরম মানবেতর জীবন-যাপন করছে।

গাজা উপত্যকায় অবরুদ্ধ সংকটাপন্নদের জন্য ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর এ অনুদান মানবতার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। ফেসবুক টুইটার ইন্সটাগ্রামসহ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে তার এ কাজ বেশ প্রশংসিত হয়েছে।

এমএমএস/জেআইএম