মসজিদে বিদ্যুৎ ও পানির অপচয়রোধে স্মার্ট প্রযুক্তি দেবে সৌদি

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:২৭ পিএম, ২৯ অক্টোবর ২০১৯

প্রযুক্তিনির্ভর স্মার্ট মসজিদের উদ্ভাবন করেছে সৌদি আরবের সেনাবাহিনী। তাদের পরিচালিত প্রতিষ্ঠান অ্যাডভান্সড ইলেক্ট্রনিক্স কোম্পানি প্রযুক্তিনির্ভর এসব স্মার্ট মসজিদ প্রকল্পের জন্য অ্যাওয়ার্ড লাভ করেছে। অত্যাধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর মসজিদগুলো বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে চায় সৌদি আরব।

সৌদি সেনাবাহিনীর অ্যাডভান্সড ইলেক্ট্রনিক্স কোম্পানির উদ্ভাবিত এ সমজিদগুলোতে বিদ্যুৎ ও পানি খরচ অনেক কম। তারা উপসাগরীয় অঞ্চলসহ পুরো মুসলিম বিশ্বের মসজিদগুলোতে প্রযুক্তি ছড়িয়ে দিতে চায়।

অ্যাডভান্সড ইলেক্ট্রনিক্স কোম্পানির তথ্য মতে, ‘মসজিদে তাদের প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে ৪৭ শতাংশ বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের পাশাপাশি ২৫ শতাংশ পানি অপচয় রোধ করা যাবে।’

যদি সৌরবিদ্যুৎ ব্যবহার করা হয় তবে ৬০ শতাংশ বিদ্যুৎ খরচ বন্ধ হবে। তাদের উদ্ভাবিত কাঠামোর এ মসজিদে অন্যান্য সবকিছুই খরচের দিক থেকে সাশ্রয়ী।

সৌদি সেনাবাহিনীর এ প্রযুক্তি দেশটির রিয়াদসহ মদিনার মসজিদগুলোতে সংযোজন করা হয়েছে। যে সব মসজিদে এ প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে সেসব মসজিদে তা প্রশংসিত হয়েছে।

আধুনিক এ প্রযুক্তিতে মানুষ অবাক ও স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করছে। মসজিদের বিদ্যুৎ ও পানির খরচ কম হচ্ছে। আবার ইচ্ছা করলে সারাক্ষণ বাতি জ্বালিয়েও রাখা যাচ্ছে এবং কখনো এসি বন্ধ রাখার প্রয়োজন হচ্ছে না। বিদ্যুৎ বিল ও পানির অপচয় রোধ হওয়ায় মানুষের মনে আর অপরাধবোধও কাজ করছে না।

স্মার্ট প্রযুক্তির এ মসজিদগুলোতে মুসল্লির সংখ্যার ওপর প্রয়োজন মতো শীতাতপ যন্ত্র নিয়ন্ত্রণ হবে। মসজিদে মানুষের সংখ্যা কমে গেলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে এসি ঠান্ডা নিয়ন্ত্রণ করবে। আবার মানুষের উপস্থিতি বেড়ে গেলে প্রয়োজন অনুপাতে ঠান্ডা স্বয়ংক্রিয়ভাবে সরবরাহ হবে।

উপসাগরীয় অঞ্চলসহ মুসলিম বিশ্বে আধুনিক প্রযুক্তির এ মসজিদ নির্মাণে পরিকল্পনা রয়েছে। এ ছাড়া অন্যান্য দেশের মসজিদগুলোতেও মুসলিমদের কল্যাণে প্রতিষ্ঠানটির এ প্রযুক্তি ছড়িয়ে দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।

এমএমএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]