টুপি-হিজাব পরায় ভারতে ছাত্রী-যুবক লাঞ্ছিত : তোপের মুখে গম্ভীর

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:০৭ পিএম, ২৮ মে ২০১৯

ভারতের উত্তরবঙ্গে এক নারী শিক্ষার্থীর হিজাব পরায় এবং হরিয়ানায় এক মুসলিম যুবকের টুপি পরার পৃথক ঘটনায় হামলা ও আক্রমণের শিকার হয়েছেন।

ভারতের উত্তরবঙ্গের একটি মেডিকেল কলেজে এক মুসলিম শিক্ষার্থীর দিকে অপরিচিত কয়েকজন বহিরাগত জয় শ্রীরাম জয় শ্রীরাম বলে তেড়ে আসে।

নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেয়া বক্তব্যে ওই নারী শিক্ষার্থী জানান, গত শনিবার রাত ১০টা দিকে কয়েকজন বন্ধুর সঙ্গে ক্যান্টিন থেকে খাবার খেয়ে ফিরছিলাম। পথেই কয়েকজনকে রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকতে দেখি। যাদেরকে আগে কখনও দেখিনি।’

হামলার শিকার নারী শিক্ষার্থী আরো জানান, ‘আমি সব সময় হিজাব পরি। আমাকে হিজাব পরতে দেখে তারা জয় শ্রীরাম বলে চিৎকার করতে থাকে এবং আমাকে আক্রমণ করতে আমার দিকে তেড়ে আসে। তখন আমরা হামলা থেকে বাঁচতে দৌড়ে নিরাপদে আশ্রয় নেই।’

দেশটির পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করে ওই শিক্ষার্থী বলেন, স্থানীয় থানা এ ঘটনায় অভিযোগ নিতে অস্বীকার করে। পরে থানা কর্তৃপক্ষ এফআইআর থেকে ‘হুমকি’ শব্দ বাদ দেয়ার শর্তে অভিযোগ গ্রহণ করতে রাজি হয়।

অন্যদিকে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির হরিয়ানা রাজ্যের গুরুগ্রামের অধিবাসী মুসলিম যুবক মুহাম্মদ বাকের আলমকে (২৫) টুপি পরার অপরাধে তার ওপর হামলা চালানো হয়। তারা বাকের আলমকে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান দিতে চাপ প্রয়োগ করে। সে এ স্লোগান না দেয়ায় এবং টুপি পরার অপরাধে তার ওপর হামলা করে।

মুহাম্মদ বারেক আলম স্থানীয় মজজিদ থেকে নামাজ পড়ে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে তার গতিরোধ করে তাকে জয় শ্রীরাম বলে স্লোগান দেয়ানোর চেষ্টা করে। সে স্লোগান দিতে অস্বীকার করলে তার ওপর হামলা করা হয়।

বেশ কয়েকজন অপরিচিত যুবক সদর বাজার লেনের কাছে তাকে ঘিরে ধরে এবং মাথার টুপি খুলে ফেলে থাপ্পড় মারে৷ দুর্বৃত্তরা বাকেরকে ‘জয় শ্রীরাম; ভারত মাতা কী জয়’ বলতে বাধ্য করে৷

বাকের পাসটুড়েকে জানায়, “দুর্বৃত্তরা জোর করে ‘জয় শ্রীরাম’ বলানোর চেষ্টা করলে আমি তা বলতে না চাওয়ায় আমাকে ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে লাঠিসোটা দিয়ে নির্দয়ভাবে মারধর করে।”

তবে টুপি পরা যুবকের ওপর হামলার ঘটনায় স্থানীয় নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য গৌতম গম্ভীর নিন্দা জানিয়েছেন এবং আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে পুলিশকে অভিযোগ গ্রহণ করতে নির্দেশ দিয়েছেন।

গতকাল সোমবার দিল্লির নবনির্বাচিত বিজেপি এমপি গৌতম গম্ভীর ধর্মনিরপেক্ষ ভারতের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, গুরুগ্রামে এক মুসলিমকে টুপি খুলে ‘জয় শ্রীরাম’ বলতে বাধ্য করার ঘটনা নিন্দনীয়।

এ ঘটনায় পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, এ ব্যাপারে একটি মামলা করা হয়েছে। ওই এলাকার সিসিটিভির ফুটেজ দেখে অভিযুক্তদের ধরার চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, দিল্লির গুরুগ্রামে মুসলিম যুবককে মারধরের ঘটনার নিন্দা জানিয়ে তির্যক মন্তব্যের শিকার হয়েছেন খোদ বিজেপি থেকে লোকসভায় নির্বাচিত সদস্য গৌতম গম্ভীর । তবে তার এ নিন্দা জানানোকে ভালোভাবে নেয়নি হিন্দুত্ববাদী গেরুয়া শিবির।

দিল্লির বিজেপির প্রধান মনজ তিওয়ারি বলেন, ‘এ ধরনের ঘটনার প্রতিক্রিয়া জানানোর ক্ষেত্রে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। গৌতম গম্ভীরের সরল মন্তব্যকে বিজেপির বিরুদ্ধেও ব্যবহার করা হতে পারে।’

এক বিজেপি সমর্থক গৌতম গম্ভীরকে টুইটারে বলেন, ‘হয় হিন্দু মুসলমান সবার ওপর হামলার প্রতিবাদ জানান, নয় চুপ থাকুন।’

এমএমএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]